বৃহস্পতিবার, ০১ অক্টোবর, ২০২০
সারাদেশ
ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে কাজ ধীর গতি
ইদ যাত্রায় চরম ভোগান্তির মুখোমুখি হওয়ার সম্ভাবনা
টাঙ্গাইল জেলা প্রতিনিধি :
Published : Tuesday, 21 May, 2019 at 8:17 PM
ইদ যাত্রায় চরম ভোগান্তির মুখোমুখি হওয়ার সম্ভাবনা ঢাকা-টাঙ্গাইল বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়ক ছয় লেনের উন্নতি করণের কাজ ধীর গতিতে চলায় এবারের ইদ যাত্রায় চরম ভোগান্তির মুখোমুখি হওয়ার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে।
এই মহাসড়কের চন্দ্রা হতে এলেঙ্গা পর্যন্ত সড়কে নির্মাণাধীন ১১টি আন্ডার পাসের মধ্যে মাত্র ৩টি খুলে দেওয়া হয়েছে। সেগুলো হচ্ছে ঘারিন্দা আন্ডার পাস, দেওহাটা আন্ডার পাস ও কালিয়াকৈর অংশে কালিয়াকৈর আন্ডার পাস। বাকি ৮টি আন্ডার পাসের নির্মাণ কাজ চলায়, সড়কের এই অংশে ইদের সময় যানজট তৈরি হবার সম্ভাবনা সবচেয়ে বেশি।
সড়কের এই অংশগুলোতে রাস্তা ভাঙ্গাচোরা এবং খানাখন্দে ভরা থাকায় যান চলাচল করছে অত্যন্ত ধীর গতিতে।
তবে ধীর গতির ও ছোট যানবাহন চলাচলের জন্য মহাসড়ক ঘেষেই তৈরি হচ্ছে আরও দুটি লেন। এই ধীর গতির যান চলাচলের সড়ক তৈরির জন্য জমি অধিগ্রহণে জটিলতা ও এ সব অধিগ্রহণকৃত জমিতে পিডিবির ইলেট্রিক পিলার সরানোর কাজ ধীর গতির কারণে সড়ক উন্নয়নের কাজ চলছে খুবই ধীর গতিতে। ফলে এ বছরের ডিসেম্বরের মধ্যে এই মহাসড়ক ৬ লেনে উন্নিতকরণের কাজ শেষ হবার চুক্তি থাকলেও তা সম্ভব হবে না বলেই ধারণা করছে সড়ক নির্মাণ সংশিষ্ট ব্যক্তিরা।
এবার ঈদে ঘরমুখো মানুষকে ভোগান্তিতে পড়তে হতে পারে বলে আশংঙ্কা করছে এই সড়ক ব্যবহারকারী যাত্রীগণ।
সোহাগ পরিবহণের চালকের সহকারী মোঃ আমির বলেন, এই ঈদে যানজট তৈরি হবার সম্ভবনা আছে। কারণ এখন পর্যন্ত ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক নির্মাণ কাজ সম্পূরর্ণ শেষ হয় নি।
এ সড়কে প্রতিদিন ব্যবসার কারণে চলাচলকারী প্রাইভেট কার চালক সিরাজগঞ্জের উজ্জল কুমার সরকার বলেন, আমি প্রতিদিন এই সড়কে যাতায়াত করি। বিশেষ করে এখনই সন্ধ্যার পরে যান জট তৈরি হচ্ছে। ঈদে যদি বিশেষ ব্যবস্থা নেওয়া না হয়, তাহলে যাত্রীদের এবার ঈদে ভোগান্তি হবে এটা এখনই বলা যায়।
টাঙ্গাইলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ শফিকুল ইসলাম বলেন, এবার ঈদে ঘরমুখো যাত্রীদের নিরাপদে ফিরতে টাঙ্গাইল জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে ৬০০ পুলিশ ও আনসার মহাসড়কের বিভিন্ন পয়েন্টে মোতায়েন থাকবে। এছাড়া র‌্যাব ও পুলিশের বেশ কয়েকটি ভ্রাম্যমাণ টহল দল থাকবে। এরা যাত্রীদের নিরাপত্তা দেওয়ার সাথে সাথে যানজট নিরসনেও কাজ করবে। আশা করি এবার ঈদে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের টাঙ্গাইল অংশে কোন ধরনের যানজট তৈরি হবে না।
টাঙ্গাইল সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মোহাম্মদ আমিমুল এহ্সান বলেন, ধীর গতির যান চলাচলের সড়ক তৈরির ভূমি অধিগ্রহণে জটিলতা ও অধিগ্রহণকৃত জমিতে পিডিবি’র ইলেট্রটিক পিলার সরানোর কাজ দেরি হওয়ায় আমাদের কাজের গতিও বাড়াতে পারছি না। ইতোমধ্যে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে নির্মানাধীন ১১টি আন্ডার পাসের মধ্যে ঘারিন্দা, দেওহাটা ও কালিয়াকৈর আন্ডার পাস যান চলাচলের জন্য খুলে দেওয়া হয়েছে। বাকিগুলো খুব দ্রুত খুলে দেওয়া হবে। আশা করি, এই ঈদে সড়কের কারণে যানজট তৈরি হবে না।



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft