রবিবার, ২০ অক্টোবর, ২০১৯
সম্পাদকীয়
৩২ দফা পদক্ষেপ কি ঈদযাত্রা সহজ করতে পারবে?
Published : Friday, 24 May, 2019 at 6:17 AM
প্রতিবছর ঈদযাত্রায় জনগণের ভোগান্তি নতুন কিছু নয়। পরিবহন সংকট, ভাঙাচোরা রাস্তা, সড়ক দুর্ঘটনা ও দীর্ঘ যানজটের মতো নানা ঘটনার কারণে বছর বছর ভোগান্তিতে পড়ছে জনগণ। প্রশাসন ও দায়িত্বশীলদের পক্ষ থেকে আশ্বাস দেয়া হলেও অবস্থার পরিবর্তন খুব একটা হচ্ছে না।
এই পরিস্থিতি মোকাবেলায় সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় ৩২ দফা পদক্ষেপ নিতে যাচ্ছে এবছর ঈদযাত্রাকে সামনে রেখে। গত ৯ মে মন্ত্রণালয়ের সভায় ওই ৩২ দফা নির্ধারণ করা হয়েছে।
৩২ দফার পদক্ষেপগুলোর মধ্যে রয়েছে- মহাসড়ক রক্ষণাবেক্ষণ ও মেরামত, জাতীয় ও আঞ্চলিক মহাসড়কগুলো যানজট মুক্ত রাখা, টার্মিনালগুলোয় শৃঙ্খলা রক্ষায় ভিজিলেন্স টিম গঠন করা, দুর্ঘটনার পর সড়কে যানজট নিয়ন্ত্রণ, সড়কে অস্থায়ী বা ভাসমান বাজার অপসারণ, মহাসড়কের অপব্যবহার বন্ধ করা, বিকল্প সড়ক ব্যবহার, যত্রতত্র গাড়ি পার্কিং বন্ধ করা, নসিমন-করিমন, ইজিবাইক, থ্রি-হুইলার বন্ধ করা, টোল প্লাজার সব বুথ খোলা রাখা, ২২টি জাতীয় মহাসড়কে থ্রি-হুইলার বন্ধ রাখা, বিআরটিসির স্পেশাল সার্ভিস চালু করা, ফেরির সংখ্যা বৃদ্ধি, দুর্ঘটনাকবলিত গাড়ি দ্রুত অপসারণের জন্য রেকার ও ক্রেন প্রস্তুত রাখা, বড় ধরনের দুর্ঘটনা মোকাবিলায় হেলিকপ্টার ব্যবহার করা, অনভিজ্ঞ চালক দিয়ে মহাসড়কে গাড়ি না চালানো, কেন্দ্রীয় কন্ট্রোল রুম চালু করা, এবং শিল্প কারখানার পণ্যবাহী ট্রাক ও কাভার্ডভ্যান মহাসড়কে পার্কিং করে লোড-অনলোড না করা।
এ ধরণের পদক্ষেপ আসলে প্রতিবছরই নেয়া হয়ে থাকে, তারপরেও কেনো মহাসড়কে যানজট ও জনভোগান্তি কমছে না। এসব পরিকল্পনার মুখে এবারে রমজানের শুরু থেকেই ঢাকা-চট্টগ্রাম এবং ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে যানজটের খবর আসছে। সেইসঙ্গে চলছে চার-লেন সড়ক তৈরির কাজ নয়তো নিয়মিত সংস্কার কাজ। এই অবস্থা থেকে মুক্তি পেতে দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা নেয়া প্রয়োজন বলে আমরা মনে করি।
সড়ক মহাসড়কের পাশে মৌসুমি বাসস্টপেজ থেকে শুরু করে ঈদযাত্রায় টাউনসার্ভিস বাসগুলো দূরপাল্লার বাসে রুপান্তরের প্রক্রিয়া ভোগান্তি বাড়াচ্ছে। সেইসঙ্গে সড়ক দুর্ঘটনা ও টিকিটের বাড়তি দামের কারণে মানুষের আনন্দযাত্রা ভোগান্তির উৎসবে রূপ নেয়।
সড় পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সিঙ্গাপুরে চিকিৎসা শেষে বর্তমানে দেশে ফিরে কাজে যোগ দিয়েছেন। তিনিসহ বিভিন্ন দায়িত্বশীল কর্তৃপক্ষ ঈদযাত্রা সহজ ও নিরাপদ করতে কাজ করে যাচ্ছেন। ঈদের আগে সড়ক যেন কোনোরকম হাট-বাজার বসতে না পারে সেজন্য মাঠ পর্যায়ে চিঠি দেয়া হয়েছে।
এছাড়াও টিকিট বিক্রির পর থেকেই বাস টার্মিনালগুলোতে যাত্রীদের ভোগান্তি কমাতে সড় পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় ভিজিলেন্স টিম থাকবে বলে গণমাধ্যমে প্রকাশ। বিষয়গুলো ইতিবাচক। আমাদের আশাবাদ, সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টায় সবার ঈদযাত্রা নিরাপদ হবে।



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft