রবিবার, ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৯
শিক্ষা বার্তা
একাদশে ভর্তি
আবেদন করেনি আড়াই লাখ শিক্ষার্থী
যশোর বোর্ডে ১২২৯৪ জন, আবেদন না করাদের ঝরে পড়ার আশংকা
এম.আইউব :
Published : Saturday, 25 May, 2019 at 6:20 AM
আবেদন করেনি আড়াই লাখ শিক্ষার্থীকলেজে ভর্তি হতে সারাদেশে এখনও পর্যন্ত ২ লাখ ৪২ হাজার ৪২ জন শিক্ষার্থী এখনও পর্যন্ত কোনো আবেদনই করেনি। এদের মধ্যে যশোর শিক্ষাবোর্ডে রয়েছে ১২ হাজার ২শ’ ৯৪ জন। যারা আবেদন করেনি তাদের মধ্যে বেশিরভাগ ঝরে পড়ার আশংকা করছেন শিক্ষাবোর্ড সংশ্লিষ্টরা। এর বাইরে কিছু শিক্ষার্থী ভর্তির দ্বিতীয় এবং তৃতীয় ধাপে আবেদন করতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এটি রীতিমত চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়াচ্ছে। যশোর শিক্ষাবোর্ডের আওতাধীন ১০ জেলায় মোট ৫শ’ ৮৬ টি এইচএসসি পড়ার উপযোগী কলেজ রয়েছে। এসব কলেজে মোট আসন রয়েছে ২ লাখ ৯৬ হাজার। এ বছর এসএসসি পরীক্ষায় এই বোর্ড থেকে মোট ১ লাখ ৬৫ হাজার ৬শ’ ৮৮ জন পরীক্ষার্থী পাস করেছে। এদের মধ্যে এইচএসসিতে ভর্তির জন্যে এ পর্যন্ত আবেদন করেছে ১ লাখ ৫৩ হাজার ৩শ’ ৯৪ জন। এর বাইরে এখনও পর্যন্ত আবেদন করেনি ১২ হাজার ২শ’ ৯৪ জন। এসব পরীক্ষার্থীর সবাই যদি ভর্তিও হতো তারপরও যশোর বোর্ডে ১ লাখ ৩০ হাজার আসন ফাঁকা থাকবে বলে বোর্ড কর্মকর্তারা বলছেন। কিন্তু শেষ অবধি এই ফাঁকা আসনের সংখ্যা আরো বৃদ্ধি পাবে বলে আশংকা করা হচ্ছে। কারণ যে ১২ হাজার শিক্ষার্থী এখনও আবেদনই করেনি তাদের মধ্যে শেষ পর্যন্ত কতজন আবেদন করে সেটিই এখন দেখার বিষয়। যশোর শিক্ষাবোর্র্ড থেকে পাওয়া তথ্যে জানাগেছে, এ বছর এসএসসি পরীক্ষায় মোট ১ লাখ ৮২ হাজার ৩শ’ ১০ জন পরীক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নেয়। এরমধ্যে বিজ্ঞান বিভাগে ছিল ৪২ হাজার ৬শ’ ১৬ জন, মানবিক বিভাগে ১ লাখ ৬ হাজার ৩শ’ ৫৫ জন ও ব্যবসা শিক্ষা বিভাগে ৩৩ হাজার ৩শ’ ৩৯ জন। এদের মধ্যে বিজ্ঞান বিভাগে ২২ হাজার ৯শ’ ১৮ জন ছাত্র, ১৮ হাজার ৩শ’ ৪২ জন ছাত্রী, মানবিক বিভাগ থেকে ৪১ হাজার ৮৪ জন ছাত্র ও ৫২ হাজার ১শ’ ৮৯ জন ছাত্রী এবং ব্যবসায় শিক্ষা থেকে ১৭ হাজার ৬শ’ ৩৫ জন ছাত্র ও ১৩ হাজার ৫শ’ ২০ জন ছাত্রী পাস করেছে। এ বছর জিপিএ-৫ পেয়েছে সর্বমোট ৯ হাজার ৯শ’ ৪৮জন। এরমধ্যে বিজ্ঞান বিভাগে রয়েছে ৯ হাজার ১শ’ ৯৭ জন, মানবিক বিভাগে ৪শ’ ১৮ জন ও ব্যবসা শিক্ষা বিভাগে ৩শ’ ৩৩ জন। বিজ্ঞান বিভাগে ছেলে ৪ হাজার ৭শ’ ৮৬ জন ও মেয়ে ৪ হাজার ৪শ’ ১১ জন, মানবিক বিভাগে ছেলে ৬৪ জন ও মেয়ে ৩শ’ ৫৪ জন এবং ব্যবসা শিক্ষা বিভাগে ছেলে ১শ’ ১৩ জন ও মেয়ে ২শ’ ২০জন জিপিএ-৫ পেয়েছে।
যশোর শিক্ষাবোর্ডে জিপিএ-৪ থেকে ৫ এর মধ্যে পেয়েছে ৪১ হাজার ৯শ’ ৪০ জন। এদের মধ্যে বিজ্ঞান বিভাগে ছেলে রয়েছে ১২ হাজার ১শ’ ও মেয়ে রয়েছে ১০ হাজার ৪শ’ ৩৩ জন, মানবিক বিভাগে ছেলে রয়েছে ৩ হাজার ১শ’ ৩২ ও মেয়ে ১০ হাজার ৪শ’ ৩৩ জন এবং ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগে ছেলে ৩ হাজার ৫শ’ ১৮ জন ও মেয়ে ৪ হাজার ২শ’ ৯২ জন।
জিপিএ-৩.৫ থেকে ৪ পেয়েছে মোট ৪০ হাজার ১শ’ ১জন। এরমধ্যে বিজ্ঞান বিভাগে ছেলে ৪ হাজার ৩শ’ ৭৯ জন ও মেয়ে ২ হাজার ৭শ’ ৫৮ জন, মানবিক বিভাগে ছেলে ৮ হাজার ৫শ’ ২৮ জন ও মেয়ে ১৪ হাজার ৮শ’ ৩৭ জন এবং ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগে ছেলে ৫ হাজার ২শ’ ৫৯ জন এবং মেয়ে ৪ হাজার ৩শ’ ৪০ জন রয়েছে।
জিপিএ-৩ থেকে ৩.৫ পেয়েছে ৩৯ হাজার ৮শ’ ২০ জন। এরমধ্যে বিজ্ঞান বিভাগে ছেলে ১ হাজার ৪শ’ ৪৯ জন ও মেয়ে ৬শ’ ৬৩ জন, মানবিক বিভাগে ছেলে ১৩ হাজার ৩শ’ ৬৮ জন ও মেয়ে ১৬ হাজার ৩শ’ ৯৬ জন এবং ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগে ছেলে ৪ হাজার ৯শ’ ৪২ জন ও মেয়ে রয়েছে ৩ হাজার ২ জন।
জিপিএ-২ থেকে ৩ পেয়েছে মোট ৩৩ হাজার ২শ’ ৯৪ জন। এরমধ্যে বিজ্ঞান বিভাগে ছেলে রয়েছে ২শ’ ৪ জন ও মেয়ে রয়েছে ৭৭ জন, মানবিক বিভাগে ছেলে রয়েছে ১৫ হাজার ৬শ’ ৩০ জন ও মেয়ে রয়েছে ১১ হাজার ৯শ’ ৬১ জন এবং ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগে ছেলে রয়েছে ১ হাজার ৬শ’ ৬২ জন ও মেয়ে রয়েছে ১৯ হাজার ৫শ’ ৯৪জন।
এ ছাড়া, জিপিএ-১ থেকে ২ এর মধ্যে পেয়েছে ৫শ’ ৮৫ জন। এরমধ্যে মানবিক বিভাগে ছেলে ৩শ’ ৬২ জন ও মেয়ে ১শ’ ৭৬ জন, ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগে ছেলে ছেলে ৪৩ জন ও মেয়ে ৪ জন রয়েছে।  
সূত্র জানিয়েছে, এবার তিন ধাপে এইচএসসি ভর্তি শুরু হবে। প্রথম ধাপে ১২ থেকে ২৫ মে অনলাইনে ভর্তির আবেদন গ্রহণ। ২৪ থেকে ২৬ মে আবেদন যাচাই ও আপত্তি নিষ্পত্তি। ৩ থেকে ৪ জুন শুধুমাত্র পুণঃনিরীক্ষণের ফলাফল পরিবর্তিত শিক্ষার্থীদের আবেদন গ্রহণ এবং ৫ জুন পছন্দক্রম পরিবর্তন। প্রথম পর্যায়ে আবেদনকারী শিক্ষার্থীদের ফল প্রকাশ হবে ১০ জুন। এ ছাড়া, ১১ থেকে ১৮ জুন শিক্ষার্থীদের সিলেকশন দেয়া হবে। পছন্দক্রম অনুযায়ী মাইগ্রেশন ও দ্বিতীয় পর্যায়ের ফল প্রকাশ হবে ২১ জুন। দ্বিতীয় পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের সিলেকশন দেয়া হবে ২২ ও ২৩ জুন। সর্বশেষ তৃতীয় পর্যায়ের আবেদন গ্রহণ করা হবে ২৪ জুন। দ্বিতীয় পর্যায়ের মাইগ্রেশন ও তৃতীয় পর্যায়ের আবেদনের ফল প্রকাশ হবে ২৫ জুন। তৃতীয় পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের সিলেকশন দেয়া হবে ২৬ জুন। ভর্তি ২৭ থেকে ৩০ জুন পর্যন্ত এবং ক্লাস শুরু হবে পহেলা জুলাই।
যশোর শিক্ষাবোর্ডের কলেজ পরিদর্শক কেএম রব্বানী বলেন, যেহেতু, প্রয়োজনের তুলনায় আসন সংখ্যা অনেক বেশি রয়েছে এ কারণে এইচএসসি ভর্তিতে কোনো সংকট তৈরি হবে না। বরং শিক্ষার্থীরা তাদের পছন্দমতো কলেজে ভর্তি হওয়ার সুযোগ পাবে। আসন খালি থাকার বিষয়ে তিনি বলেন, শিক্ষার্থীরা যদি ভর্তির জন্যে আবেদনই না করে সেক্ষেত্রে বোর্ড কর্তৃপক্ষের কিছুই করার থাকবে না।
সারাদেশের পরিসংখ্যানে দেখা গেছে মাধ্যমিকে উত্তীর্ণ হয়েও এবার ২ লাখ ৪২ হাজার ৪২ শিক্ষার্থী একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি হতে এখনও আবেদনই করেনি। এদের মধ্যে ঝরে পড়ার সংখ্যা বেশি থাকবে বলে বোর্ড কর্মকর্তাদের ধারণা।
১২ থেকে ২৩ মে পর্যন্ত সারাদেশে ১৪ লাখ ১৫ হাজার ৮শ’২৫ জন শিক্ষার্থী কলেজে ভর্তি হওয়ার জন্যে আবেদন করেছে।।
মাধ্যমিক ও সমমানের পরীক্ষায় এবার ১৭ লাখ ৪৯ হাজার ১শ’৬৫ শিক্ষার্থী পাস করেছে। এরমধ্যে কারিগরি বোর্ড থেকে পাস করেছেন ৯১ হাজার ২৯৮ জন।
কারিগরি বাদে অন্যান্য বোর্ড থেকে পাস করেছে ১৬ লাখ ৫৭ হাজার ৮শ’৬৭ জন। এদের মধ্যে থেকে কলেজে ভর্তি হতে আবেদন করেছে ১৪ লাখ ১৫ হাজার ৮শ’২৫ জন।
এই হিসেবে এবার এসএসসিতে উত্তীর্ণ হয়েও ২ লাখ ৪২ হাজার ৪২ শিক্ষার্থী একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি হতে এখনও পর্যন্ত আবেদন করেননি।
এ বিষয়ে আন্তঃশিক্ষাবোর্ডের কর্মকর্তা ঢাকা বোর্ডের কলেজ পরিদর্শক অধ্যাপক হারুন-অর-রশিদ বলেন, যারা আবেদন করেননি তাদের অনেকে ঝরে পড়বে। আবার কেউ কেউ দেশের বাইরে পড়তে যাবে। তবে, কলেজে ভর্তি প্রক্রিয়ার দ্বিতীয় ও তৃতীয় পর্যায়ে কিছু শিক্ষার্থী একাদশে ভর্তি হতে আবেদন করবে বলে মনে করেন তিনি।
একজন বোর্ড কর্মকর্তা বলেন, আমাদের অভিজ্ঞতা হলো প্রথম ধাপে যারা আবেদন করে না, তাদের বেশিরভাগই ঝরে পড়ে। দ্বিতীয় ও তৃতীয় পর্যায়ে হাতেগোনা কিছু শিক্ষার্থী কলেজে ভর্তি হতে আবেদন করে।
এবার কলেজে ভর্তি হতে ১০ লাখ ৫২ হাজার ১শ’৮৪ জন অনলাইন এবং ৩ লাখ ৭৪ হাজার ২শ’২২ জন এসএমএসের মাধ্যমে আবেদন করেছেন।
২৪ থেকে ২৬ মের মধ্যে শিক্ষার্থীদের আবেদন যাচাই-বাছাই ও আপত্তি নিষ্পত্তি করা হবে। পুনঃনিরীক্ষণে যাদের ফল পরিবর্তন হবে তারা ৩ থেকে ৪ জুন পর্যন্ত আবেদন করতে পারবেন। পছন্দক্রম পরিবর্তন করা যাবে ৫ জুন।
এবার ঢাকা বোর্ডে ৩ লাখ ৯৯ হাজার ১শ’ ৯৫ জন, রাজশাহীর ১ লাখ ৮৮ হাজার ৫শ’৮২ জন, চট্টগ্রামের ১ লাখ ২২ হাজার ৩৬ জন, কুমিল্লার ১ লাখ ৫৬ হাজার ৯শ’৪৫ জন, বরিশালের ৭৭ হাজার ৪শ’২০ জন, সিলেটের ৮০ হাজার ১শ’৬২ জন, দিনাজপুরের ১ লাখ ৪৭ হাজার ৯শ’৭৮ জন, ময়মনসিংহের ৯৬ হাজার ৫শ’৪৩ জন এবং মাদ্রাসা বোর্ডের ১ লাখ ২৮ হাজার ৮শ’১৮ শিক্ষার্থী কলেজে ভর্তি হতে আবেদন করেছে।
এবারও সর্বনিম্ন ৫টি এবং সর্বোচ্চ ১০টি কলেজে আবেদন করতে পেরেছেন শিক্ষার্থীরা। শিক্ষার্থীর মেধা ও পছন্দক্রমের ভিত্তিতে একটি কলেজে তার অবস্থান নির্ধারণ করে দেয়া হবে।
১৪ লাখ ১৫ হাজার ৮২৫ জন শিক্ষার্থীর কাছ থেকে ৬২ লাখ ৪৯ হাজার ৮৬টি আবেদন জমা পড়েছে। এরমধ্যে অনলাইনে ৫৮ লাখ ৬২ হাজার ৯৫টি এবং এসএমএসের মাধ্যমে ৩ লাখ ৮৬ হাজার ৯৫১টি আবেদন করেন শিক্ষার্থীরা।




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft