বুধবার, ২৩ অক্টোবর, ২০১৯
জাতীয়
‘খালেদাকে মুক্ত করতে রাজনৈতিক আন্দোলন গড়ে তুলবে বিএনপি’
কাগজ ডেস্ক :
Published : Friday, 5 July, 2019 at 3:15 PM
‘খালেদাকে মুক্ত করতে রাজনৈতিক আন্দোলন গড়ে তুলবে বিএনপি’খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে বিএনপি রাজনৈতিক আন্দোলন গড়ে তুলবে বলে জানিয়েছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বাংলাদেশ সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদ আয়োজিত এক প্রতীকী অনশনে তিনি এ কথা বলেন। সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত এ প্রতীকী অনশন অনুষ্ঠিত হয়।
‘বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি ও সুচিকিৎসার দাবি’ উপলক্ষে এ অনশন অনুষ্ঠিত হয়।
নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্য করে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে শুধু আইনি লড়াইয়ের উপরে আমাদের নির্ভর করলে চলবে না, সেই সাথে জনগণকে সঙ্গে নিয়ে রাজনৈতিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। সেই রাজনৈতিক আন্দোলনে সমস্ত জনগণকে সম্পৃক্ত করতে হবে।
তিনি জানান, আমরা ‘বিএনপি’ সারাদেশের মানুষকে ঐক্যবদ্ধ করার জন্য কাজ করছি। আর জনগণের ঐক্য নিয়েই আমরা সামনের দিকে এগুবো এবং আমরা এই সরকারের পতন ঘটাবো।
সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানিয়ে মির্জা ফখরুল বলেন, আমরা বারবার একই কথা বলছি যে, ঐক্যের কোন বিকল্প নেই। যে যেখানে আছি, সেখানে নিজেদেরকে শক্তিশালী করি, সংগঠনকে শক্তিশালী করি। জনগণের কাছে যাই। জনগণকে সঙ্গে নিয়ে ভয়াবহ এই দানব সরকারকে সরিয়ে সত্যিকার অর্থে একটি গণতান্ত্রিক ও কল্যাণকর রাষ্ট্র এবং গণতান্ত্রিক সরকার প্রতিষ্ঠিত করি।
তিনি বলেন, বর্তমান সরকার দখলদার সরকার, তারা জবরদখল করে ক্ষমতায় বসে আছে। এরা নির্বাচিত সরকার নয়। সমস্ত রাষ্ট্রযন্ত্রকে ব্যবহার করে জোর করে ক্ষমতায় বসে আছে। এই ক্ষমতা চিরস্থায়ী হতে পারে না। এই ক্ষমতা অবশ্যই শেষ হবে।
বিএনপি মহাসচিব বলেন, বর্তমান সরকার বাংলাদেশের সমস্ত প্রতিষ্ঠানগুলোকে একে একে ধ্বংস করে দিয়েছে। তারা বিচার বিভাগ, প্রশাসন ও মিডিয়াকে নিয়ন্ত্রণ করছে। আর তারা সেনাবাহিনীকেও নিয়ন্ত্রণ করার চেষ্টা করছে।
খালেদা জিয়া সাজার বিষয়ে তিনি বলেন, শুধুমাত্র রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে বেগম জিয়াকে সাজা দেওয়া হয়েছে। রাজনৈতিক প্রতিহিংসা কতটা যে, নিম্ন আদালত যেখানে তাকে ৫ বছরের সাজা দিয়েছিল, সেখানে উচ্চ আদালত সেই সাজা ১০ বছর করেছে! আর আজকে প্রমাণ হয়েছে যে, বেগম জিয়ার মামলা পরিচালনার ক্ষেত্রে এই বিচার বিভাগ স্বাধীন নয়।
বিচার বিভাগকে রাজনীতিকরণ ও দলীয়করণের কারণে আজকে সারাদেশের মানুষ অসহনীয় যন্ত্রণা ভোগ করছে বলেও মন্তব্য করেন ফখরুল।
পরে পেশাজীবী নেতাকর্মীদেরকে জুস ও পানি পান করে অনশন ভাঙ্গার জন্য অনুরোধ জানান মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।
আয়োজক সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক শওকত মাহমুদের সভাপতিত্বে অনশনে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, বিএনপি নেতা ফরহাদ হালিম ডোনার, হাবিবুর রহমান হাবিব, ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন, অধ্যক্ষ সেলিম ভূঁইয়া, ড্যাবের সভাপতি অধ্যক্ষ মো. হারুনুর রশিদ, সাংবাদিক নেতা রুহুল আমিন গাজী, কাদের গনি চৌধুরী প্রমুখ সংহতি প্রকাশ করে বক্তব্যে রাখেন।



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft