শুক্রবার, ২১ জুন, ২০১৯
অর্থকড়ি
বাজেট পড়ছেন প্রধানমন্ত্রী
কাগজ ডেস্ক :
Published : Thursday, 13 June, 2019 at 4:53 PM
বাজেট পড়ছেন প্রধানমন্ত্রীজাতীয় সংসদ ভবন থেকে: বাজেট ঘোষণাকালে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল অসুস্থ বোধ করায় স্পিকারের অনুমতি সাপেক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাজেট বক্তৃতা করছেন।
বৃহস্পতিবার ( ১৩ জুন) বিকেলে জাতীয় সংসদে বাজেট অধিবেশনে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল প্রস্তাবিত বাজেট ঘোষণা করেন। কিছুক্ষণ পরেই বাজেট বক্তৃতায় অর্থমন্ত্রী অসুস্থ বোধ করলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাজেট বক্তৃতা দেওয়ার জন্য স্পিকার শিরীন শারমিনের কাছে অনুমতি চান। স্পীকারের অনুমতি সাপেক্ষে তিনি বাজেট বক্তৃতা দেন।
এতেই প্রথমবারের মতো বাজেটের অংশ বিশেষ উত্থাপন করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বাজেট উত্থাপন শুরু হওয়ার পর প্রায় ৪০ মিনিটের মতো পুরো সময়টাই বসে বসে বাজেট উত্থাপন করেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। এরপর পাঁচ মিনিটের বিরতি দিয়ে পরে আবার যখন শুরু করবেন তখন পুরোপুরি সুস্থ না পাশের সিটে বসা মতিয়া চৌধুরী ও তোফায়েল আহমেদ বলেন, 'আপনি শেষ করে দেন'। এরপর তার চোখের জন্য ড্রপ আনা হয়।
ড্রপ দেওয়ার জন্য ডাকা হয় সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী আ ফ ম রুহুল হককে। এরপর ডাকা হয় সংসদ সদস্য ডা. শামিল উদ্দিন আহমেদ শিমুলকে। তারা চোখে ড্রপ দিলেও আর স্বাভাবিক না হওয়ায়।
পরে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, 'ঠিক আছে বলব না। মাননীয় স্পিকার বাজেটের বাকি অংশটুক প্রধানমন্ত্রী উপস্থাপন করবেন।'
এরপর সংসদ নেতা প্রধানমন্ত্রী বলেন, 'আমার নিজেরও চোখে একটা অপারেশন এবং আমার মন্ত্রীরও চোখে অপারেশন সমস্যাটা এখানে দেখা দিয়েছে। যে কারণে মন্ত্রীকে ১৫ মিনিট পর পর চোখে ড্রপ দিতে হয়। সেজন্য তিনি বাজেট বক্তৃতায় অসুবিধায় পড়ে যাচ্ছেন। আমারতো ঠাণ্ডা লেগে গলার অবস্থাও ভালো না, পড়তে গেলে কাশি আসে আরও সমস্যা এটি হচ্ছে আমাদের সবচেয়ে দুর্ভাগ্যে।'
এ সময় স্পিকারকে উদ্দেশ্য করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, 'আপনি অনুমতি দিলে আমি বাকিটুক পড়তে পারি।'
এরপর স্পিকার বলেন, 'আপনি পড়তে পারেন'। এরপর প্রধানমন্ত্রী বলেন, 'আমি বসে বলব নাকি দাঁড়িয়ে বলব'। স্পিকার বলেনম, 'আপনি যেটা ভাল মনে করেন বসেও বলতে পারেন'।
এরপর প্রধানমন্ত্রী বাকেট উপস্থাপন শুরু করেন। কয়েক মিনিট পর যখন লেখা বক্তৃতায় আসে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আপনাকে ধন্যবাদ। এসময় কথাটি বলে হাসি দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, 'মাননীয় স্পিকার এটা আমার বক্তব্য না, অর্থমন্ত্রী বক্তব্য আমি দিচ্ছি। তাই ধন্যবাদটি দিলাম।'
এ সময় উপস্থিত সবাই হেসে ওঠেন। স্পিকার প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে বলেন, 'বক্তৃতায় যেখানে যেখানে প্রধানমন্ত্রীর ধন্যবাদ দেওয়া আছে আপনি পড়বেন।' এদিকে প্রধানমন্ত্রী বক্তৃতা শুরু করলে উপস্থিত সকল মন্ত্রী এমপি টেবিল চাপড়িয়ে হ্যাঁ হ্যাঁ বলতে থাকেন।
প্রস্তাবিত এ বাজেটের আকার পাঁচ লাখ ২৩ হাজার ১৯০ কোটি টাকা। যা গত অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটের আকার থেকে বেড়েছে ৫৮ হাজার ৬১৭ কোটি টাকা বা ১৩ শতাংশ। প্রস্তাবিত নতুন বাজেটে রাজস্ব আহরণের লক্ষ্যমাত্রা তিন লাখ ৭৭ হাজার ৮১০ কোটি টাকা।



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft