সোমবার, ০৯ ডিসেম্বর, ২০১৯
সারাদেশ
তৃণমূলের নিবেদিত কর্মীকে সংরক্ষিত মহিলা আসনে এমপি হিসেবে দেখতে চায় মাদারীপুরবাসী
মাদারীপুর প্রতিনিধি :
Published : Wednesday, 23 January, 2019 at 8:33 PM
তৃণমূলের নিবেদিত কর্মীকে সংরক্ষিত মহিলা আসনে এমপি হিসেবে দেখতে চায় মাদারীপুরবাসীএকাদশ জাতীয় সংসদে মাদারীপুর সংরক্ষিত আসনে নারী সংসদ সদস্য কে হচ্ছেন এ নিয়ে শুরু হয়েছে নানা জল্পনা-কল্পনা। তবে তৃণমূলের নিবেদিত কর্মীকে সংরক্ষিত মহিলা আসনে এমপি হিসেবে দেখতে চায় রাজনৈতিক মহলসহ সাধারণ মানুষ।
খোজ নিয়ে জানা যায়, নারী আসনের জন্য মাদারীপুরে এই পর্যন্ত ১০ প্রার্থী মনোনয়ন পত্র দাখিল করেছেন।
এরা হলেন মাদারীপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট আবদুল লতিফের মেয়ে ও  মাদারীপুর জেলা জজর্কোট এর পিপি, জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট এমরান লতিফের বোন সরকারী নাজিউদ্দিন কলেজের সাবেক মহিলা সম্পাদিকা, সদর উপজেলার সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান ও জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদিকা হোমায়রা লতিফ পান্না, কালকিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যাপিকা তাহমিনা সিদ্দিকী, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সমাজ কল্যাণ সম্পাদক ড. সেলিনা আখতার, মাদারীপুর মহিলা লীগের নেত্রী ও জেলা পরিষদের সদস্য আমেনা খাতুন বেবী, সরকারী নাজিউদ্দিন কলেজের সাবেক মহিলা সম্পাদিকা রিহানা পারভীন লিপা, মহিলালীগের কেন্দ্রীয় কমিটির ড. ঝর্ণা বাড়ৈ, আওয়ামীলীগ নেত্রী রোজী আক্তার, খালেদা খানম নারগিছ আক্তার নীলা, এমপি শাজাহান খানের চাচাতো বোন এবং মাদারীপুর সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পাভেলুর রহমান শফিক খানের বোন মহিলা লীগের নেত্রী কুমকুম খান।
এরমধ্যে হেভিওয়েট প্রার্থী হিসাবে তাহমিনা সিদ্দিকী, হোমায়রা লতিফ পান্না ও ড. সেলিনা  আখতারের নাম প্রচার-প্রচারনায় রয়েছে।    
সংরক্ষিত আসনে নারী প্রার্থী হোমায়রা লতিফ পান্না বলেন, আমার পরিবারের সকলেই আওয়ামীলীগের রাজনীতির সাথে জড়িত। আমার বাবা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানে খুব ঘনিষ্ঠ সহযোগী ছিলেন। আমার বাবা মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক ছিলেন। ১৯৮০-৮১ সালের নাকসুর নির্বাচিত ছাত্রলীগ মনোনিত প্যানেলে সম্পাদিকা নির্বাচিত হই, সদর উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত এবং জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদিকা হই। ২০১৮ সালে ১ নভেম্বর যুব দিবসের অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছ থেকে শ্রেষ্ঠ সংগঠকের পুরস্কার গ্রহণ করি। আমি সমাজের সাধারণ মানুষের সাথে মিশে সুখে দুঃখে তাদের পাশে থেকে যতটুকু সম্ভব সহযোগিতা করি। সকল দিক বিবেচনায় নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাকে সংরক্ষিত আসনে এমপি হিসেবে মনোনয়ন দিবেন বলে আমি আশা করছি।
কালকিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যাপিকা তাহমিনা সিদ্দিকি বলেন, আমি প্রধানমন্ত্রীর কাছে নমিনেশন চাইবো, তিনি দিলে নমিনেশন নিয়ে এমপি হবো আর না দিলে হবো না।
সুজন-সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন) এর মাদারীপুর শাখার সাধারণ সম্পাদক ও ফ্রেন্ডস অভ নেচারের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক রাজন মাহমুদ বলেন, ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগ জয়ী হয়ে সরকার গঠন করেছে। এখন সংরক্ষিত নারী আসনে এমপি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। আমরা মাদারীপুরবাসী মনোকরি যারা ছাত্র জীবন থেকে আওয়ামীলীগের রাজনীতির সাথে জড়িত থেকে এলাকার মানুষের সুখে-দুঃখে সব সময় পাশে থেকেছেন তাদের মনোনয়ন দেয়া উচিত। যারা মানুষের পাশে সর্বদা থাকতে পারবেন, মানুষের উপকার করতে পারবেন এমন প্রার্থীই মাদারীপুরে মনোনয়ন পাবেন বলে আমি আশা করি। এলাকার সাধারণ মানুষের সাথে যাদের কোন সম্পর্ক নেই এমন প্রর্থীকে মনোনয়ন না দেয়াই ভালো।



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft