সোমবার, ১৪ অক্টোবর, ২০১৯
জাতীয়
দুর্বৃত্তায়ন রাজনীতির জন্য অশুভ : হাছান মাহমুদ
কাগজ ডেস্ক :
Published : Thursday, 9 May, 2019 at 8:16 PM
দুর্বৃত্তায়ন রাজনীতির জন্য অশুভ : হাছান মাহমুদবনিকায়ন এবং ও দুর্বৃত্তায়ন রাজনীতির জন্য অশুভ বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ও তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ। বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবে পরমাণু বিজ্ঞানী ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়ার ১০ম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।
বনিকায়ন ও দুর্বৃত্তায়নের কারণে রাজনীতিতে ব্রত নেই বলে মন্তব্য করে হাছান মাহমুদ বলেন, আজকে রাজনীতিবিদরা রাজনীতি যে একটা ব্রত আছে সেটা ভুলে গেছে। যে কারণে রাজনীতিতে বনিকায়ন ও দুর্বৃত্তায়ন হয়েছে। রাজনীতির বনিকায়ন এবং ও দুর্বৃত্তায়ন আমি মনে করি অশুভ। কারণ যখন বনিকরা রাজনীতি নিয়ন্ত্রণ করে তখন তারা সেখান থেকে মুনাফা নেওয়ার চেষ্টা করে। আর দুর্বৃত্তরা যখন রাজনীতি করে, তখন তারা প্রতিপত্তি দেখায় তখন সমাজ থেকে দুর্বৃত্ত দূর করা প্রতিবন্ধকতা হয়ে দাঁড়ায়।
তিনি বলেন, বনিকায়ন আর দুর্বৃত্তায়নের বাংলাদেশে সূতিকাগার জিয়াউর রহমান। জিয়াউর রাহমান বনিকায়ন আর দুর্বৃত্তায়ন শুরু করেছে, আর সেটিকে ষোলকলায় পূর্ণ করেছে এরশাদ সাহেব। এটি বাস্তবতা, অনেকের হয়ত শুনতে খারাপ লাগবে। সেই ধারাবাহিকতায় রাজনীতি কলুষিত হয়েছে, রাজনীতিতে বনিকায়ন এবং দুর্বৃত্তায়ন যে বিএনপি করেছে এর প্রকৃষ্ট উদাহরন হচ্ছে তারেক রহমানের মত একজন স্বীকৃত দুর্বৃত্তকে বিএনপি ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান করা। যার নেতৃত্বে একুশে আগস্টে গ্রেনেড হামলা হয়েছিল, হাওয়া ভবন হয়েছে, যেই হাওয়া ভবন থেকে প্রতিটি ব্যবসা থেকে টোল আদায় হতো। আজকে বিএনপি একটি দুর্বৃত্বের দলে পরিণত হয়েছে।
সম্প্রতি লন্ডনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এক বক্তব্যের সমালোচনা করেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল। সেই বক্তব্যের জবাবে তিনি বলেন, দুর্বৃত্তায়নের দল বিএনপির মহাসচিব হচ্ছেন মির্জা ফখরুল ইসলাম। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী লন্ডনে বিএনপির দুর্বৃত্তায়ন, বিএনপির দুর্নীতি, তারেক রহমান এবং তারেক রহমানের মাতা খালেদা জিয়ার দুর্নীতি নিয়ে বক্তব্য রেখেছেন। সেই বক্তব্যের আলোকে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, এই বক্তব্য নাকি গণতন্ত্রের জন্য হুমকি। আমি বলবো, বাংলাদেশে গণতন্ত্রের জন্য বড় হুমকি হচ্ছে বিএনপি। কারণ তারা গণতন্ত্রকে সব সময় বাধাগ্রস্ত করেছে, তাদের জন্মটাই হয়েছে অগণতান্ত্রিক ভাবে।
ঐক্যফ্রন্টে এখন আর ঐক্য নেই -মন্তব্য করে তিনি বলেন, ২০ দলে আমরা ভাঙ্গনের সুর দেখতে পেলাম। এখন ঐক্যফ্রন্টে শুনতে পাচ্ছি নানা ধরনের কথা বার্তা। এই ঐক্যফ্রন্টে এখন আর ঐক্য নাই। ২০ দল থেকেও দল অনেকে ধীরে ধীরে পালাতে শুরু কতরেছে। আমি বিএনপিকে অনুরোধ জানাবো দেশের স্বার্থে গণতন্ত্রের স্বার্থে আমরা চাই বিএনপি এই দুর্বৃত্তায়ন চক্র থেকে বের হয়ে বিএনপি গণতান্ত্রিক ভাবে পরিচালিত হবে। বিএনপি জনগণের দল হবে, এটাই আমরা চাই। সেটা করতে হলে আপনাদের রাজনৈতিক কর্মপন্থা পরিবর্তন করতে হবে।
বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি অভিনেত্রী সারাহ বেগম কবরীর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন সাবেক মন্ত্রী কামরুল ইসলাম, সাবেক মন্ত্রী সামসুল হক টুকু, আওয়ামী লীগ নেতা বলরাম পোদ্দার, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক অরুন সরকার রানা।



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft