বৃহস্পতিবার, ০৯ এপ্রিল, ২০২০
জাতীয়
বিএনপির আন্দোলনের দৌড় দেশের মানুষ জানে: হানিফ
কাগজ ডেস্ক :
Published : Monday, 8 April, 2019 at 10:34 PM
বিএনপির আন্দোলনের দৌড় দেশের মানুষ জানে: হানিফআন্দোলন করে খালেদা জিয়ার মুক্তি সম্ভব নয় উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ বলেছেন,আইনি প্রক্রিয়ায় খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে হবে। কারণ আপনাদের (বিএনপি) আন্দোলনের দৌড় এ দেশের মানুষ জানে।
বিএনপি নেতাদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আপনাদের অনেক বিজ্ঞ আইনজীবী আছেন যারা অপরের সম্পত্তি দখল করে ভোগ করেছেন, তাদের বলেন। তারা আইনি লড়াইয়ের মাধ্যমে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে আনুক।
সোমবার (৮ এপ্রিল) বিকেলে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনের কাউন্সিল হলে ‘ভবনের কর্মদক্ষতাভিত্তিক অগ্নি সুরক্ষা : বর্তমান প্রেক্ষিত’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন হানিফ।
বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপ-কমিটি আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন উপ-কমিটির চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মো. হোসেন মনসুর।
অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন উপ-কমিটির সদস্য সচিব, আইইবি’র সভাপতি আবদুস সবুর। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ড. মুনাজ আহমেদ নূর। অন্যান্যের মধ্যে রাজউকের সাবেক চেয়ারম্যান প্রকৌশলী নুরুল হুদা ও ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আলী আহমেদ খান বক্তব্য রাখেন।
আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক বলেন, বেগম খালেদা জিয়ার প্যারোলে মুক্তির বিষয়টি কেন এল জানি না। তবে আবেদন করলে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ভেবে দেখতে পারে। বেগম খালেদা জিয়ার মামলার জন্য আওয়ামী লীগকে দায়ী করা হয়। অথচ তাদের পেয়ারের লোক ব্যারিস্টার মঈনুল যখন আইন উপদেষ্টা ছিলেন তখন তিনি এ মামলা করেছেন। যিনি বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মামলা করেছেন তার সঙ্গে বিএনপির সখ্য ঠিকই আছে।
মির্জা ফখরুল ইসলামের বক্তব্যের জবাবে হানিফ বলেন, সবকিছুতে আপনারা রাজনীতি খোঁজেন। বনানীর এফআর টাওয়ারে আগুন লাগে, সেখানেও আপনারা সরকারের ব্যর্থতা খোঁজেন। বলা হচ্ছে, আগুন নেভানোর জন্য আধুনিক যন্ত্রপাতি কেনা হয়নি।
আওয়ামী লীগ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, ১৯৭৫ সাল থেকে যতগুলো সরকার রাষ্ট্র পরিচালনা করেছে, তারা সবাই মিলে ফায়ার সার্ভিসের জন্য যত যন্ত্রপাতি কিনেছে আওয়ামী লীগ সরকার গত ১০ বছরে তার চেয়ে বেশি যন্ত্রপাতি কিনেছে। আপনারাও ক্ষমতায় ছিলেন, ওই সময় ফায়ার সার্ভিসের জন্য কী করেছেন- সেটা বলেন না।
তিনি বলেন, আপনারা মাথাপিছু ৫০০ মার্কিন ডলার আয় রেখে গেছেন। আমরা তা এক হাজার ৭০০ ডলারে উন্নীত করেছি। এগুলো কি উন্নয়ন নয়?



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft