শনিবার, ০৪ এপ্রিল, ২০২০
আন্তর্জাতিক সংবাদ
রাতে শান্তিতে ঘুমাতে পারছেন না দিদি : মোদি
আন্তর্জাতিক ডেস্ক :
Published : Monday, 8 April, 2019 at 8:33 PM
রাতে শান্তিতে ঘুমাতে পারছেন না দিদি : মোদিভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেছেন, আপনারা যত মোদি মোদি করেন, একজনের ঘুম উড়ে যায়। জানেন তিনি কে? তিনি পশ্চিমবঙ্গের স্পিডব্রেকার দিদি। রাতে শান্তিতে ঘুমোতে পারছেন না তিনি।
রোববার (৭ এপ্রিল) ভারতের কোচবিহারে ভোটের প্রচারে এসে রাসমেলার মাঠে আয়োজিত জনসভায় তিনি এসব কথা বলেন।
কেন ভয় পেয়েছেন দিদি, তার ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, পশ্চিমবঙ্গকে দিদি ও ভাইপোর জুটি গুন্ডা, তোলাবাজ, অনুপ্রবেশকারীদের স্বর্গরাজ্য বানিয়ে তুলেছে। বিজেপি ক্ষমতায় এলে এই রাজত্ব শেষ হয়ে যাবে, তাই দিদির এত ভয়!
এর আগে শিলিগুড়ির কাওয়াখালির সভা থেকেও ভয়ের কথা বলেছিলেন মোদি। মাঠের ভিড় দেখে সেদিন প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন, এই ভিড় দেখে দিদি ভয় পেয়ে যাবেন। এদিনও রাসমেলার মাঠে ভিড় দেখে তিনি একই কটাক্ষ করেন।
তৃণমূলের স্থানীয় নেতৃত্ব অবশ্য বলছেন, সভায় যতই জনসমাগম হোক, তাতে ভয়ে কিছু নেই। কারণ, এর অনেকটাই টাকা খরচ করে নিয়ে আসা। এদিন ফালাকাটার জনসভা থেকে এই একই অভিযোগ তুলেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও। তৃণমূলের অনেকেই বলছেন, তাই মোদির সভার লোক সংখ্যা দেখে ভয় পাওয়ার কিছু নেই। তাছাড়া, মমতার সভাতেও যথেষ্ট ভিড় হচ্ছে।
মোদি এদিন ভয়ের উপরেই বেশি জোর দিয়েছেন। তিনি বলেন, পশ্চিমবঙ্গ ঠিক করেছে, দিদির হাত থেকে মুক্ত হবে। এই ভাবনা দেশেরও ভাবনা।
তিনি দাবি করেন, বামেদের হাত থেকে ক্ষমতা ছিনিয়ে নেওয়ার পরে মমতাও তাদেরই পথে চলেছে। মোদি বলেন, ত্রিপুরায় কিন্তু তা হয়নি। মানুষ বামেদের হাত থেকে ক্ষমতা ছিনিয়ে বিজেপিকে দিয়েছে।
তিনি বলেন, মা-মাটি-মানুষ এক দিকে, তৃণমূলের সত্যতা আর এক দিকে। যারা ভারতকে টুকরো টুকরো করতে চাইছে, ভোট ব্যাংকের জন্য দিদি তাদের সঙ্গে হাত মিলিয়েছেন।
এই প্রসঙ্গে নাম না করে ন্যাশনাল কনফারেন্স নেতা ওমর আবদুল্লার প্রসঙ্গ তুলেছেন তিনি। ওমর সম্প্রতি জম্মু-কাশ্মীরের জন্য এক জন এবং বাকি ভারতের জন্য আর এক জন প্রধানমন্ত্রীর কথা বলেছিলেন।
সেই প্রসঙ্গ উস্কে মোদি বলেন, দিদি এখন এমন লোকেদের সঙ্গে চলেছেন, যারা ভারতে দু’টি প্রধানমন্ত্রী চায়। তার কথায়, এটা মাকে অপমান।
এর পাশাপাশি এদিনও মোদি সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধের প্রসঙ্গ তোলেন। বলেন, ২০১৪ সালের আগে প্রায় প্রতিদিন সন্ত্রাসবাদী হামলা হত। একের পর এক সেনা শহীদ হতেন। কিন্তু যখন থেকে এই চৌকিদারকে আপনারা বসিয়েছেন, তখন থেকে সন্ত্রাসবাদীদের ঘরে ঢুকে মার দেওয়া হচ্ছে।
এর সঙ্গেই মোদি বলেন, আর নিজের রাজনীতির ফায়দায় অনুপ্রবেশকারীদের মদত দিচ্ছেন দিদি। এটা বিশ্বাসঘাতকতা।
তবে বিজেপির স্থানীয় নেতারা বলছেন, অনুপ্রবেশ থেকে সারদা-নারদ, সব বিষয়কে একজোট করলে মমতার ভয় পাওয়ারই কথা। সেটাই জোর দিয়ে বলেছেন মোদি। 



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft