রবিবার, ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
মারকাজ মাদ্রাসায় তালা ভেঙে ক্লাশ শুরু
কাগজ সংবাদ :
Published : Saturday, 6 July, 2019 at 1:36 AM
মারকাজ মসজিদের খাদেমকে অবরুদ্ধ করে বহিরাগত একদল সন্ত্রাসী তান্ডব চালিয়ে মাদ্রাসার দশটি তালা ও শ্রেণিকক্ষ ভাংচুর করে সন্ত্রাসীরা দখলে নেয়ার চেষ্টা করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এসব অভিযোগ এনে যশোর তাবলিগ জামাতের সা’দ পক্ষের নেতারা প্রেস বিজ্ঞপ্তি দিয়েছেন। তারা অভিযোগ করেছেন, দীর্ঘদিন ধরে মাদ্রাসাটি নিয়ে তাবলিগ জামাতের দু’টি পক্ষের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। এ বিরোধের জেরে সম্প্রতি মাদ্রাসাটি বন্ধ রাখা হয়েছিল। এ বিষয় নিয়ে জেলা প্রশাসক দু’ পক্ষকে ডেকে মীমাংসার সিদ্ধান্ত নেন। তারা জেলা প্রশাসকের কাছে উপস্থিত হলের অপর পক্ষ মীমাংসায় না গিয়ে মোবাইল ফোনে নানা ধরনের ভয়ভীতি দিয়ে জোর করে মাদ্রাসা দখলের হুমকি দেয়। এক পর্যায়ে তারা বিষয়টি নিয়ে পুলিশ সুপারের স্মরণাপন্ন হয়। পুলিশ সুপার দু’পক্ষকে ডাকলে অপরপক্ষ যেতে অপরাগতা প্রকাশ করে। ফের সন্ত্রাসীদের দিয়ে হুমকি অব্যাহত রাখে প্রতিপক্ষ। এর মধ্যে শুক্রবার জুম্মাবাদ বহিরাগত সন্ত্রাসী সিয়ামসহ তার একদল সহযোগী মারকাজ মসজিদের খাদেম আবুল কাসেমকে প্রথমে হত্যার হুমকি দেয়। পরে তাকে একটি রুমে অবরুদ্ধ করে মাদ্রাসার তালা ভেঙে শ্রেণিকক্ষে তান্ডব চালায়। এবং সিয়াম তাদের দখলে নেয়ার চেষ্টা চালায়। বিষয়টি জানতে পেরে তারা তাৎক্ষণিক জানালে প্রশাসনের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে। সা’দ পন্থী নেতারা আরো অভিযোগ করেন, ওই এলাকার সিয়াম তাবলিগ জামাতের কেউই না। সে মূলত তাবলিগ জামাতের অপরপক্ষের হয়ে সন্ত্রাসী ভূমিকা পালন করছে। তার মূল উদ্দেশ্য মারকাজের জমি দখল করে তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান মাহিন্দ্র র‌্যাংসের শোরুম প্রতিষ্ঠা করা। এজন্যে সিয়ামসহ বড়কারী নাজমুল হোসেন, মাওলানা আজহার, মুফতি মাজেদুল হক, মুফতি মাকছুদসহ এলাকার কিছু সন্ত্রাসী অস্ত্র প্রদর্শন করে মারকাজের পরিবেশ নষ্ট করছে। এ ধরনের ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন  মারকাজের শুরা সদস্য ওবাইদুল হক, আব্দুল বারী, মোজ্জাম্মেল হক, খাইরুল আলম ও আব্দুর রহমান। একই সাথে তারা সিয়ামকে গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়ে মারকাজ মাদ্রাসা ও জমি রক্ষার্থে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।
যারা তালা ভেঙেছে তাদের বক্তব্য, যারা বর্তি হয়েছে তাদের পড়ার পরিবেশ তৈরি করা হয়েছে।
এ বিষয়ে কোতোয়ালী থানার অফিসার্স ইনচার্জ (ভারপ্রাপ্ত) সমীর কুমার সরকার জানান, তাবলিগ জামাতের দু’টি গ্রুপের দ্বন্দ্ব বহুদিন ধরে চলে আসছে। এরই ধারাবাহিকতায় আজ এ ধরনের পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। পরিস্থিতি এখন তাদের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে এবং মারকাস এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে বলে তিনি জানান।
রাত ১০টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত সা’দ পন্থীরা মামলা করতে কোতোয়ালী থানায় অবস্থান করছিল। 




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft