শুক্রবার, ২১ জুন, ২০১৯
আক্কেল চাচার চিঠি (আঞ্চলিক ভাষায় লেখা)
টাউট ছাড়া বিকাশের পিন কেউ চায় না
Published : Wednesday, 22 May, 2019 at 6:13 AM
হ্যালো, আমি নাহিদ, বিকাশতে কচ্চি। আপনার অ্যাকাউন্টে এট্টু ঝামেলী হয়েচে। সমিস্যাডা মিটগুট না কল্লি একাউন্টডা এক্কনি পাজায় দিয়া হবে। কিন্তুক যদি ঠিক ঠিক তথ্য দিতি পারেন তালি একাউন্টডা চালু করা সম্ভব হবে। আপনার ভুটার কাডে যে নাম আচে সিডা কন, বাপের নাম, মা’র নাম, বউ’র নাম কন। ভুটার কাডের নম্বর কন। ইবার দেকেন আপনার মুবালি এট্টা ম্যাসেজ গেচে সিডা দেকেন। এই বার আপনার একাউন্টডার পিন নম্বর কন। পিন নম্বর ঝোকের মাতায় কওয়া হইয়ে গেলি কবে কয় মিনিট মুবালডা এট্টু বন্দ কইরে রাকেন। যকন খুলতি কব তকন খোলবেন। তাগের কতামত পিন নম্বর দিলি আর মুবাল বন্দ কইরে থুয়ার পর কেউ আর খুলতি কয় না। আপন ইচ্চেয় যকন মুবাল খুলা হয় তকন দেকা যায় মুবালি থাকা বিকাশের সব টাকা চুয়া কইরে নিয়ে চইলে গেচে। পিরায় সুমায়ই কিচু টাউট বাটপার এই খাইন বাদায়ে সহজ সরল মানসির টাকা হাতায় নেচ্চে। টাকা খ্যায় হইয়ে যাওয়ার পর বিকাশ অপিস, থানা পুলিশ ইডা সিডা কইরে আর কোন ফল বারোয় না। বিকাশের কম্মকত্তা টাকা উদ্দার কইরে দিতি না পাল্লিও এট্টা কতা কইয়ে দায় এড়ায় যান, একনতে সাবদানে থাকপেন। ব্যস এই সাবদানই বিকাশের এক মাত্তর রক্কে কবজ। এই টুক কতা কইয়ে দিয়েই দায় এড়ায় যাওয়া কি উচিত ? আমি মুক্কু সুক্কু মানুস জ্ঞানের বহর খাটো। এট্টা জিনুস বুজি আসে না আমাগের চারপাশে কত খুন খারাবী মারামারিসহ হক না হক কত অপরাধ হচ্চে। কিন্তুক কেউ যদি থানায় বা আদালতে নালিশ দিতি গেলি যেদি তারাও কইয়ে দেন সাবদানে থাকপেন তালি বিষয়ডা কিরাম হবে? কুম্পানী যারা চালাচ্চে শুনিচি মিনিটি কোটি কোটি টাকা লাভ কত্তেচে তাগের কি কোন দায় দায়িত্ত নেই ? একন এট্টা একাউন্ট খুলতি গেলি কত তাল বায়না। ছবি, ভুটার কাড, মুবাল নম্বর,  যে খোলবে তার আউয়াল আখের জাইনে নিয়ে ফরম পূরণ কত্তি হয়। সেই পূরন করা ফরম বিকাশের এজেন্টের কাচেত্তে খুইটে কুইড়োয় নিয়ে যায় লাইন সুপারভাইজাররা। তারা নিয়ে যাইয়ে জমা ফেলে টেরিটরি অপিসি। সানতে টেরিটরি ম্যানেজার চেক চাক কইরে কম্পুটারের চুতা কইরে পাটায় দেয় হেড অপিসি। স্যানতে আবার চেকচাক কইরে তিনদিন পর সেই একাউন্ট চালু হয়। খুলার সুমায় এতো ফজল্লি করা হয় কিন্তু যে নম্বর দিয়ে মুবাল কইরে বাটপারি করা হয়, টাকা খ্যায় হওয়ার পর কেন সেই নম্বরের সব তথ্য কম্পুটাত্তে বাইরো করা যাবে না ? কেন মুবাল ট্যাকিং কইরে কোন টাওয়ারের মদ্দিত্তে এই খাইন বাদালো তা সিনাক্ত করা যাবে না ? কোন ভুটার কাড দিয়ে ঐ একাউন্ট খুলা হইলো সিডা তলাশ করা যাবে না ? একন ডিজিটাল দেশ তত্য পোযুক্তি দিনকে দিন কতো আগোয় যাচ্চে শুদু পাচোয় থাকে বিকাশের টাকা বাটপারে টাইনে নিলি। পোতিকার চাতি গেলি মুকস্ত বুলি সাবদান হন। কুটিকালে ইশকুলির বইতি দেকতাম বড় পোশ্নের ছোট উত্তর ‘ নিজি চিস্টা করো’। সেই নিজির চিস্টাত্তে যারা পেত্তেকদিন আমার এই কুচো লিকা কষ্ট কইরে পড়েন তাগের কচ্চি, যারা মুবাল কইরে পিন নম্বর জানতি চায় তারা স¹লি টাউট বাটপার। যতই একাউন্ট বন্দ কইরে দিয়ার ভয় দেকাক পিন নম্বর জানতি চালি হয় গালাগালি দিয়ে না হয় মুবালির লাইনডা চুড়–ত কইরে কাইটে দেবেন। সব মুশকিল আছান।




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft