সোমবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
শিক্ষা বার্তা
একাদশ শেণিতে ভর্তির জন্য অতিরিক্ত টাকা আদায় বন্ধে কঠোর নির্দেশনা
কাগজ ডেস্ক :
Published : Tuesday, 25 June, 2019 at 8:19 PM

একাদশ শেণিতে ভর্তির জন্য অতিরিক্ত টাকা আদায় বন্ধে কঠোর নির্দেশনাএকাদশ শেণিতে ভর্তির জন্য সরকার নির্ধারিত চার্জের বাইরে কোনো অতিরিক্ত টাকা আদায় বন্ধকরণের লক্ষ্যে কঠোর নির্দেশনা দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। মঙ্গলবার জাতীয় সংসদে প্রশ্নোত্তর পর্বে এ কে এম রহমতুল্লাহর প্রশ্নের জবাবে তিনি এই নির্দেশনার কথা জানান।
মন্ত্রী বলেন, সেশন চার্জসহ ভর্তি ফি সর্বসাকুল্যে মফস্বল/পৌর (উপজেলা) এলাকায় ১ হাজার টাকা, পৌর (জেলা সদর) এলাকায় ২ হাজার টাকা, ঢাকা ব্যতীত অন্যান্য মেট্রোপলিটন এলাকায় ৩ হাজার টাকা এবং ঢাকা মেট্রোপলিটন এমপিওভুক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থী ভর্তির ক্ষেত্রে ৫ হাজার টাকা নির্ধারিত রয়েছে।
তিনি বলেন, ঢাকা মেট্রোপলিটন এলাকায় অবস্থিত আংশিক এমপিওভুক্ত বা এমপিও বহির্ভুত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের উন্নয়ন এবং এমপিও বহির্ভুত শিক্ষকদের বেতন-ভাতা দেয়ার জন্য শিক্ষার্থী ভর্তির সময় ভর্তি ফি, সেশন চার্জ ও উন্নয়ন ফিসহ বাংলা মাধ্যমে সর্বোচ্চ ৯ হাজার টাকা এবং ইংরেজি মাধ্যমে সর্বোচ্চ ১০ হাজার টাকা নিতে পারবে। উন্নয়ন খাতে কোনো প্রতিষ্ঠান ৩ হাজার টাকার বেশি আদায় করতে পারবে না মর্মে বোর্ডের নির্দেশনা রয়েছে বলেও জানান মন্ত্রী।
মোয়াজ্জেম হোসেন রতনের প্রশ্নের জবাবে শিক্ষামন্ত্রী দিপু মনি বলেন, বাংলাদেশ মোট জনসংখ্যার প্রায় অর্ধেক নারী। তাই নারীদের আর্থসামাজিক উন্নয়ন ছাড়া দেশ ও জাতির উন্নয়ন সম্ভব নয়। নারী শিক্ষার প্রসার, মেয়েদের বাল্যবিবাহ রোধ, নারীর ক্ষমতায়ন ও আর্থসামাজিক উন্নয়নে মেয়েদের অংশগ্রহণ বাড়াতে মাধ্যমিক স্তরে ছাত্রীদের ৩০ শতাংশ এবং উচ্চ মাধ্যমিক স্তরে ৪০ শতাংশ উপবৃত্তির টাতা আনলাইনে প্রদান করা হচ্ছে। পাঠ্যপুস্তকসমূহে জেন্ডার সমতা বিধানসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশা, ধর্ম ও বর্ণের মধ্যে সমতাবিধান করা হয়েছে। এ ছাড়া ২০১৩ শিক্ষাবর্ষের বিভিন্ন শ্রেণির বিভিন্ন পাঠ্য বিষয়ে ইভটিজিং, যৌন হয়রানি, অটিজম, নারী ও শিশু পাচার, নৈতিক শিক্ষা ও মূল্যবোধ, শিশুর নিরাপত্তা ও স্বাস্থ্য এবং সামাজিক আইন এবং সামাজিক সমস্যা মোকাকেলা শিরোনামে বিষয়বস্তু অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। বেগম লুৎফুন নেসা খানের প্রশ্নের জবাবে শিক্ষামন্ত্রী দিপু মনি বলেন,কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের অধীন সারাদেশে সর্বসোট ১১১৬টি মহিলা মাদ্রাসা রয়েছে। এর মধ্যে দাখিল মাদ্রাসা ৯৫৫টি, আলিম মাদ্রাসা ১২৬টি, ফাযিল মাদ্রাসা ২৬টি এবং কামিল মাদ্রাসা ৯টি।
এম. আবদুল লতিফের প্রশ্নের জবাবে শিক্ষামন্ত্রী দিপু মনি বলেন, ২০১৫ সালে অনুমোদিত বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের সংখ্যা ছিল ৮৫টি। তন্মধ্যে ৩টি বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কার্যক্রম শুরু হয়নি। ২০১৫ সালে ৮৫টি বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে কম-বেশি ৫৭টি বিশ্ববিদ্যালয়ে গবেষণাখাতে অর্থ ব্যয় করেছে। এই খাতে সর্বমোট ব্যয় ছিল ৮,০৮১ দশমিক ৯৭ লাখ টাকা। যার গড় ছিল ১৫২ দশমিক ৪৩ লাখ টাকা। আলোচ্য বছরে গবেষণাখাতে সর্বোচ্চ ব্যয় করেছে ব্র্যাক ইউনিভার্সিটিতে যার পরিমাণ প্রায় ৮৮০ দশমিক ৮৭ লাখ টাকা।



আরও খবর
সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft