সোমবার, ০৯ ডিসেম্বর, ২০১৯
ওপার বাংলা
ভয়ে বন্ধ কলকাতার ‘বিফ ফেস্টিভ্যাল’
কাগজ ডেস্ক :
Published : Saturday, 8 June, 2019 at 6:45 PM
ভয়ে বন্ধ কলকাতার ‘বিফ ফেস্টিভ্যাল’ক্রমাগত হুমকির জেরে বন্ধ হয়ে গেলো কলকাতার আলোচিত ‘বিফ ফেস্টিভ্যাল’। কলকাতার ‘দ্য অ্যাক্সিডেন্টাল নোট’ নামের একটি সংস্থা আগামী ২৩ জুন কলকাতার সদর স্ট্রিটের একটি অভিজাত হোটেলে ‘কলকাতা বিফ ফেস্টিভ্যালের’ আয়োজন করেছিলো।
গত কয়েক সপ্তাহ ধরে বিভিন্ন সামাজিক মাধ্যমে এই অনুষ্ঠানের জন্য প্রচারও চালানো হচ্ছিলো। কিন্ত অভিযোগ ওঠে, গত কয়েকদিন ধরে আয়োজক সংস্থার কাছে একের পর এক হুমকি দিয়ে ফোন আসতে শুরু করে। ফোনে অনুষ্ঠানে হামলার পাশাপাশি প্রাণনাশের হুমকিও দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। এসব হুমকির প্রেক্ষিতে উদ্যোক্তারা ‘বিফ’থেকে অনুষ্ঠানের নাম বদলে ‘বিপ’করার সিদ্ধান্ত নেন। তারপরও ফোনে হুমকি দেয়া থামেনি। গত বৃহস্পতিবারেই অন্তত ৩০০ হুমকি ফোন পেয়েছেন তারা। এরপরেই বাধ্য হয়ে ভয়ে ‘কলকাতা বিফ ফেস্টিভ্যাল’ বাতিল করার সিদ্ধান্ত নেন তারা।
জানা যায়, খাদ্যরসিকদের জন্য এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিলেন উদ্যোক্তারা। উদ্যোক্তা সংস্থার তরফে জানা গিয়েছে, আগামী ২৩ জুন মধ্য কলকাতার সদর স্ট্রিটে একটি হোটেলে ‘কলকাতা বিফ ফেস্টিভ্যালে’গোমাংস ও শুকরের মাংসসহ একাধিক পদের রেসিপি থাকবে বলে জানানো হয়েছিলো।
এরপরেই শুরু হয় হুমকি ফোন। সেইসঙ্গে সামাজিক মাধ্যমে শুরু হয় ওই অনুষ্ঠানের তুমুল সমালোচনা। সবশেষে হুমকি ফোনে বলা হয়, ওই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হলে উদ্যোক্তাদের খুন করে ফেলা হবে। এরপরেই ওই সংস্থার তরফে বলা হয়, ‘পরিস্থিতি ক্রমশ হাতের বাইরে চলে যাচ্ছে। আমরা ভয় পাচ্ছি। যে কারনে ভয়ে বাতিল করে দেওয়া হয় অনুষ্ঠানটি।’
তবে এই বিফ ফেস্টিভ্যাল বাতিল হওয়ায় নিন্দার সরব হয়েছেন অনেকেই। পশ্চিমবঙ্গের শিশু ও নারী কল্যান মন্ত্রী শশী পাঁজা বলেছেন, সংবিধানে কে কী খাবে তার উপর কোনও নিষেধাজ্ঞা নেই। অথচ একদল লোক এগুলো করছে। মানুষ ভয় পাচ্ছে।
প্রসঙ্গত, ২০১৪ সালে বিজেপি প্রথমবার ক্ষমতায় আসার পর ভারতের বিভিন্ন রাজ্যে আইন করে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে গরুরর মাংস। একই সঙ্গে গরু জবাইয়ের ওপরও আরোপ করা হয়েছে নিষেধাজ্ঞা। গোরক্ষকদের তাণ্ডবে অনেকেই গরুর মাংস খেতে ভয পাচ্ছেন। যদিও দেশটির সংবিধানে গরুর মাংস নিষিদ্ধ করার কোনো কথা নেই। এবার দ্বিতীয় দফায় মোদির দল ক্ষমতায় আসার পর গোড়া হিন্দুদের গোরক্ষা তৎপরতা আরো বেড়েছে। যার কারণে কলকাতার মত শহরেও বিফ ফ্যাস্টেভ্যাল করা সম্ভব হলো না।



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft