শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
সারাদেশ
ঈদযাত্রায় খাগড়াছড়ি সড়কে স্বস্তিতে আছেন যাত্রীরা
কাগজ ডেস্ক :
Published : Monday, 3 June, 2019 at 4:17 PM
ঈদযাত্রায় খাগড়াছড়ি সড়কে স্বস্তিতে আছেন যাত্রীরাঢাকা-চট্টগ্রামসহ সারা দেশের সঙ্গে খাগড়াছড়ির যোগাযোগ শুধু সড়ক পথে। প্রায় ৪০০ কিলোমিটার সড়কের অধিকাংশই সংস্কার করায় এবার ঈদ যাত্রায় স্বস্তিতে আছেন যাত্রীরা। কারণ নাড়ির টানে বাড়ি ফিরতে তাদের ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে না। এছাড়াও বেইলি ব্রিজের পরিবর্তে নতুন আরসিসি ব্রিজ ও কালভার্ট নির্মাণ কাজ শেষ হওয়ায় ভোগান্তি কমেছে।
জানা গেছে, গত বছর আগাম বর্ষার কারণে খাগড়াছড়ি বিভিন্ন সড়ক ধসে পড়ে। ফলে বাড়ি ফিরতে বেশ ভোগান্তি পোহাতে হয় ওই এলাকার যাত্রীদের। তবে এবার ঈদের আগেই জেলা শহর ছাড়াও আন্তঃজেলার অধিকাংশ সড়ক সংস্কার করায় যোগাযোগ ব্যবস্থা বেশ উন্নত হয়েছে। সম্প্রতি খাগড়াছড়ি-দীঘিনালা সড়কে সংস্কার কাজ শেষ করেছে সড়ক ও জনপদ বিভাগ (সওজ)।
আরও জানা গেছে, খাগড়াছড়ি থেকে পর্যটন কেন্দ্র সাজেক যাতায়াতের একমাত্র মাধ্যম দীঘিনালা সড়ক। দীর্ঘদিন পর সড়কটি সংস্কারের উদ্যোগ নেয় সওজ। তবে নির্ধারিত সময়ে প্রায় ২২ কি. মি. সড়কের সংস্কার কাজ শেষ হয়। ফলে স্থানীয় বাসিন্দাদের পাশাপাশি সাজেকগামী পর্যটকরা এবার স্বস্তিতে এই পথে যাতায়াত করতে পারবেন।
খাগড়াছড়ি-দীঘিনালা সড়কে পর্যটকবাহী গাড়ির চালক প্রদীপ ত্রিপুরা বার্তা২৪.কম-কে বলেন, ‘আগে এই পথে চলাচল করতে দুর্ভোগ পোহাতে হত। পুরো রাস্তা খানাখন্দে ভরা ছিল। বর্তমানে খাগড়াছড়ি-দীঘিনালা রাস্তাটিতে কোনো গর্ত নেই। তাই স্বাচ্ছন্দ্যে চলাচল করতে পারি। ঈদ মৌসুমে অনেক পর্যটক আসবে। ফলে পর্যটকদের চলাচলেও কোনো ভোগান্তি হবে না।’
জানা গেছে, ২০১৮-১৯ অর্থবছরে সড়ক ও জনপদ বিভাগ প্রায় ১৬ কোটি টাকা ব্যয়ে সড়কের সংস্কার কাজ শেষ করে। এই সড়কে চলাচলকারী একাধিক যাত্রী বার্তা২৪.কম-কে জানান, দীঘিনালা সড়কে অনেক যান চলাচল করে। দীঘিনালা ছাড়াও রাঙামাটির বাঘাইছড়ি ও লংগদুর বাসিন্দারা এই পথে চট্টগ্রাম বা ঢাকায় যাতায়াত করে। সড়কটি সংস্কার কাজ শেষ হওয়ায় এই পথে আর কোনো ভোগান্তি হবে না।
ঢাকা-খাগড়াছড়ি সড়কে যাতায়াতকারী বেসরকারি পরিবহন চালকরা জানান, খাগড়াছড়ি অংশে বেশির ভাগই পাহাড়ি সড়ক। সড়কটি আঁকা-বাঁকা হলেও বর্তমানে কোনো খানাখন্দ নেই। ফলে চলাচলে গতি এসেছে। এছাড়া বেইলি ব্রিজ উঠে যাওয়ায় ঝুঁকিও কমে গেছে। পাহাড়ি সড়ক এখন অনেকটায় নিরাপদ। এছাড়া খাগড়াছড়ি-পানছড়ি সড়কের প্রায় ৯টি আরসিসি গার্ডার ব্রিজের কাজ শেষ হওয়ায় এই সড়কে ভোগান্তি কমেছে।
জানা গেছে, একসময় বেইলি ব্রিজ সড়কের আতঙ্ক হিসেবে পরিচিত ছিল। পাহাড়ি ছড়ার বা নদীর ওপর নির্মিত বেইলি ব্রিজ ভেঙে প্রায়ই দুর্ঘটনা ঘটত। এতে সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যেত। বর্ষার সময় বেইলি ব্রিজের ভোগান্তি দ্বিগুণ হত। তবে এবার পাল্টে গেছে সেই দৃশ্যপট। খাগড়াছড়ি-তাইন্দং এবং খাগড়াছড়ি-পানছড়ি সড়কের অধিকাংশ সেতুর নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে। ফলে এই পথে চলাচলকারীদের মধ্যে স্বস্তি ফিরেছে।
খাগড়াছড়ি সড়ক ও জনপদ বিভাগের উপবিভাগীয় প্রকৌশলী সবুজ চাকমা বলেন, ‘খাগড়াছড়ি সড়ক বিভাগের আওতাধীন সড়কের অধিকাংশই সুরক্ষিত। এছাড়া আরসিপি গার্ডার ব্রিজ নির্মিত হওয়ায় সড়কের ঝুঁকিও কমেছে। খাগড়াছড়ি-চট্টগ্রাম, খাগড়াছড়ি-ঢাকাসহ আন্তঃজেলা সড়ক যোগাযোগ সুরক্ষা রাখতে সড়ক বিভাগের মনিটরিং টিম কাজ করবে। ফলে সড়কে খাগড়াছড়ির স্থানীয় বাসিন্দা ও পর্যটকদের ঈদযাত্রা নির্বিঘ্ন হবে।’




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft