বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
জাতীয়
খোশ আমদেদ মাহে রমজান
মাওলানা মুহাদ্দিস শাফিউর রহমান :
Published : Saturday, 25 May, 2019 at 8:32 PM
খোশ আমদেদ মাহে রমজানমাহে রমজানের আরো একটি অধ্যায় আজ আমরা শেষ করছি। আর এ অধ্যায়টি হলো মাগফিরাত বা ক্ষমা। একটির পর একটি অধ্যায় বা পর্ব আমরা শেষ করছি বটে কিন্তু আমরা কি এ পর্বের মুল মহিমা আমাদের জীবনে গ্রহন করতে পারছি? রোজার যে মহিমা ছিল আল্লাহর প্রেম বা আল্লাহর ভয় তা আসলে আমাদের জীবনে এখনো আসেনি। রোজা রেখেই আমরা রোজার নিষিদ্ধ সব কাজ করে যাচ্ছি। যেন কোন চেতনায় আমাদের নেই।রোজা পালন যে শুধু পানাহার ত্যাগ নয় তা আসলে আমরা যেন বুঝতেই চাই না। আমরা মনে করি শুধু খাদ্যও পানীয় ত্যাগ করার নামই রোজা। কিন্তু আল্লাহর রাসুলের সেই সাবধান বাণী আমাদের মনে থাকে না। আল্লাহর রাসুলের সেই বাণী আমাদের বেশী করে মনে রাখতে হবে তা হলো,‘অনেক রোজাদার আছে যার খাদ্য ও পানীয় ত্যাগ  শুধু উপোষ করা হয় কিন্তু রোজা হয় না। হযরত কা’ব ইবনে উজরাহ (রা:) হতে বর্ণিত আছে,একদা মহানবী (স:) বললেন,তোমারা মিম্বরের কাছে এস্ োআমরা হাযির হলাম । অতপর রাসুল (স:) মিম্বরের প্রথম সিঁড়িতে আরোহন করলেন,এবং বললেন আমীন! এরপর দ্বিতীয় সিঁড়িতে আরোহন করে বললেন আমীন! আবার তিনি তৃতীয় সিঁড়িতে আরোহন করে বললেন,আমীন! খুতবা শেষে রাসুলুলাহ নেমে আসলে আমরা আরজ করলাম ইয়া রাসুলুলাহ আমরা আপনার কাছ থেকে এমন খুতবা তো ইতোপূর্বে আর শুনিনি। তখন রাসুল (স:) বলেন, এইমাত্র জীব্রাঈল (আ:) এসেছেন। আমি যখন মিম্বরের প্রথম সিঁড়িতে আরোহন করি তখন ুতিনি বললেন ধংস হোক ঐ ব্যক্তি যে রমজান মাসের মত একটি মাস পেল অথচ সে নিজের গোনাহ আল্লাহর কাছ মাফ করিয়ে নিতে পারলো না।হযরত জীব্রাঈল (আ:) এর উক্ত ঘোষনার সাথে একমত হয়ে আমি বললাম আমীন! আজ মাগরীবের পর থেকে ই’তেকাফ শুরু হবে। ই’তেকাফ শব্দের অর্থ হলোÑ অবস্থান করা। ইসলামী শরিয়তে ই’তেকাফ বলা হয় পুরুষের জন্য নিয়তসহ এমন মসজিদে অবস্থান করা যেখানে পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ জামাআতে অনুষ্ঠিত হয়। আর মহিলাদের জন্য ই’তেকাফ হলোÑ নিয়তসহ ঘরের ভিতর নামাজের জন্য নির্দিষ্ট কোন স্থানে অবস্থান করা। ই’তেকাফ তিন প্রকারÑ ওয়াজিব, সুন্নাতে মুয়াক্কাদা, মুস্তাহাব।  ই’তিকাফের সময় সাওয়াবের কথাবার্তা ছাড়া অপ্রয়োজনীয় কথাবার্তা না বলা উত্তম।  ই’তেকাফ অবস্থান কুরআন তিলাওয়াত করা, হাদীস পাঠ করা, ইলম শিক্ষাকরা ও শিক্ষা দেওয়া রাসূল (সা) ও অন্যান্য নবীর সিরাত পাঠ করা ও ধর্মীয় গ্রন্থাদি মসজিদে বসে পড়া ও লেখা উত্তম কাজ। ই’তেকাফকারী ব্যক্তি আল্লাহর নৈকট্য লাভের জন্য সম্পূর্ণ রূপে নিজেকে আল্লাহর ইবাদাতে নিয়োজিত রাখবে এবং দুনিয়াদারি কাজ কর্ম থেকে দুরে থাকবে। তবে মনে রাখতে হবে যে, শুধু চুপ থাকাকে ইবাদাত মনে করে চুপ থাকলে ই’তিকাফ মাকরুহ হবে।   আজ মাগফিরাতের শেষ দিনে তাই আমাদের আতœযাচাই এর দিন। আজ আমরা নিজেদেরকে নিজেরাই প্রশ্ন করে দেখবো যে, গোনাহ মাফের বা মাগফিরাতের অধ্যায় তো আজ শেষ হচ্ছে কিন্তু আসলে কি আমরা আমাদের গোনাহ আল্লাহর কাছ থেকে মাফ করিয়ে নিতে পেরেছি? গোনাহ মাফ হয়ে যাবে এমন রোজা আমি কি আদায় করতে পারছি? আর এ জন্য আজকের দিনে আর একটি কাজ আমাদের করতে হবে তা হলো আল্লাহর কাছে রোজার নানাবিধ ত্রুটি-বিচ্যুতির জন্য  বেশীবেশী পরিমান তওবা বা ক্ষমা প্রার্থনা করতে হবে। তাই আসুন রামাযানের এই দিনে আমরা আল্লাহর কালাম অনুশীলন করি এবং রাসূলুলাহ (সা) সুন্নাত সম্পর্কে জ্ঞান লাভ করার চেষ্টা করি যাতে করে আমরা আমাদের সঠিক জীবনকে আল্লাহ ও তাঁর রাসূলের আদর্শের আলোকে সাজিয়ে বর্তমান অশান্ত এ পৃথিবীতে শান্তির সুবাতাস বইয়ে দেয়ার প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে নিজের, পরিবারের, সমাজের  এবং রাষ্ট্রের চেহারা বদলানোর ব্যাপারে কিঞ্চিত সহযোগিতা করতে পারি। আল্লাহ আমাদের আন্তরিক এই প্রচেষ্টার ফল নিশ্চয়ই দিবেন।




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft