বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
সারাদেশ
লালপুরে বৃদ্ধি পেয়েছে পাটের চাষ, দাম নিয়ে হতাশ কৃষক!
মোঃ আশিকুর রহমান টুটুল, নাটোর জেলা প্রতিনিধি :
Published : Sunday, 23 June, 2019 at 7:13 PM
লালপুরে বৃদ্ধি পেয়েছে পাটের চাষ, দাম নিয়ে হতাশ কৃষক!শ্রমিক সংকট, শ্রমিকের অধিক মূল্য ও উৎপাদিত পাটের ন্যায্য মূল্য না পাওয়ায় গত দুই বছর থেকে নাটোরের লালপুর অঞ্চলের পাট চাষীরা আর্থিক ভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছেন। দুই বছরের ক্ষতির বোঝা মাথায় তার পরেও এবছর লাভের মুখ দেখবেন এমটা আশা করে আবারও পাট চাষ করেছেন এই অঞ্চলের চাষীরা। লালপুর উপজেলার অনেক পাট চাষী গত দুই বছর থেকে পাট চাষ করতে গিয়ে আর্থিক ভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়ে এবছর চড়া সুদে এনজিও থেকে ঋণ নিয়ে পাট চাষ করেছেন। তবে এবছরও কি পাটের ন্যায্য মূল্য তারা পবেন..? এমন প্রশ্নে উজেলার প্রতিটি পাট চাষীর রাতের ঘুম যেন হারাম হয়েগেছে। প্রতিটি পাট চাষীর চেহারায় এখন হাতাশার চিহ্ন।
শনিবার (২২ জুন) সকালে লালপুর উপজেলার, বড়ময়না, নান্দ, ওয়ালিয়া, লালপুর এলাকা ঘুরে  দেখা গেছে, লোকসান জেনেও চাষীরা তাদের সর্বস্ব দিয়ে মাথার ঘাম পায়ে ফেলে নিবির পরিচর্যায় সবুজ পাট গাছে ভরে তুলেছেন জমি। এখন পালা শুধু পাট গাছ কাটা, জাগ দেওয়া, পাট গাছ থেকে আঁশ ছোড়ানো ও শুখানো।
লালপুর উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানাগেছে, চলতি মৌসুমে লালপুর উপজেলায় মোট ৫৯১০ হেক্টর জমিতে পাটের চাষ হয়েছে। গত বছর এই উপজেলায় ৩৬০০ হেক্টর জমিতে পাটের চাষ হয়েছিলো।
উপজেলার পাট চাষী রেজাউল ইসলাম বলেন, ‘গত দুই বছর থেকে পাট চাষ করে লোচ হচ্ছে, এবছর কাঙ্খিত দাম পেলে বিগত দিনের ক্ষতি কিছুটা হলেও পোষাবে ভেবে এবারও পাটের চাষ করেছেন তিনি।’
মিন্টু নামের এক চাষী বলেন, ‘দাম না পেয়ে পাট চাষ করে শেষ হয়ে গেছি, তার পরেও ঋণের বোঝা মাথাই নিয়েই এবছরও পাট চাষ করেছি এবছর পাটের দাম না পেলে মরা ছাড়া কোন গতি নেই।’
জাহাঙ্গীর আলম নামের বড় ময়না গ্রামের এক পাট চাষী বলেন, ‘পাট এখন আমাদের গলার কাটা, না পারছি ফেলতে না পারছি গিলতে।’
লালপুর উপজেলা কৃষি অফিসার রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘লালপুরে প্রতিবছরই পাট চাষ বৃদ্ধি পাচ্ছে, গত দুই বছর থেকে পাটের সঠিক দাম না পেয়ে অনেক চাষী হতাশ হয়েছেন।  উপজেলা কৃষি অফিসের সহযোগিতায় মাঠ পর্যায়ে কৃষকদের পাট চাষের বিষয়ে প্রশিক্ষণ প্রদানে তারা বেশি বেশি পাটের চাষ করেছেন। পাটের সঠিক দাম পেলে আগামীতে এই উপজেলায় পাটের চাষ আরো বৃদ্ধি পাবে বলে মনে করেন এই কর্মকর্তা ।’



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft