শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর, ২০১৯
সারাদেশ
পাবনায় ৬ দিনে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত ৬০ জন
পাবনা প্রতিনিধি :
Published : Sunday, 28 July, 2019 at 8:39 PM
পাবনায় ৬ দিনে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত ৬০ জনপাবনা জেনারেল হাসপাতালে রবিবার (২৮ জুলাই) দুপুর পর্যন্ত আরও ১২ রোগী ভর্তি হয়েছেন। এ নিয়ে গত ছয় দিনে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে ডেঙ্গু আক্রান্ত ২৯ রোগীকে ভর্তি করা হল।
এছাড়া শহরের বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতাল এবং ক্লিনিকে গত এক সপ্তাহে আরও অন্তত ৩০ জন রোগী চিকিৎসা নিয়েছেন। সব মিলে ছয় দিনে কমপক্ষে ৬০ জন ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়েছেন। রবিবার ভর্তিকৃতদের মধ্যে এক শিশু ও এক নারী রয়েছেন। ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা আশঙ্কাজনক ভাবে বেড়ে চললেও পাবনা জেনারেল হাসপাতালে ডেঙ্গু পরীক্ষার কিটস এখনো পাওয়া যায়নি। এ নিয়ে সংশ্লিষ্টরা উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন।
হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ডেঙ্গু পরীক্ষা করার প্রয়োজনীয় কিটস বা প্রযুক্তি সরবরাহের জন্য জরুরি বার্তা পাঠালেও রবিবার দুপুর পর্যন্ত তা পাওয়া যায়নি।
পাবনা জেনারেল হাসপাতালের সহকারী পরিচালক রঞ্জন কুমার দত্ত রবিবার নতুন ১২ রোগী ভর্তির সত্যতা স্বীকার করে জানান, ডেঙ্গুতে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পেলেও ২৫০ শয্যার পাবনা জেনারেল হাসপাতালে ডেঙ্গু পরীক্ষার কোনো ব্যবস্থা নেই। বাইরে থেকে ডেঙ্গু রোগীদের পরীক্ষা করার পর পাবনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
তবে এই হাসপাতালে চিকিৎসার কোনো ব্যত্যয় হচ্ছে না উল্লেখ করে সহকারী পরিচালক বলেন, ইতোমধ্যে তিনি ১১ সদস্যের একটি মনিটরিং সেল গঠন করেছেন। চিকিৎসকরা রোগীদের সুচিকিৎসা দেওয়ার আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। হাসপাতাল পরিদর্শন করে জানা গেছে, রবিবার দুপুর ১২টা পর্যন্ত নতুন করে ১২ রোগী ভর্তি হয়েছেন। এর আগে শনিবার একদিনে ১৫ রোগী ভর্তি হন।
পাবনা জেনারেল হাসপাতালের আরএমও এবং বিএমএর জেলা সাধারণ সম্পাদক ডা. আকসাদ আল মাসুর আনন জানান, গত ২৩ জুলাই থেকে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে ডেঙ্গু রোগী ভর্তি শুরু হয়। আজ পর্যন্ত ২৯ জন ভর্তি হয়েছেন। তিনি জানান, নতুন রোগীর সংখ্যা বাড়লেও এদের অধিকাংশই ঢাকা থেকে ফেরত এসেছেন। অর্থাৎ তারা ঢাকায় থাকতেই ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে পাবনায় আসেন।
এদিকে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, পাবনা জেনারেল হাসপাতালের বাইরেও শহরের একাধিক বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিকে গত এক সপ্তাহে আরও কমপক্ষে ৩০ রোগী চিকিৎসা নেন। অনেকেই এসব বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি আছেন।
পাবনার সিভিল সার্জন ডা. মির্জা মেহেদী ইকবাল বলেন, খুব একটা উদ্বেগের কারণ নেই। কেননা পাবনায় কোনো এডিস মশার সন্ধান পাওয়া যায়নি। যারা ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছে তারা সবাই ঢাকা ফেরত। তারপরও আমরা প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা নেওয়ার চেষ্টা করছি।




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft