বুধবার, ১৯ জুন, ২০১৯
দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
রাজবাড়ীতে স্কুলছাত্রীকে পুড়িয়ে হত্যাচেষ্টার অভিযোগ
রাজবাড়ী প্রতিনিধি :
Published : Saturday, 8 June, 2019 at 5:35 PM
রাজবাড়ীতে স্কুলছাত্রীকে পুড়িয়ে হত্যাচেষ্টার অভিযোগঅশ্লীল ছবি তুলে ব্লাকমেইলের পর দাবিকৃত টাকা না পেয়ে যুলি নামে এক স্কুলছাত্রীকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে রাজবাড়ী সদর উপজেলার পাঁচুরিয়া ইউনিয়নের খোলাবাড়িয়া গ্রামে।
এ ঘটনায় শুক্রবার রাতে ওই ছাত্রীর বাবা ফজলুর রহমান বাদী হয়ে শিল্পী বেগম নামে এক নারীসহ অজ্ঞাত আরও চারজনের বিরুদ্ধে রাজবাড়ী সদর থানায় মামলা করেছেন। শিল্পী বেগম একই গ্রামের জাহাঙ্গীর মিজির স্ত্রী। পুলিশ মামলার আলামত হিসেবে ওই স্কুলছাত্রীর পুড়ে যাওয়া কামিজ ও সালোয়ার জব্দ করেছে। মেয়েটি স্থানীয় খানখানাপুর তমিজ উদ্দিন খান বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী।
মামলায় বাদী অভিযোগ করেন, গত ১২ এপ্রিল স্কুল থেকে বাড়ি ফেরার সময় অজ্ঞাত কয়েকজন তার মেয়েকে জোরপূর্বক রাস্তার পাশে জঙ্গলে নিয়ে ছুরির ভয় দেখিয়ে অশ্লীল ছবি ধারণ করে। সেই ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ার ভয় দেখিয়ে শিল্পী বেগম তার মেয়ের কাছে দুই লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। ঈদের দিনে বাড়ির পাশে  পুকুর থেকে গোসল করে বাড়ি ফেরার পথে অজ্ঞাত একজন লোক পেছন থেকে তার মেয়ের মাথায় সজোরে আঘাত করে। পরে স্থানীয়ভাবে তাকে চিকিৎসা দেয়া হয়। এরপর গত ৬ জুন দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে তার মেয়ে বাড়ির বারান্দায় বসে জাম খাওয়ার সময় অজ্ঞাত চার বোরকা পরা লোক জোরপূর্বক মুখ চেপে ধরে তাকে বাড়ির পেছনে একটি পাট ক্ষেতে নিয়ে যায়। সেখানে তার মেয়ের ওড়না দিয়ে হাত, পা ও মুখ বেঁধে ম্যাচের কাঠি দিয়ে গায়ে আগুন ধরিয়ে দেয়। তার মেয়ে মাটিতে গরাগরি করার কারণে আগুন বাড়তে পারেনি। পরে মেয়ের গোঙানোর শব্দ শুনে তার স্ত্রী এগিয়ে গিয়ে তাকে উদ্ধার করে। পরবর্তীতে তাকে স্থানীয় চিকিৎসকের কাছে নিয়ে চিকিৎসা দেওয়া হয়।
ফজলুর রহমান বলেন, শিল্পী বেগমের সঙ্গে তার কোনো শত্রুতা নেই। তাদের কাজ মানুষকে ব্লাকমেইল করা। আমার মেয়ের কাছ থেকে টাকা আদায়ের জন্য একটা ফাঁদ পেতেছিল।
রাজবাড়ী সদর থানার ওসি স্বপন কুমার মজুমদার জানান, মামলার এজাহারে চারটি ঘটনার কথা উল্লেখ করা হয়েছে। পুলিশ প্রতিটি ঘটনাই গুরুত্বের সঙ্গে দেখছে। পুলিশ স্কুলছাত্রীর পুড়ে যাওয়া কামিজ ও সালোয়ার জব্দ করেছে। আসামি শিল্পী বেগমকে গ্রেফতারের জন্য অভিযান চালানো হয়েছিল। কিন্তু পলাতক থাকায় গ্রেফতার করা যায়নি। তাকে গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত আছে।
এদিকে শনিবার রাজবাড়ীর পুলিশ সুপার আসমা সিদ্দিকা মিলি ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রেজাউল করিম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft