শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
সারাদেশ
গম বীজের মূল্য কম নির্ধারণ হওয়ায় বিএডিসি চুক্তিবদ্ধ চাষিদের মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ
আজম রেহমান, ঠাকুরগাঁও জেলা প্রতিনিধি :
Published : Sunday, 16 June, 2019 at 6:12 PM
গম বীজের মূল্য কম নির্ধারণ হওয়ায় বিএডিসি চুক্তিবদ্ধ চাষিদের মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশচলতি বছরে বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশনের (বিএডিসি) বীজের গম ক্রয়ের মূল্য গত বছরের তুলনায় কেজিতে ৩ টাকা কম নির্ধারণ করায় চুক্তিবদ্ধ গম চাষিরা হতাশায় মূল্য বৃদ্ধির দাবিতে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছেন।
রোববার দুপুরে ঠাকুরগাঁও চৌরাস্তায় বিএডিসি কৃষক ফোরাম ঠাকুরগাঁও জোনের আয়োজন মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে বকত্ব্য রাখেন, বিএডিসি কৃষক ফোরামের সভাপতি কুতুব উদ্দীন, সাধারাণ সম্পাদক এসএম এমদাদুল হক, চাষি মামুন উর রশীদ, রফিকুল ইসলাম, ইনুস আলী, খেলাফত হোসেন, নুরুল ইসলাম প্রমুখ।
চাষিরা জানায়, ঠাকুরগাঁও জেলায় ৩ টি বীজ উৎপাদন জোনে ১৮শ গম বীজ চাষির মাধ্যমে এবার বিএডিসি ৫ হাজার হেক্টর জমিতে আবাদ করে উৎপাদন হয় প্রায় ২০ হাজার মেট্রিকটন। এর মধ্যে ৮ হাজার ১শ মেট্রিকটন গম বীজ ক্রয় করেছে বিএডিসি। সারাদেশে ১২ হাজার মেট্রিকটন গম বীজ ক্রয় করেছে বিএডিসি।
সরকার গমের যে দর দিবে বিএডিসি  তার চেয়ে ৩০ ভাগ বাড়িয়ে দিবে চাষিদের এমনটাই চুক্তি রয়েছে তাদের। খাদ্য অধিদপ্তর এবার ২৮ টাকা দরে জেলায় ১৭ হাজার ৯শ ১৫ মেট্রিকটন গম ক্রয় করেছে। সে অনুযায়ি ৩৬ টাকা ৪০ পয়সা হওয়ার কথা বিএডিসি‘র গম বীজের।
চাষিদের দাবি গত বছরের চেয়ে বাজারে এবার গমের দাম বেশি তার পরেও এবার প্রতি কেজিতে ৩ টাকা কম নির্ধারণ করা হয়েছে। গত বছর প্রতি কেজি প্রত্যায়িত ও মানঘোষিত বীজের গম ৩৫ টাকা এ বছর ৩২ নির্ধারণ করা হয়েছে। গত বছর বাজারে কাঁচা গমের বাজার ছিল প্রতি কেজি ১৯ টাকা। আর এবার বাজারে কাঁচা গম ২৩ টাকা থাকলেও বিএডিসি বীজের গম কেজিতে ৩ টাকা কমিয়ে ৩২ টাকা নির্ধারণ করেছে। এতে চাষিরা লোকশানের মুখে পরছেন।
বিএডিসি‘র চুক্তিবদ্ধ চাষিরা বলেন, আমরা ভেবে ছিলাম বাজারে গত বছরের চেয়ে এবার গমের দাম বেশি তাই বিএডিসিও গম বীজের দাম বেশি দিবে। কিন্তু শেষে তারা গত বছরে চেছে কেজিতে ৩ টাকা কমিয়ে দিয়েছে। মানসম্মত বীজ প্রক্রিয়াজাত করে ১০ থেকে সাড়ে ১০% আদ্রতায় নেয় বিএডিসি। এতে কমপক্ষে প্রতি কেজি ৩৪ টাকার উপরে পরে যায়। ৩ মাস পরে বীজের টাকা পায় চাষিরা এতে ২ টাকা লাভ না পেয়ে যদি ২ টাকা লোকশান পায় তা হলে চাষিরা কেমনে বাঁচবে। বিএডিসি যদি দ্রুত সময়ে গম বীজের মূল্য ৩৬ টাকা না কবরে তাহলে চাষিরা রাস্তায় নামতে বাধ্য হবে।  এতে চাষিরা আর্থিক ভাবে ক্ষতির মুখে পরছেন। চুক্তিবদ্ধ চাষিরা যদি লোকশানে পরে তা হলে বীজ উৎপাদনে অনাগ্রহী হয়ে উঠবে। তাই চাষিদের কথা চিন্তা করে কর্তৃপক্ষ পূনরায় মূল্য নির্ধারণ করবেন প্রাথমিক ভাবে সংশ্লিষ্ট দপ্তরে মূল্য বৃদ্ধির দরখাস্ত পাঠানো হয়েছে।
বিএডিসি কর্তৃপক্ষ গম বীজ ক্রয়ের মূল্য ভিত্তি বীজ ৩৮ ও প্রত্যায়িত ও মানঘোষিত বীজ ৩২ টাকা নিধার্রণ করেছে। গতবছর গম বীজ ক্রয়ের মূল্য ছিল ভিত্তি বীজ ৪২ ও প্রত্যায়িত ও মানঘোষিত বীজ ৩৫ টাকা।
মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তরা দ্রুত সময়ে বিএডিসিকে গমবীজের মূল্য বৃদ্ধির আহব্বান জানান। 



আরও খবর
সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft