মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর, ২০১৯
আন্তর্জাতিক সংবাদ
চীন বিরোধী বিক্ষোভের পর থমথমে হংকং
আন্তর্জাতিক ডেস্ক :
Published : Thursday, 13 June, 2019 at 7:45 PM
চীন বিরোধী বিক্ষোভের পর থমথমে হংকংচীন বিরোধী বিক্ষোভের একদিন পর বৃহস্পতিবার হংকংয়ে থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে। এর জেরে বন্ধ হয়ে গেছে বেশ কিছু সরকারি দপ্তর।
চলমান বিক্ষোভের অংশ হিসেবে বৃহস্পতিবার সকালে সরকারি সদর দপ্তরগুলোর সামনে অবস্থান নিয়েছে বিক্ষুব্ধ জনতা। বুধবার এখানেই বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে সংঘাতে লিপ্ত হয়েছিলো পুলিশ। এদিনও বিক্ষোভকারীদের হঠাতে সজাগ রয়েছে পুলিশ। জোরদার করা হয়েছে শহরের নিরাপত্তা।
চীন ও তাইওয়ানের মধ্যে অপরাধী প্রত্যর্পণ সংক্রান্ত একটি বিলের বিরুদ্ধে এই বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হচ্ছে। নতুন এই বিলটিতে চীনকে সন্দেহভাজন অপরাধীদের নিজ ভূখণ্ডে নিয়ে বিচার করার অধিকার দেয়া হয়েছে। আর এ কারণেই এই আইনের বিরুদ্ধে ক্ষেপে উঠেছে হংকংয়ের বাসিন্দারা।
বৃহস্পতিবার সকাল থেকে বিক্ষোভকারীরা হংকং শহরের কেন্দ্রে অবস্থান নিতে শুরু করে। কয়েকশ আন্দোলনকারী মুখোশ ও খাবার নিয়ে দেশটির আইনসভার সামনে ঘোরাঘুরি করতে থাকে। তবে এদিন নিরাপত্তা আরও জোরদার করেছে হংকং। হেলমেট ও ঢাল নিয়ে সেখানে প্রস্তুত শত শত পুলিশ। পাশেই পুলিশ ভ্যান। এছাড়া ইউনিফর্মবিহীন পুলিশও রয়েছে। চেক করা হচ্ছে সকলের পরিচয়পত্রও।
এর আগে বুধবার দিনভর পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ হয় বিক্ষোভকারীদের। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আন্দোলনকারীদের ওপর রাবার বুলেট ও টিয়ার গ্যাস নিক্ষেপ করা হয়। আন্দোলনকারীরাও প্লাস্টিকের বোতল ছুড়ে প্রতিরোধের চেষ্টা করে। দু পক্ষের সংঘর্ষে কমপক্ষে ৭২ জন আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন বলে জানা গেছে।
এত বিক্ষোভের পরও বিলটি পাস করার সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসেনি হংকংয়ের আইন পরিষদ। তবে বুধবার বিলটির ওপর পরিষদের নির্ধারিত আলোচনাটি বাতিল করা হয়েছে। তবে কবে নাগাদ এটি অনুষ্ঠিত হবে তার কোনো নির্দিষ্ট তারিখ জানানো হয়নি।
বুধবার স্থানীয় সময় বেলা ১১টার দিকে প্রত্যর্পণ বিলটি নিয়ে হংকংয়ের ৭০ আসনের আইন পরিষদের সদস্যদের আলোচনা শুরু করার কথা ছিলো। পরে বিক্ষোভের কারণে তা বাতিল করা হয়।
হংকংয়ের এক সংবাদ মাধ্যমের বরাত দিয়ে বিবিসি জানিয়েছে, আগামী ২০ জুন এই বিলের ব্যাপারে চূড়ান্ত ভোট অনুষ্ঠিত হবে এবং ধারণা করা হচ্ছে সেখানেই বিলটি পাস হতে পারে।
যদিও হংকংয়ের বেইজিংপন্থী নেতা ক্যারি ল্যাম জোর দিয়ে বলেছেন, বিতর্কিত প্রত্যার্পণ বিল বাতিলের কোনো পরিকল্পনা নেই তার সরকারের। বিলটি নিয়ে ব্যাপক বিক্ষোভের একদিন পর গত সোমবার তিনি এ কথা বলেন।
এর আগে গত রোববার অপরাধী প্রত্যর্পণ বিলের বিরুদ্ধে আরো একবার উত্তাল হয়ে উঠেছিলো হংকং। সেদিন পথে নেমে এসেছিলো ৩ লাখের বেশি বিক্ষুব্ধ জনতা। এসময় বিক্ষোভকারী জনতার সঙ্গে সংঘাতে কমপক্ষে তিন পুলিশ কর্মকর্তা ও এক সাংবাদিক আহত হন।
১৯৯৭ সালে ব্রিটিশরা হংকংকে চীনের কাছে হস্তান্তরের পর সেখানে এটিই সবচেয়ে বড় বিক্ষোভের ঘটনা। সূত্র: বিবিসি



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft