বৃহস্পতিবার, ২৮ মে, ২০২০
সারাদেশ
খানসামায় আমন ধানের রোপনে ধুম পড়েছে
এসকে.এম তারিকুল ইসলাম চৌধুরী, খানসামা (দিনাজপুর) প্রতিনিধি :
Published : Saturday, 13 July, 2019 at 3:02 PM
খানসামায় আমন ধানের রোপনে ধুম পড়েছেদিনাজপুর খানসামার কৃষকরা চলতি বর্ষা মৌসুমে রোপা আমন ধানের চারা রোপনের ধুম পড়েছে। বিভিন্ন এলাকার কৃষক ধান চাষের পুর্ব প্রস্তুতি নিতে ব্যস্ত সময় পাড় করেছেন। এ সময় খানসামার কৃষক ও কামলাদের দম ফেলার ফুরসত নেই। কৃষক ফজরের আযান দেয়ার সঙ্গে সঙ্গেই হালের গরু, লাঙ্গল, জোঙ্গাল নিয়ে বেড়িয়ে পড়ে জমিতে হাল দেয়া জন্যে। এ সময় গরুর হাল ছাড়াও পাওয়ার টিলার,হ্যারো হাল দিয়ে তিন থেকে পাচঁ বার করে হাল দিয়ে জমি প্রস্তুত করে নেন কৃষকেরা।
জমিতে হাল দিয়ে অনেক কৃষক সপ্তাহ খানেক বা তারও বেশি সময় ধরে অপেক্ষা করে। একে বলে জাবর। জমিতে জাবর দিয়ে রাখার কারন হলো পূর্বের বোরো ধানের খরের নাড়াগুলো যাতে পচেঁ যায়। বাড়তি জৈব সারের চাহিদা ধানের খরের পচাঁ নাড়া হতে চলে আসে। এ সময় কারো কারো বীজতলায় আগাম ধানের চারা সপ্তাহ খানেক আগেই বপনের জন্য প্রস্তুত হয়েছে আর কারো বা সপ্তাহ পরে।
বিভিন্ন এলাকায় লক্ষ্য করা গেছে অনেক কৃষক ৭-১০দিন আগেই জমি প্রস্তুত করে রোপা ধানের চারা রোপনও করেছেন। এ চলতি বর্ষা মৌসুমে উঁচু শহরি জমিগুলোতে স্যালো মেশিন দিয়ে সেচ দিয়ে অনেক কৃষক রোপা আমন ধান রোপন করতে ব্যস্ত। এ মওসুমে কাজের ধুম, যেন কাজ গুলো তাড়াতাড়ি শেষ হতেই চায় না। এ উপজেলায়  রোপা আমন ধানের রোপনের সমস্ত কাজ চুক্তি ভিত্তিতে কামলারা কৃষকদের করে দিয়ে থাকেন। বিঘা প্রতি(৫০শতাংশে) ৮শত’- ১৪শত টাকা করে নিয়ে  ধান রোপনের সমস্ত কাজ করে দিয়ে থাকেন কামলারা। আবার অনেক কৃষক নিজেই ধানের চারা রোপন করে থাকেন।
রোপা আমনের রোপন নিয়ে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আফজাল হোসেন বলেন কৃষক একটু সচেতন হলে এবং কৃষি পরামর্শ নিয়ে সারিবদ্ধ ভাবে ধান রোপন করলে আরো ভালো ধানের ফলন হবে। 



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft