বুধবার, ০৩ জুন, ২০২০
আক্কেল চাচার চিঠি (আঞ্চলিক ভাষায় লেখা)
রাইতে কতা, কতা না, কতা হবে দিনি !
Published : Friday, 21 December, 2018 at 6:32 AM
এলেকার এক ম্যা’ভাই সব দিকতে ভালো শুদু মাজে মদ্দি এট্টু রিশা করে। তেবে সারেদিন না বেলা ডুবার আগে এট্টু আর বেলা ডুবার পরে এট্টু। একদিন রাত্তিরি টাকা কড়ি লেনদেন নিয়ে একজনের সাতে পাকা কতা দেচে কাল ঐ লোকরে ম্যা’ভাই টাকা দিয়ে দেবে। কতামতো সেই লোক বিয়ান বেলাত্তে তেমাতায় বইসে আসে সেই ম্যা’ভাইর আর খোজ নেই। বেলা চড়ে মাতার ওপর উইটে গড়ায় যাইয়ে বিকেল হলি সেই ম্যা’ভাই বাজারে আইয়েচে চা খাতি। আসার সাতে সাতে ঐ লোকতো খাররা। বিয়েন বেলায় আসতি কইয়ে বিকেলে আইয়েচে কোন আক্কেলে। তারে ডাইকে নিয়ে গলা চড়ায় কচ্চে তুমার জুবানের তো দেকচি কোন দাম নেই। ম্যা’ভাই কচ্চে কেন কি কল্লাম আমি! কি কারনে কেলেম দিচ্চাও খোলসা কইরে কও। সেই লোক কচ্চে কাল রাত্তিরি তুমার সাতে কতা হলো। তুমি কতা দিলে বিয়ান বেলায় আইসে আমারে টাকা দিবা। সেই কতায় আমি বিয়ান বেলাত্তে বইসে আছি। আর তুমি বৈকেলে আইসে ইরাম ভাব নিচ্চাও যেন কিচুই জানো না। ম্যা’ভাই কচ্চে ও এই কতা। আরে রাইতে কতা তো কতা না, কতা হবে দিনি। লোকটা কচ্চে তার মানে ! ম্যা’ভাই কচ্চে মানে আবার কি রাত্তিরি পানি চুনি খাইয়ে কি কতি কি কইচি তার ঠিক আচে। রাইতে কতা কতাই না, কতা হবে দিনি। শুইনে লোকটা থ’ মাইরে গেচে। আলাম কনে, মলাম যে ! রাইতে কতার মত হইয়ে যাচ্চে রাজনীতির কতা। ককন যে কি হইয়ে যাবে তা আন্দাজ করা মুশকিল। নিতাগের মুকি পিরায় এট্টা কতা শুনি রাজনীতিতি শেষ বিলে কোন কতা নেই। তার মানে কোন কতাই শেষ কতা না। হরহামেশা শুনা যায় দেশের রাজনীতিতি একজন আচেন যারে সবাই ডিগবাজি মাইস্টের হিসেবে চেনে। ককন কি কবে আর করবে তা নিয়ে গুনে পড়েও কোন গুনীনও কতি পারবে না। তেবে তার সাক্ষেতকার নিলি নিঘঘাত তিনি কতেন, মাছ খায় সব পাখিতি দোষ হয় মাছ রাঙার। তার কতাডাও ঝনাত খচাত ফলে যাচ্চে রাজনীতিতে। যিরাম গ্যালো পশশুদিন। ভোটের আগে আমলীগি যোগ দেচেন বিএমপির ভাইস- চিয়ারমেন ইনাম আহমেদ চাচা। তিনি একসময় খালেদা জিয়ার উপদিষ্টাগের পেত্তম সারির একজন ছিলেন। এবারের ভোটে সিলেট-১ আসনে তিনি বিএমপি চেয়ারপারসনের আরাক উপদিষ্টা খন্দকার আব্দুল মুক্তাদির চাচা। তেবে শেষ পযযন্ত জার্সি পরায়ে মাটে লাবায় নি তাই জার্সি পাল্টায় চইলে গেলেন বিপরীত দলে। আগে ধানের শীষ নিয়ে লড়তি চাইলেন পান নি বিলে চইড়ে বসলেন নৌকোয়। হয়ত গাবায় বেড়াচ্চেন ধানের শীষি চিটে, নৌকোর মদ্দি মিটে। ইনাম চাচা চার দলীয় সরকারের আমলে ছিলেন পিরাইভিটাইজেশন কমিশনের চিয়ারম্যান। সচিব হিসেবে সামলায়েছেন বিভিন্ন মুন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব। ১/১১ সময়ে বিএমপির দুঃসময়ে তিনি সরব ছিলেন। বিএমপিতি চিয়ারপারসনের উপদিষ্টাত্তে কাউন্সিলে তারে দলের ভাইস চিয়ারম্যান করা হইলো। এত কিচু পাইয়েও যকন শুদু মাত্তর নমিনেশন না পাইয়ে বড় বড় নিতারা বোল আর ভোল পাল্টায় ফেলেন তকন মনে পড়ে ম্যা’ভাইর কতা। ভালো কাজ কল্লি অনেক সুমায় ইনাম মেলে, দেকা যাক এনাম চাচা কি ইনাম পান।
শব্দার্থ
রাইতে = রাতের বেলা, কতা = কথা, বিয়ান = সকাল, জুবানের = প্রতিশ্রুতি, মুকি = মুখে,মিটে = মিঠাই




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft