শনিবার, ০৭ ডিসেম্বর, ২০১৯
সারাদেশ
মাদারীপুরে ইউপি নির্বাচন :
আওয়ামীলীগ ও স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে আহত-৩০ : আটক-১১
পুলিশের ৫ রাউন্ড ফাকা গুলি নিক্ষেপ
মাদারীপুর প্রতিনিধি :
Published : Wednesday, 12 June, 2019 at 4:10 PM
আওয়ামীলীগ ও স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে আহত-৩০ : আটক-১১ মাদারীপুর সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে পেয়ারপুর ইউনিয়নের মধ্য গাছবাড়িয়া এলাকায় আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী ও স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে নারীসহ অন্তত ৩০ জন আহত হয়েছে। এই ঘটনায় ১১ জনকে আটক করেছে পুলিশ। বুধবার সকাল ৮টা থেকে বেলা ১২টা পর্যন্ত দফায় দফায় এই দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ চলে। দুই গ্রুপের সংঘর্ষের সময় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ ৫ রাউন্ড ফাকা গুলি নিক্ষেপ করে। এলাকায় উত্তেজনা থাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে।
আহত, হাসপাতাল, পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বুধবার সকালে আওয়ামীলীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী কাজল কৃষ্ণ দে’র সমর্থক মোজলেম আকন, লাভলু তালুকদার গ্রুপের লোকজন সদর উপজেলার পেয়ারপুর ইউনিয়নের মধ্য গাছবাড়িয়া এলাকায় পোস্টার লাগাতে যায়।
অপরদিকে স্বতন্ত্র প্রার্থী ও সাবেক নৌপরিবহণমন্ত্রী ও বর্তমান সংসদ সদস্য শাজাহান খানের ছোট ভাই এ্যাড. ওবায়দুর রহমান কালু খানের সমর্থক লাল মিয়া মাতুব্বর ও শহিদ মাতুব্বরের লোকজনও পোস্টার লাগাতে যায়।
এ সময় পোস্টার লাগানোকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। পরে দুই গ্রুপের লোকজন দেশীয় অস্ত্র-সস্ত্র সজ্জিত হয়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। সংঘর্ষে দুই গ্রুপের অন্তত ৩০ জন আহত হয়। আহতদের মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি ও প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।
উভয় পক্ষের আহতরা হলেন গাছবাড়িয়া গ্রামের তালিব মাতুব্বর (১৬), শান্ত চৌকিদার (২০), পিয়াল মোল্লা (২২), সজল হাওলাদার (১৪), নুর জামাল সর্দার (৩০), আমিনুর মাতুব্বর (৩০), আব্দুল চৌদিকার (৪৫), সাকিব মাতুব্বর (২০), আয়নাল মাতুব্বর (৩৮), বাদল মাতুব্বর (৪৫), নাসির বেপারি (৩২), সাব্বির শেখ (১৮),  মহিউদ্দিন শেখ (৪০), ইকবাল চৌকিদার (২২), বাকা চৌকিদার (৪০), সেরাজুল খান (৩৩), শিউলী বেগম (৩২) প্রমুখ।
খরব পেয়ে মাদারীপুর সদর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ৫ রাউন্ড ফাকা গুলি নিক্ষেপ করে। এ সময় পুলিশ ১১ জনকে আটক করেছে। ঘটনার পর থেকে ওই এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।
এদিকে এলাকাবাসী দাবী করছেন, যে কোন সময় আবারও রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশঙ্কা আছে।
স্বতন্ত্র প্রার্থীর নির্বাচনী প্রতিনিধি ও তার ছেলে আবেদুর রহমান খান বলেন, আমাদের সমর্থকরা আনারসের পোস্টার টাঙানোর সময় নৌকার সমর্থকরা অতর্কিতভাবে হামলা চালিয়ে আমাদের নেতা-কর্মীদের আহত করেছে।
মাদারীপুর সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি পরিমল কুন্ডু বলেন, যারা নৌকা প্রতীকের কর্মী সমর্থকদের উপরে হামলা চালিয়েছে, দলীয়ভাবে আমরা তাদের আইনের আওতায় আনার দাবী করছি। পাশাপাশি সদর উপজেলা নির্বাচনে দলের পক্ষে সকল নেতা কর্মীদের কাজ করার আহবান জানাই।
মাদারীপুর সদর হাসাপাতলে মেডিকেল অফিসার ডা. ইমরানুর রহমান সনেট বলেন, সংঘর্ষের ঘটনায় এ পর্যন্ত ২৮ জনকে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। আমরা সাধ্যমত চিকিৎসা সেবা দিচ্ছি।
মাদারীপুরের ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার উত্তম প্রসাদ পাঠক সংর্ঘষের ঘটনা নিশ্চিত করে বলেন, পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে বেশ কয়েক রাউন্ড ফাঁকা গুলি করে পরিস্ত্রিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। ঘটনার পর থেকে ওই এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়ন রয়েছে। এখন পর্যন্ত ১১ জন আটক করা হয়েছে।




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft