রবিবার, ২০ অক্টোবর, ২০১৯
দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
মিলন গ্রুপের বোমার বিস্ফোরণে তিনজন আহত
শার্শায় কথিত নীলকুঠি ফ্যামিলি পার্ক উচ্ছেদ করে দিয়েছে জমির মালিকরা
শার্শা (যশোর) সংবাদদাতা :
Published : Wednesday, 26 June, 2019 at 6:01 AM
শার্শায় কথিত নীলকুঠি ফ্যামিলি পার্ক উচ্ছেদ করে দিয়েছে জমির মালিকরা যশোরের শার্শা ও ঝিকরগাছা উপজেলার দুর্গম সীমান্তে স্থাপিত নীলকুঠি ফ্যামিলি পার্ক উচ্ছেদ করে দিয়েছে জমির মালিক দাবিদার এলাকাবাসী।  এই উচ্ছেদ প্রতিহত করতে গিয়ে পার্ক মালিকের কর্মচারীদের পাঁচটি বোমার বিস্ফোরণে তিনজন আহত হয়েছে। এ সময় পালিয়ে যায় স্থানীয় মেম্বর আইনাল হক ও নিরীহ গ্রামবাসী। এই ঘটনার পর দু’ থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এই নিয়ে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।
ভুক্তভোগী মির্জাপুর গ্রামের ফিরোজ হোসেন, মহিউদ্দিন মাস্টার, মোস্তফা খাঁ, বৃদ্ধা নবিছন বিবি, আবু ছাদ, সেকেন্দার আলী,সাফিয়া খাতুনসহ একাধিক ব্যক্তি অভিযোগ করে জানান, গত ১০ বছর ধরে তাদের ফসলি জমি দখল করে উলাশীর ইউপি সদস্য তরিকুল ইসলাম মিলন ওরফে বোমা মিলন নীল কুঠি ফ্যামিলি পার্ক নামে একটি পিকনিক স্পট তৈরি করেন। অভিযোগে জানাযায়, মিলন মেম্বর তার পার্কে মাদক ব্যবসা, পতিতা ব্যবসা, অস্ত্র ব্যবসা করে আসছেন শুরু থেকেই। তার বিরুদ্ধে অন্যের জমি ও বেতনা নদী দখল, সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজি, বোমাবাজিসহ অসামাজিক কর্মকান্ডের অভিযোগ রয়েছে। এছাড়া, মিলন মেম্বর পার্কে বোমা বানিয়ে বিভিন্ন স্থানে বিক্রি করে বলেও এলাকাবাসী জানায়।  তারা  আরো জানায়, গত ১০ বছর ধরে তাদের জমি দখল করলেও মিলন মেম্বর ওই জমি বাবদ কিছুই দেননি মালিকদের। এ নিয়ে অনেকবার বিচার শালিশ হলেও মিলন তার দখলে থাকা জমি মালিকদের ফেরত দেননি। আবার কোনো চুক্তিও করেননি। জমির মালিকদের অভিযোগ, তাদের জমিতে তারা গেলে মিলন মেম্বর,  তার বড়ভাই ও ক্যাডাররা বেদম মারপিট করে হত্যার হুমকি দেয়। মামলা দিয়ে হয়রানি করে। প্রতিরাতে বোমার বিস্ফোরণ ঘটিয়ে ভীতি প্রদর্শন করে। যে কারণে একাধিকবার বিচার করে ব্যর্থ হয় উলাশীর চেয়ারম্যান আয়নাল হকসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ।
ভুক্তভোগীদের অভিযোগ, তাদের জমি ফেরত পেতে স্থানীয় মেম্বর, চেয়ারম্যান,ওসি, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, পুলিশ সুপার ও জেলা প্রশাসক বরাবর আবেদন করেও কোনো কাজ হয়নি। তারা জানান, সর্বশেষ এ ব্যাপারে ঝিকরগাছা উপজেলা চেয়ারম্যান ও ওসির নির্দেশে শান্তিপূর্ণভাবে মঙ্গলবার সকালে তারা গ্রামের মেম্বর ও  গণ্যমান্য ব্যক্তিদের সাথে নিয়ে তাদের জমিতে যায় ও  বেড়া দেয়। এ সময় মিলন মেম্বরের বড় ভাই শরিফুল ইসলাম পিপুলর নেতৃত্বে ভাইপো আশিক, ক্যাডার সোহেল, নাককাটি আসাদুল, ম্যানেজার শরীফ, বাবলুর রহমান, শামিমসহ অন্যান্য সন্ত্রাসীরা জমির মালিকদের ওপর অতর্কিত বোমা হামলা করে। পার্কে সন্ত্রাসীরা পরপর পাঁচটি বোমার বিস্ফোরণ ঘটায়।  এ সময় জমির মালিক জসিম, হবিবর ও চৌকিদার ইসরাফ আলী আহত হন। আহত জসিম ও হবিবর জানান মিলন মেম্বরের বড় ভাই পিপুল, আশিক, নাককাটি আসাদুল ও সোহেল তাদের বেদম মারপিট করেছে। এর আগেও সন্ত্রাসীরা মির্জাপুর গ্রামের প্রফেসর কামরুজ্জামান স্বপন, কালু, ফিরোজ, কেয়ামউদ্দিনসহ একাধিক ব্যক্তিকে মারপিট করেছে। এখন মির্জাপুর গ্রামের সাধারণ মানুষ উলাশী বাজারে আসতে পারছে না বলেও অভিযোগ উঠেছে।
 এ ব্যাপারে জানতে চাইলে পার্কের মালিক তরিকুল ইসলাম মিলন জানান, মালিকেরা তাদের জমি দখলে নিতে তার পার্ক ভাংচুর করেছে। তার কোনো লোকজন পার্কে ছিল না এবং বোমার বিস্ফোরণ করেনি।
এ ব্যাপারে মির্জাপুর ওয়ার্ডের মেম্বর আয়নাল হক জানান, মিলন মেম্বরের পোষা সন্ত্রাসীরা জমির মালিকদের ওপর বোমা হামলা করেছে। তারা সাধারণ মানুষের নামে ষড়যন্ত্রমূলক মামলা দিতে পার্কের কিছু মুর্তির ছবি ভাংচুর করে অন্যেও ঘাড়ে দোষ চাপাচ্ছে।
ঝিকরগাছা থানার ওসি আব্দুর রাজ্জাক বলেন, দীর্ঘদিন ধরে মিলন মেম্বর অনেকের জমি দখল করে রেখেছে। জমির মালিকেরা তাদের জমিতে আসলে উভয় পক্ষে সংঘর্ষের সৃষ্টি হয়। ঘটনা শুনে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এখন পরিবেশ শান্ত। তিনি আরো জানান, দখলি জমি নিয়ে আদালতে মামলা আছে। বিষয়টি তদন্ত করে সমাধান করা হবে।




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft