রবিবার, ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
নওয়াপাড়ায় ছাত্রলীগ নেতার ওপর হামলাকারীরা প্রকাশ্যে : মামলা তুলে নিতে হুমকি
কাগজ সংবাদ :
Published : Sunday, 7 July, 2019 at 1:14 AM
নওয়াপাড়া পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি কামরুজ্জামান মিলনকে কুপিয়ে জখমের ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ গত ৫ দিনে কাউকে আটক করতে না পারায় ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। সন্ত্রাসী আটক না হওয়ায় ছাত্রলীগ নতুন কর্মসূচি ঘোষণা করেছে। এদিকে, মামলা তুলে নিতে আহত মিলনের পিতাকে হুমকি দিচ্ছে সন্ত্রাসীরা। বর্তমানে তারা এলাকায় প্রকাশ্যে ঘোরাফেরা করছে।
গত ২ জুলাই বিকালে নওয়াপাড়া পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি কামরুজ্জামান মিলনকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে জখম করে সন্ত্রাসীরা। এ ঘটনার প্রতিবাদে অভয়নগর উপজেলা, নওয়াপাড়া পৌর ও কলেজ শাখা ছাত্রলীগ প্রতিবাদ সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল করে। বিক্ষোভ মিছিলে সন্ত্রাসীরা বোমা ও গুলিবর্ষণ করে। এরপর আহত ছাত্রলীগ নেতা কামরুজ্জামানের পিতা ইমান আলী বিশ্বাস বাদি হয়ে গত ৩ জুলাই ৮ জনের নাম উল্লেখ করে অভয়নগর থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলা নং-৪। আসামিরা হলো, বিল্লাল আহমেদ বাবু, শাহা আলম, রিপন গাজী, মুরাদ হোসেন, মানুসহ কয়েকজন। 
বাদি ইমান আলী জানান, মামলা করে বাড়ি ফেরার পথে নূরবাগ নামক স্থানে পৌছালে আসামি বিল্লাল আহমেদ বাবু, শাহা আলম, হুদয় ও মানু তাকে প্রকাশ্যে মামলা তুলে নিতে ভয়ভীতি দেখায়। মামলা না তুলে নিলে ছেলের মত পরিণতি ঘটবে বলে শাসিয়ে তারা চলে যায়। এ ঘটনার পর থেকে বাদি ও তার পরিবার নিরাপত্তাহীনতায় দিন কাটাচ্ছে। তিনি আরো বলেন, আসামিরা নওয়াপাড়া স্টেশন বাজার এলাকায় প্রকাশ্যে দাপিয়ে বেড়ালেও পুলিশ বলছে তাদেরকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। এ কারণে পুলিশের ভূমিকা নিয়ে তিনি ও তার পরিবারের সদস্যরা আতঙ্কিত।  
যশোর জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি রওশন ইকবাল শাহী বলেন, গত ৫ দিনেও নওয়াপাড়া পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি মিলনের উপর হামলাকারীদের আটক করতে না পারায় পুলিশের ভূমিকা প্রশ্নবিদ্ধ হয়ে উঠেছে। মিলনের উপর হামলার প্রতিবাদে ছাত্রলীগের বিক্ষোভ মিছিলে হামলার ঘটনার তদন্তপূর্বক দায়িদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়ে প্রেস বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দ।   
অভয়নগর উপজেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক শাহ্ খালিদ মামুন বলেন, মিলনের উপর হামলার ঘটনার পর থেকে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা নিয়মতান্ত্রিকভাবে আন্দোলন সংগ্রাম করে আসছিল। অভয়নগর থানার ওসি মোয়াজ্জেম হোসেন আসামিদেরকে ৪৮ ঘন্টার মধ্যে আটকের প্রতিশ্রুতি দিলে ছাত্রলীগ তাদের আন্দোলন স্থগিত করে। কিন্তু এ ঘটনার ৫ দিন অতিবাহিত হলেও কোন আসামিকে পুলিশ আটক করতে না পারায় ছাত্রলীগ রবি ও সোমবার নতুন করে আন্দোলনের কর্মসূচি ঘোষণা করতে বাধ্য হয়েছে। রোববার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্রতিবাদ সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল এবং সোমবার অবস্থান কর্মসূচি পালন করা হবে। 
এ ব্যাপারে অভয়নগর থানার ওসি মোয়াজ্জেম হোসেনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমি এখন ঢাকায়। আসামি আটকে অভিযান অব্যাহত আছে। দু’একদিনের মধ্যে ভালো ফলাফল দেখতে পাবেন।  




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft