বুধবার, ২০ নভেম্বর, ২০১৯
তথ্য ও প্রযুক্তি
অ্যাপল বয়কটের ঘোষণা দিচ্ছে চীনারা
কাগজ ডেস্ক :
Published : Monday, 20 May, 2019 at 7:44 PM
অ্যাপল বয়কটের ঘোষণা দিচ্ছে চীনারাচীনারা এখন অ্যাপলকে বয়কট করবে বলে সিদ্ধান্ত নিচ্ছে। দেশটির অনেক নাগরিক ইতোমধ্যে তাদের সিদ্ধান্তের কথা জানাতে শুরু করেছে সামাজিক মাধ্যমে।সম্প্রতি শুরু হওয়া যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের মধ্যে বাণিজ্য যুদ্ধ চলার মধ্যেই এমন ঘোষণা দেওয়া শুরু করেছেন অনেকে চীনা আইফোন ব্যবহারকারী।
তারওপর নতুন করে রোরবার রাতে মার্কিন জায়ান্ট গুগল হুয়াওয়ের সঙ্গে চুক্তি বাতিলের ঘোষণা দিয়ে বসেছে।এরপর থেকে আরও বেশি পরিমাণে চীনা নাগরিক আইফোনসহ অ্যাপলের পণ্য বয়কটের ঘোষণা দিতে শুরু করেছে।
ইতোমধ্যে এমন ঘোষণা ছড়িয়ে পড়েছে দেশটির সামাজিক মাধ্যম সাইট উইবোতে।এক ব্যক্তি লিখেছেন, আমি চেয়েছিলাম এরপর স্মার্টফোন হিসেবে অ্যাপলের আইফোন কিনবো। কিন্তু যুক্তরাষ্ট্রের এই অবস্থা চীনের পক্ষে মেনে নেওয়া সম্ভব নয়। আমি অ্যাপলকে বয়কট করছি।বেশ কয়েক মাস আগে থেকেই বাণিজ্য ক্ষেত্রে যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের মধ্যে যুদ্ধাবস্থা বিরাজ করছে।
বিশেষ করে হুয়াওয়েকে কেন্দ্র করে এই বাণিজ্য যুদ্ধ শুরু হয়।যুক্তরাষ্ট্র অভিযোগ তুলে, হুয়াওয়ের ডিভাইস যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তার জন্য হুমকী। এসব ডিভাইসের মাধ্যমে নজরদারী ও তথ্য হাতিয়ে নেবার কাজ করছে চীন। কিন্তু বরাবরই চীন এবং হুয়াওয়ে কর্তৃপক্ষ বিষয়টি অস্বীকার করে এসেছে।যুক্তরাষ্ট্র যখন বিষয়টি নিয়ে কঠোর অবস্থান নিয়েছে।
গত বুধবার এক বৈঠকে দেশটির প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প হুয়াওয়েকে এমন এক তালিকাভুক্ত করেছে, যেখানে কেউ এখন হুয়াওয়ের সঙ্গে ব্যবসা করতে গেলে আলাদা লাইসেন্স নিতে হবে মার্কিন সরকারের কাছ থেকে। এর পরই মার্কিন জায়ান্ট গুগল হুয়াওয়ের সঙ্গে বাণিজ্য চুক্তি বাতিল করেছে।এখন আর হুয়াওয়ের নতুন ফোনে গুগলের প্লে স্টোর, জিমেইল, ম্যাপ, ক্রোম ব্রাউজারের মতো সেবা ব্যবহার করতে পারবে না।
এমন ঘোষণার পর উইবোতে চীনারা একাট্টা হওয়া শুরু করেছে।চীনের এক নাগরিক উইবোতে লিখেছেন, হুয়াওয়ে যে অবস্থান ধরে রেখেছে সেটা প্রসংশার দাবিদার। এমন কৌশলেই থাকা উচিত। আমরা বরং অ্যাপলকে ছাড়বো।এদিকে চীন সরকারের তরফ থেকে বলা হয়েছে, হুয়াওয়ের বিরুদ্ধে যে অভিযোগ করেছে যুক্তরাষ্ট্র তা তাদের সরকারের তরফ থেকে করা হচ্ছে না।
যা একান্তই দেশটির প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিষয়, যা সরকারিভাবে চাপিয়ে দেওয়া হচ্ছে।আরেক নাগরিক উইবোতে পোস্ট করেছেন, আমরা এখন চাইলেও অ্যাপলের বিকল্প হিসেবে অন্য ফোন ব্যবহার করতেই পারি। অ্যাপলই সেরা ফোন এমন কোন কথা নয়।
এখন তাদের চেয়ে গুণে মানে আরও ভালো ফোন তৈরি হচ্ছে চীনেই।গুগলের হুয়াওয়ের সঙ্গে চুক্তি থেকে সরে যাওয়ার ফলে চীন-যুক্তরাষ্ট্র বাণিজ্য যুদ্ধ নতুন একটা মাত্রায় পৌঁছাবে বলে ধারণা করছেন বিশ্লেষকরা।
তাদের মতে, হুয়াওয়ে এখন পশ্চিমা বাজারে তাদের অবস্থান হারাতে পারে। কারণ, গুগলের এসব সেবা ছাড়া অনেকেই ফোন কিনতে চাইবেন না।চীনারা অ্যাপল পণ্য বয়কট করে যুক্তরাষ্ট্রকে কতটা চাপে ফেলতে পারবে সেটা বলা মুশকিল।
কারণ, যুক্তরাষ্ট্রে যদি হুয়াওয়ে ব্যবসা করতে না পারে তবে স্বাভাবিক ভাবেই অ্যাপল সেখানে বড় বাজার দখল করবে। সেটা প্রকারন্তরে অ্যাপলের জন্য ইতিবাচক হবে বলেও মনে করছেন বিশ্লেষকরা।



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft