বৃহস্পতিবার, ০৯ এপ্রিল, ২০২০
দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
রাজনৈতিক শেল্টারে ঝুমঝুমপুরে সংঘবদ্ধদের মাদকের কারবার
অভিজিৎ ব্যানার্জী :
Published : Friday, 21 June, 2019 at 6:49 AM
রাজনৈতিক শেল্টারে ঝুমঝুমপুরে সংঘবদ্ধদের মাদকের কারবারযশোরের ঝুমঝুমপুর এলাকায় রাজনৈতিক শেল্টারে সংঘবদ্ধ মাদক সিন্ডিকেট দাপিয়ে বেড়াচ্ছে। তারা জমজমাট মাদক ব্যবসা করে এলাকার পরিবেশ নষ্ট করছে। এলাকার উঠতি বয়সী যুবক এমনকি স্কুল কলেজ পড়–য়া ছাত্ররাও সর্বস্বান্ত হচ্ছে। চক্রটির কেউ কেউ চাঁদাবাজি ছিনতাইসহ নানা সন্ত্রাসী তৎপরতার সাথেও জড়িত বলে অভিযোগ। এলাকাবাসীর অভিযোগ থেকে জানা গেছে ওই মাদ্রকচক্রের হোতা জাভেদ। সম্প্রতি সে পুলিশের হাতে আটক হওয়ার পর তার সঙ্গীরা মাদকের কারবার চালিয়ে যাচ্ছে।
যশোরের পুলিশ যখন যশোর শহরকে মাদকমুক্ত করার ঘোষণা দিয়েছেন তখন ঝুমঝুমপুর এলাকায় অপ্রতিরোধ্য গতিতে ইয়াবা, ফেনসিডিল, গাঁজার রমরমা ব্যবসা চলছে বলে অভিযোগ করেছেন ওই এলাকার মানুষ। সাথে চলছে চাঁদাবাজি ও অস্ত্রের মহড়া। গত ১৭ জুন এই চক্রের প্রধান জাবেদ আটক হওয়ার পর এলাকাটির মাদক সিন্ডিকেটের তথ্য পাওয়া শুরু হয়েছে।
এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, চাঁদ কসাইয়ের ছেলে সেলিম জাবেদের সেকেন্ড ইন কমান্ড হিসেবে কাজ করছে। তার দখলে অস্ত্র রয়েছে বলেও দাবি করেছে এলাকাবাসী। এলাকার বজলুর রহমানের ছেলে  চায়না রাজু, মৃত বাহার উদ্দিনের ছেলে রনি, এলাকার জিল্লু, পুরোনো পাড়ার রনি মহির ছেলে সোহেলসহ আরও ৫/৭ জন মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত। এদের মধ্যে সোহেলের বিরুদ্ধে ছিনতাইয়ের অভিযোগও আছে
যশোরের কুখ্যাত মাদক স¤্রাট আবু তালেব খুন হওয়ার পর থেকে বারান্দীপাড়া সিন্ডিকেটে ভাটা পড়লে এখন ঝূমঝুমপুর জাবেদের নেতৃত্বাধীন সিন্ডিকেট রমরমা ব্যবসা চালাচ্ছে মাদকের। সরাসরি মিছিল মিটিংয়ে অংশ নিয়ে রাজনৈতিক সেল্টার নিয়েও মাদক ব্যবসা করছে চক্রের চিহ্নিত কয়েকজন। তাদের অপতৎপরতায় অতিষ্ঠ হয়ে উঠছে এলাকাবাসী।
স্থানীয় সূত্রের দাবি ওই এলাকার কয়েকটি স্পটে সকাল থেকে মধ্য রাত পর্যন্ত চলে তার কারবার। চক্রটি প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে প্রতিনিয়ত চালিয়ে যাচ্ছে রমরমা কারবার। আবার কেউ পুলিশ ম্যানেজ করে গাঁজা, ইয়াবা, ফেনসিডিলসহ নানা ভার্সনের মাদকদ্রব্য বিক্রি করে চলেছে। তাদের অবাধ মাদক বিকিকিনি কারণে ছাত্র ও যুবসমাজ চরমভাবে প্রভাবিত হচ্ছে। ছাত্রদের কেউ কেউ সেবনসহ এই ব্যবসায় জড়িয়ে তাদের পরিবারকে অতিষ্ঠ করে তুলছে। এদিকে কয়েক অসাধু পুলিশকে মাসোহারা দিয়ে তারা তাদের ব্যবসা আরও প্রসারিত করছে বলে সূত্রের দাবি।
সূত্রটি আরও জানিয়েছে, কারবারীরা মোবাইল ফোনের মাধ্যমেও চালিয়ে যাচ্ছে মাদক বিকিকিনি। ফোন করে মাদকের অর্ডার আর বিকাশের মাধ্যমে মূল্য পরিশোধ করছে। যশোরের বিভিন্ন সীমান্ত দিয়ে মাদকের চালান নিয়ে আসছে তারা। শার্শার রুদ্রপুর-কাশীপুর, গোগা, শিকারপুর, হরিশচন্দ্রপুর, বেনাপোলের পুটখালী, দৌলতপুর, গাতিপাড়া, সাদিপুর, বড়আঁচড়া, রঘুনাথপুর ও চৌগাছা সীমান্ত দিয়ে যশোরে মাল আনছে এরা।
এদিকে এ নিয়ে চরম উদ্বেগ, হতাশা আর উৎকন্ঠায় আছে এলাকার অনেক অভিভাবক। তারা বলছেন, এলাকার মাদক ব্যবসায়ীদের জন্য রোডে চলাচলে চরম অসুবিধা হচ্ছে। বাধা দিলে উল্টো হয়রানির মধ্যে পড়তে হচ্ছে।
এ ব্যাপারে যশোর কোতোয়ালী থানার অফিসার ইনচার্জ অপূর্ব হাসান জানিয়েছেন, ওই এলাকার হত্যা, অস্ত্র, মাদকসহ ডজন মামলার আসামি চিহ্নিত সন্ত্রাসী ঝুমঝুমপুরের জাবেদকে আটক করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে মাদক ব্যবসারও অভিযোগ রয়েছে। ওই চক্রে এলাকার আরও ডজনখানেক লোক রয়েছে। তাদের দ্রুত আটক করা হবে। গোপন অভিযান চলছে, মাদক ব্যবসায়ী সন্ত্রাসী অস্ত্রবাজদের  ছাড় দেয়া হবেনা।




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft