সোমবার, ১৪ অক্টোবর, ২০১৯
বিনোদন সংবাদ
শাকিব খানের পথে হাটছেন অপু বিশ্বাস!
বিনোদন ডেস্ক :
Published : Wednesday, 6 March, 2019 at 8:05 PM
শাকিব খানের পথে হাটছেন অপু বিশ্বাস!সুপারস্টার শাকিব খানের পথেই হাটছেন জনপ্রিয় নায়িকা অপু বিশ্বাস। ঢালিউডের অনেক শীর্ষস্থানীয় তারকাই কলকাতার ছবিতে অভিনয় করছেন। শাকিব খান ও জয়া আহসানের মতো প্রথম সারির তারকারা দাপিয়ে অভিনয় করছেন কলকাতার ছবিতে।
বাংলাদেশের শীর্ষ স্থানীয় দুই তারকা শাকিব খান ও জয়া আহসান। দেশে তাদের জনপ্রিয়তা নিয়ে বাড়িয়ে বলার প্রয়োজন নেই। দেশের গণ্ডি পেরিয়ে ভারতের পশ্চিমবঙ্গেও তারা অবস্থান করে নিয়েছেন। নিয়মিত কাজ করছেন টালিউডের সিনেমায়। আর এই কাজের সুবাদেই তারা সেখানে স্থান করে নিয়েছেন সেরাদের তালিকায়।
কলকাতার আকাঙ্ক্ষিত তারকাদের মধ্যে নাম লিখিয়েছেন শাকিব খান ও জয়া আহসান। সেখানকার প্রভাবশালী পত্রিকা ক্যালকাটা টাইমস-এর জরিপে ২০১৮ সালের আকাঙ্ক্ষিত ২০ পুরুষের মধ্যে শাকিব খান ১৮তম। আর আকাঙ্ক্ষিত নারীর তালিকায় জয়া আহসানও রয়েছেন ১৮তম স্থানে। সম্প্রতি এই তালিকপ্রকাশ করেছে গণমাধ্যমটি।
২০১৮ সালে কলকাতায় শাকিব খানের ‘চালবাজ’, ‘ভাইজান এলো রে’ ও ‘নাকাব’ সিনেমাগুলো মুক্তি পায়। এগুলোর মধ্যে দুটি যৌথ প্রযোজনা ও একটি কলকাতার লোকাল প্রোডাকশনে নির্মিত হয়েছিলো। সেখানকার দর্শকরা তাকে ভালোভাবে গ্রহণ করেন। যার সুবাদে আকাঙ্ক্ষিত পুরুষের তালিকায় চলে এসেছে তার নাম।
অন্যদিকে জয়া আহসান ‘বিজয়া’, ‘এক যে ছিলো রাজা’ ও ‘ক্রিসক্রস’ সিনেমাগুলোতে অভিনয় করেন। প্রত্যেকটি সিনেমাই সেখানে দারুণভাবে প্রশংসিত হয়।
এবার ঢালিউডের আরেক অভিনেত্রী অপু বিশ্বাসও কলকাতার ছবিতে শক্ত একটা অবস্থান গড়তে যাচ্ছেন।
এ লক্ষ্যেই কিছুদিন পর পরই কলকাতায় যাচ্ছেন এই অভিনেত্রী। তা ছাড়া চলচ্চিত্রের বিশেষ বিশেষ উৎসবে অংশ নেওয়ার আমন্ত্রণ জানানো হচ্ছে তাকে। এরই মধ্যে বেশ কয়েকটি নতুন সিনেমার বিষয়েও আলাপ-আলোচনা চলছে বলে জানালেন তিনি। তবে এখনই কোনো ছবির বিষয়ে বিস্তারিত বলতে অপারগতা প্রকাশ করেন অপু।
তিনি জানান, ‘বাংলাদেশের ঐতিহ্যকে ধারণ করে কলকাতায় চলচ্চিত্র অঙ্গনে পা রেখেছেন তিনি। মনে করেন, বর্তমানে যেসব বাংলাদেশি অভিনেত্রী কলকাতায় অভিনয় করতে গিয়ে ভারতীয় হয়ে গেছেন তিনি তা হবেন না। তিনি বাংলাদেশি নায়িকা হিসেবেই জনপ্রিয়তা অর্জন করতে চান।
অপু বিশ্বাস বলেন, ‘যেসব ছবি নিয়ে কথাবার্তা হচ্ছে, তার বেশিরভাগই অফ ট্র্যাকের গল্প। মূলত কলকাতায় আমার প্রথম ছবি ‘শর্টকাট’-এ আমাকে দেখেই এ ধরনের ছবির প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। ছবিটি এখনো মুক্তি পায়নি। মুক্তির আগে ছবিটি দেখে তাদের ধারণা, গতানুগতিক ধারার বাইরের ছবিতেও আমি বেশ ভালো করতে পারব। তবে আমি সব ধরনের চরিত্র ও চলচ্চিত্রেই অভিনয় করতে রাজি আছি, যদি তা মনের মতো ও পছন্দসই হয়। আমি বাংলাদেশে যেভাবে আমার দর্শকদের মাথায় নিয়ে এগিয়ে গেছি, কলকাতার ক্ষেত্রেও ঠিক তাই হবে। আমার বিশ্বাস, আমি এখানেও সফল হব।’
তিনি আরো বলেন, ‘বাংলাদেশ এবং কলকাতার মধ্যে এতটা ভাবসূত্র হয়ে গেছে, মনে হয় না বাংলাদেশ-কলকাতা আলাদা। আমরা এক ভাষার মানুষ, এক পরিবেশের মানুষ এবং একরকমের শিল্পী। কদিন আগে সেখানকার চলচ্চিত্র উৎসবে আমার ‘রাজনীতি’ ছবিটি প্রদর্শিত হয়। ছবিটি দেখে অনেকেই আমার অভিনয়ের যেভাবে প্রশংসা করেছেন, তাতে আমি অভিভূত। এটা আমার কাছে খুবই সম্মানের। একজন শিল্পী হিসেবে এটাই প্রাপ্য। এভাবেই আমি দুই বাংলার মানুষদের মন জয় করতে চাই।’
তবে অপু বিশ্বাসের কলকাতা মিশনকে অন্যভাবেও দেখছেন কেউ কেউ। চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্টদের অভিমত, অপু বিশ্বাসের হাতে এখন খুব একটা কাজ নেই। অনেকটাই বেকার হয়ে আছেন। সম্প্রতি ‘শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ-২’ ও কলকাতার একটি সিনেমা ‘শর্টকাট’-এর কাজ প্রায় শেষ করেছেন। এ কারণেই সেখানকার চলচ্চিত্র ইন্ডাস্ট্রিতে স্থায়ী আসন গড়তে চাচ্ছেন অপু বিশ্বাস। যদিও নিন্দুকের কথায় তেমন একটা কান দিচ্ছেন না অপু। বলেন, ‘নিন্দুকেরা কত কথাই তো বলবে। তাদের কাজই সমালোচনা করা। আর আমাদের কাজ হলো তাদের কথায় কর্ণপাত না করা।’
জাজ মাল্টিমিডিয়া ও ভারতের এসকে মুভিজের যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত ‘শিকারি’ ছবি দিয়ে বাংলাদেশের পাশাপাশি ভারতের বাজারে পা রাখেন শাকিব খান। প্রথম ছবি দিয়েই এই তারকা দুই বাংলায় সাড়া ফেলতে সক্ষম হন। ‘শিকারি’ ছাড়াও শাকিব খান কলকাতার ‘নবাব’, ‘চালবাজ’, ‘ভাইজান এলো রে’ ও ‘নাকাব’ ছবিতে অভিনয় করেছেন। এগুলোর মধ্যে দুটি যৌথ প্রযোজনা ও একটি কলকাতার লোকাল প্রোডাকশনে নির্মিত হয়েছিলো। সেখানকার দর্শকরা তাকে ভালোভাবে গ্রহণ করেন। যার সুবাদে আকাঙ্ক্ষিত পুরুষের তালিকায় চলে এসেছে শাকিব খানের নাম।



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected]l.com, [email protected]
Design and Developed by i2soft