শুক্রবার, ২৩ আগস্ট, ২০১৯
জাতীয়
ট্রেন শিডিউল বিপর্যয়, ভোগান্তিতে যাত্রীরা
কাগজ ডেস্ক :
Published : Monday, 3 June, 2019 at 4:21 PM
ট্রেন শিডিউল বিপর্যয়, ভোগান্তিতে যাত্রীরাপ্রিয়জনের সঙ্গে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করার জন্য ঢাকা ছাড়ছেন অনেকে। এ সময় যাত্রীদের চোখে-মুখে বাড়ি ফেরার উচ্ছ্বাস দেখা গেছে।তবে বাড়ি যাওয়ার মানুষের সবচেয়ে পছন্দের বাহন ট্রেন শিডিউল বিপর্যয় যেন কাটিয়ে উঠতে পারছে না।
ঈদযাত্রার চতুর্থ দিন সোমবারও (৩ জুন) বিলম্বিত হয়েছে তিন ট্রেনের যাত্রা। কমলাপুর রেলস্টেশন থেকে আজও পাঁচঘণ্টা বিলম্বে যাত্রা শুরু করেছে তিনদিন ধরে ধারাবাহিক শিডিউল বিপর্যয়ে পড়া চিলাহাটিগামী নীলসাগর এক্সপ্রেস।
ঈদের আগে ট্রেনটিকে আর নির্ধারিত শিডিউলে ফেরানো যাবে না বলে জানিয়েছে, রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। শিডিউল বিপর্যয়ের কারণে প্লাটফর্মে নীল সাগরের যাত্রীদের দীর্ঘ সারি এবং ভোগান্তির চিত্র চোখে পড়ে।
এ অবস্থায় চিলাহাটিগামী নীলসাগর এক্সপ্রেস ট্রেনের অপেক্ষায় প্লাটফর্মে বসে রয়েছেন শত শত যাত্রী।
বিলম্ব করছে সুন্দরবন, নীলসাগর ও রংপুর এক্সপ্রেস। এছাড়া সকাল ৯টা পর্যন্ত মোটামুটি শিডিউল মেনেই ছেড়েছে সবক’টি ট্রেন।যারা গত শনিবার (২৫ মে) ট্রেনের আগাম টিকিট কেটেছিলেন, তারা সোমবার বিভিন্ন গন্তব্যে যাত্রা করছেন। গত কয়েকদিনের তুলনায় সোমবার কমলাপুর রেলস্টেশনে ঘরমুখো মানুষের ভিড় কিছুটা কম।
রেলওয়ের তথ্য অনুযায়ী, সোমবার খুলনাগামী সুন্দরবন এক্সপ্রেস সোয়া ৬টায় কমলাপুর থেকে ছেড়ে যাওয়ার কথা, কিন্তু সেটি ছেড়েছে সোয়া ৮টায়। চিলাহাটীগামী আন্তঃনগর নীলসাগর এক্সপ্রেস সকাল ৮টা ৫ মিনিটে ছেড়ে যাওয়ার কথা থাকলেও সেটি ছেড়ে যাওয়ার সম্ভাব্য সময় দেওয়া হয়েছে সকাল সাড়ে ১১টায়। এছাড়া রংপুর এক্সপ্রেস সকাল ৯টায় কমলাপুর ছেড়ে যাওয়ার কথা থাকলেও সেটি এখনো কমলাপুরে পৌঁছায়নি। এ ট্রেন ছাড়ার সম্ভাব্য সময় নির্ধারণ করা হয়েছে সকাল সোয়া ১০টায়।
এছাড়া ঈদযাত্রার বিভিন্ন গন্তব্যের অন্যান্য ট্রেনগুলো নির্ধারিত সময়ের সামান্য কিছু বিলম্বে ছেড়ে যাচ্ছে। এর কারণ হিসেবে স্টেশন কর্তৃপক্ষ বলছেন, যাত্রী সংখ্যা বেশি এবং বিভিন্ন স্টেশনে বিরতি দেওয়ায় বেশি সময় লাগছে। যে কারণে ট্রেন ঢাকা ফিরতে এবং ঢাকা ছেড়ে যেতে কিছুটা দেরি হচ্ছে। তবে ঈদ যাত্রায় ১১৫ মিনিট থেকে আধঘণ্টা দেরিকে বিলম্ব হিসেবে ধরে না রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ।
কমলাপুর রেলস্টেশনের ম্যানেজার মোহাম্মদ আমিনুল হক বলেন, অন্য যেকোনো বছরের তুলনায় শিডিউল মেনেই সময়মতো ছাড়ছে ট্রেন। এটা রেলওয়ের বড় একটি অর্জন। দু’একটি ট্রেন বিলম্ব করছে, সেগুলো যেন বেশি বিলম্ব না হয়, আমরা কাজ করছি।
তিনি জানান, ৫২টি ট্রেন কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন ছেড়ে যাবে সারাদিনে। উত্তরাঞ্চলের ট্রেনে কিছুটা বিলম্ব হলেও চট্টগ্রাম সিলেট অঞ্চলে ট্রেনে কোনো বিলম্ব হয়নি। সারাদিনে অর্ধ লক্ষেরও বেশি যাত্রী বিভিন্ন ট্রেনে বাড়ির পথে পাড়ি জমাবেন বলে জানান স্টেশন ম্যানেজার। এদিকে, ছাদে ঝুঁকিপূর্ণ ভ্রমণ ঠেকাতে গত কালকের মতো আজও তৎপর রয়েছে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। তারপরও দেখা গেছে পঞ্চগড় এক্সপ্রেস ট্রেনে বহু যাত্রী ছাদে চেপেছেন।




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft