সোমবার, ০৬ এপ্রিল, ২০২০
জাতীয়
তারেকের ‘নিদের্শে’ চার এমপির শপথ : ফখরুলের সংবাদ সম্মেলন
বিএনপির নাটকীয়তার অবসান!
ঢাকা অফিস :
Published : Monday, 29 April, 2019 at 10:32 PM
বিএনপির নাটকীয়তার অবসান!অবশেষে একাদশ জাতীয় সংসদে যাচ্ছে বিএনপি। একে একে সব নাটকীয়তার অবসান ঘটছে তাদের। গতকাল তাদের চারজন এমপি শপথগ্রহণ করেছেন। তারা বলেছেন দলীয় প্রধান তারেক রহমানের নির্দেশেই তারা শপথ নিয়েছেন। আর রাতে সংবাদ সম্মেলন করে ‘দলীয় সিদ্ধান্তে তারা সংসদে যাচ্ছেন’ মর্মে জানিয়েছেন দলের মহাসচিব মীর্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।
দলীয় চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসা নিশ্চিত করা ও গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের স্বার্থে বিএনপি দলীয়ভাবে সংসদে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে জানিয়েছেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।
তিনি বলেন, চেয়ারপারসানের সুচিকিৎসা, তার মুক্তি এবং একটি অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবিতে আমরা সংসদে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।
সোমবার (২৯ এপ্রিল) রাতে রাজধানীর গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা জানান। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিজয়ী দলের চার প্রার্থীর সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ গ্রহণের পর এ প্রতিক্রিয়া জানান বিএনপি মহাসচিব।
সংবাদ সম্মেলনে মির্জা ফখরুল বলেন, রোববার সন্ধ্যায় দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্যদের সঙ্গে আলোচনা করেন। দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাদের সঙ্গে তিনি আলোচনা করেছেন। তারই পরিপ্রেক্ষিতে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।
এর আগে, বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের অনুমতি পেয়ে সোমবার বিকেল সোয়া ৫টার দিকে শপথ নিতে সংসদে স্পিকারের কার্যালয়ে যান বিএনপির চার পার্থী আমিনুল ইসলাম, হারুনুর রশিদ, উকিল আব্দুস সাত্তার ভূঁইয়া ও মোশারফ হোসেন। বিকেল সাড়ে ৫টার কিছু পরে শুরু হয় শপথ গ্রহণের আনুষ্ঠানিকতা। পৌনে ৬টার আগেই শেষ হয় চার প্রার্থীর শপথ।
চার প্রার্থীর মধ্যে মো. আমিনুল ইসলাম চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ আসন থেকে, হারুনুর রশিদ চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ আসন থেকে, উকিল আব্দুস সাত্তার ভূঁইয়া ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ ও মোশারফ হোসেন বগুড়া-৪ আসন থেকে বিজয়ী হয়েছিলেন একাদশ নির্বাচনে। এই চার প্রার্থীর শপথের ফলে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপির বিজয়ী ছয় প্রার্থীর মধ্যে দলীয় মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরই কেবল শপথ নেওয়া থেকে বাদ থাকলেন।  
শপথ গ্রহণ শেষে তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় উকিল আব্দুস সাত্তার ভূঁইয়া বলেন, দলীয় সিদ্ধান্তেই আমরা শপথ নিয়েছি। পরে আরেক এমপি হারুনুর রশিদ সাংবাদিকদের বলেন, সংসদকে বৈধতা দেওয়ার জন্য আমরা সংসদে যোগ দিচ্ছি না, আমরা সংসদে যোগ দিচ্ছি জনগণের কথা বলতে। দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নির্দেশে আমরা শপথ নিয়েছি।
শপথ গ্রহণ শেষে চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ আসনের হারুনুর রশিদ সাংবাদিকদের বলেন, আমাদের নেতা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নির্দেশেই শপথ নিয়েছি। সংসদে গিয়ে আমরা আমাদের নেত্রীর মুক্তির যৌক্তিকতা এবং নিরপেক্ষ নির্বাচনের দাবি তুলে ধরতে চাই।
এর আগে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিজয়ী বিএনপির ছয় এমপির মধ্যে আগেই শপথ নিয়েছেন ঠাকুরগাঁও-৩ আসন থেকে নির্বাচিত জাহিদুর রহমান জাহিদ। এর ফলে একমাত্র বিএনপির মহাসচিব ও বগুড়া-৬ আসন থেকে নির্বাচিত মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ছাড়া দল থেকে নির্বাচিত বাকি পাঁচ সদস্যই শপথ নিলেন।
এর আগে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর ভোট কারচুপির অভিযোগ তুলে বিএনপি শপথ না নেওয়ার ঘোষণা দিলেও গত বৃহস্পতিবার (২৫ এপ্রিল) ঠাকুরগাঁও-৩ আসন থেকে নির্বাচিত বিএনপির সংসদ সদস্য জাহিদুর রহমান জাহিদ শপথগ্রহণ করেন। পরে তাকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়।
গত ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত সংসদ নির্বাচনে বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা পায় আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন জোট ও মিত্ররা। মাত্র ৮টি আসন পায় বিএনপি নেতৃত্বাধীন জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। নির্বাচিত ৮ জনের মধ্যে ৬ জন বিএনপির আর দু’জন গণফোরামের। তবে নির্বাচনে অনিয়ম ও কারচুপির অভিযোগ তুলে তা প্রত্যাখ্যান করে ঐক্যফ্রন্ট।
গণফোরামের দুই সংসদ সদস্যের মধ্যে মৌলভীবাজার-২ আসন থেকে বিএনপির প্রতীক নিয়ে নির্বাচিত সুলতান মোহাম্মদ মনসুর গত ৭ মার্চ শপথ নিয়ে সংসদে যোগ দেন। সিলেট-২ আসন থেকে গণফোরামের প্রতীক নিয়ে নির্বাচিত মোকাব্বির খানও গত ২ এপ্রিল শপথ নেন।
সর্বশেষ গত বৃহস্পতিবার (২৫ এপ্রিল) দলীয় সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নেন জাহিদুর রহমান। এ কারণে শনিবার রাতে তাকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়। ওই বহিষ্কারাদেশের মাধ্যমে সংসদে যোগ দেয়ার বিষয়ে দলটি তাদের অবস্থান পরিষ্কার করে।
বিএনপির বিজয়ী প্রার্থী হিসেবে এখন শপথ নিতে বাকি রয়েছেন একমাত্র দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft