বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর, ২০১৯
স্বাস্থ্যকথা
৫০ লাখ টেস্ট কিটস আসছে
ঢাকা অফিস :
Published : Saturday, 3 August, 2019 at 6:34 AM
৫০ লাখ টেস্ট কিটস আসছেডেঙ্গুর বিস্তার রোধ ও পর্যাপ্ত চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করতে সরকারের পক্ষ থেকে সমন্বিত উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। তিনটি হাসপাতালে শয্যাসংখ্যা বাড়ানো, কিটস আমদানি, মশার ওষুধ আমদানি, চিকিৎসাসেবায় অতিরিক্ত জনবল নিয়োগসহ স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে ক্যাম্পেইন প্রোগ্রাম হাতে নেয়া হয়েছে। পাশাপাশি ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে সামাজিক সচেতনতা, মশা নিধনসহ অনেকগুলো কর্মসূচি হাতে নেয়া হয়েছে।
রাজধানীসহ সারা দেশে এডিস মশাবাহিত ডেঙ্গু রোগের প্রকোপ আশঙ্কাজনক হারে বেড়ে যাওয়ায় সরকারি নির্দেশ ও সহযোগিতায় টেস্ট কিটস আমদানিকারকরা জরুরি ভিত্তিতে এই বিপুলসংখ্যক টেস্ট কিটস আমদানি করবেন।
স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয় ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের একজন কর্মকর্তা বলেন, চলতি বছর ডেঙ্গুর ধরন ( স্ট্রেইন) পরিবর্তিত হওয়ায় জনমনে একধরনের আতঙ্ক বিরাজ করছে। জ্বর হলেই মানুষ এখন ডেঙ্গু টেস্ট করাতে হাসপাতালে ছুটছে। হঠাৎ হাজার হাজার মানুষ ডেঙ্গু টেস্ট করায় এক শ্রেণির অসাধু ব্যবসায়ী ডেঙ্গু টেস্ট কিটসের দাম বাড়িয়ে দিয়েছেন। এ ছাড়া চাহিদা বেশি থাকায় বাজারে ডেঙ্গু টেস্ট কিটসের সংকট সৃষ্টি হচ্ছে। এমতাবস্থায় যেকোনো ধরণের জরুরি অবস্থা মোকাবিলায় আমদানিকারকদের সঙ্গে বৈঠক করে এক সপ্তাহের মধ্যে নতুন আমদানি ও আগের মজুদ মিলিয়ে মোট ৫০ লাখ ডেঙ্গু টেস্ট কিটস মজুদ করতে বলা হয়েছে।
স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয় ইতিমধ্যেই সরকারি মেডিকেল কলেজে জ্বরের রোগীদের জন্য ডেঙ্গুর সব ধরনের টেস্ট বিনামূল্যে এবং বেসরকারি হাসপাতাল, ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারে ডেঙ্গু টেস্টের বিভিন্ন ফি নির্ধারণ করে দিয়েছে।
স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ বলেন, ডেঙ্গু পরিস্থিতি মোকাবিলায় জ্বরের রোগীদের ডেঙ্গু টেস্ট করা জরুরি হয়ে পড়েছে। এ কারণে টেস্ট কিটসের যেন সংকট কিংবা দাম না বাড়ে, সে জন্যে পর্যাপ্ত সংখ্যক কিটস মজুদের জন্যে আমদানিকারকদের নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে।
আইইডিসিআরের পরিচালক মীরজাদী সেবরিনা ফ্লোরা বলেন, এ বছর দ্বিতীয় দফায় ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত রোগী বাড়বে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। দ্বিতীয় দফায় আক্রান্তদের অবস্থা জটিল হয়। চিকিৎসকদের প্রথমবার ডেঙ্গুতে আক্রান্তদের ব্যবস্থাপনার অভিজ্ঞতা আছে। তবে দ্বিতীয় দফায় আক্রান্তদের ক্ষেত্রে সবার হয়তো তা নেই। তাই কমিটি প্রশিক্ষণের ওপর বিশেষ গুরুত্ব দিয়েছে।
এ ব্যাপারে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিসিন অনুষদের সাবেক ডিন এ বি এম আব্দুল্লাহ বলেন, ডেঙ্গুতে দ্বিতীয় দফায় আক্রান্ত হওয়ার বিষয়টি নতুন নয়। তবে এবার হয়তো সংখ্যাটা বাড়বে। নতুনদের অবশ্যই প্রশিক্ষণ দরকার। তবে ডেঙ্গু যেভাবে ছড়াচ্ছে, তাতে এই প্রশিক্ষণ ঢাকার বাইরে দরকার বেশি।
স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ বলেন, রাজধানী ঢাকার চারটি বিশেষায়িত হাসপাতাল ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্তদের জন্য বিনামূল্যে রক্ত থেকে প্লাটিলেট সংগ্রহ করে দেবে। স্বাস্থ্য মহাপরিচালক জানান, রোগীরা নিজেরা বা সন্ধানীর মতো রক্ত পরিসঞ্চালনে সহায়তায় ডোনার নিয়ে এসব হাসপাতালে গেলে তারা বিনামূল্যে রক্তের প্লাটিলেট আলাদা করে দেবে। তিনি বলেন, ডেঙ্গু চিকিৎসা গাইডলাইন অনুসারে প্লাটিলেট প্রয়োজন হলেই কেবল বিনামূল্যে এ পরীক্ষার সুযোগ দেয়া হবে।
স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের একজন যুগ্ম সচিব বলেন, ‘কোরবানির ঈদের সময় ডেঙ্গুর প্রকোপ আরো বাড়বে’-আইসিডিডিআর’বির এই গবেষণা এবং লন্ডন থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনার পর গত তিন দিন থেকে সরকার ডেঙ্গু নিয়ে বেশি তৎপরতা শুরু করেছে। তিনি বলেন, মশা নিধন ও ডেঙ্গু বিস্তারের জন্য দুই সিটির মেয়রের ওপর ক্ষুব্ধ মন্ত্রণালয়। এর মধ্যে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর বক্তব্য ‘এডিস মশা রোহিঙ্গাদের মতো বাড়ছে’ এবং এই সময় স্বাস্থ্যমন্ত্রীর বিদেশ সফরেও ক্ষুব্ধ হয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।
এদিকে, আওয়ামী লীগের একজন প্রেসিডিয়াম সদস্য নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেছেন, ডেঙ্গু নিয়ে উল্টাপাল্টা মন্তব্য করায় চাপে রয়েছেন সাঈদ খোকন। দুই মেয়র আর স্বাস্থ্যমন্ত্রীর ওপর ক্ষুব্ধ নেত্রী (শেখ হাসিনা)। তিনি লন্ডন থেকে এদের ফোন করে ধমক দিয়েছেন। এ ছাড়া মন্ত্রী, এমপি ও দলের নেতাকর্মীরা বিষয়টি নিয়ে বিরক্ত। মন্ত্রণালয় ও আওয়ামী লীগ থেকে পাওয়া তথ্যমতে, ডেঙ্গুর বিস্তার রোধ এবং পর্যাপ্ত চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করতে সরকার ও দল তিন দিন ধরে ব্যাপক তৎপরতা শুরু করেছে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসাসেবার জন্যে খোলা ১৫০ শয্যার ডেঙ্গু সেলকে ২০০ শয্যায় উন্নীত করা হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গু সেলে ২৪২ জন রোগী চিকিৎসা নিয়েছেন।
বিশ্ববিদ্যালয়ের বি-ব্লকের ডা. মিল্টন হলে ডেঙ্গু সেলের কার্যক্রম সম্পর্কিত এক প্রেস ব্রিফিংয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. মুহাম্মদ রফিকুল আলম বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের বহির্বিভাগে ২৯ থেকে ৩১ জুলাই পর্যন্ত তিন দিনে ৫ শতাধিক ডেঙ্গু রোগী চিকিৎসা নিয়েছেন। তিনি আরও বলেন, রোগীদের চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করতে শয্যাসংখ্যা ১৫০ থেকে ২০০ শয্যায় উন্নীত হয়েছে। ডেঙ্গু সেলের মাধ্যমে ভর্তি রোগীদের পরীক্ষা-নিরীক্ষা, ওষুধ, চিকিৎসাসেবা, বেড ভাড়া এমনকি আইসিইউ ও এইচডিইউ সেবাও বিনামূল্যে দেয়া হচ্ছে। এ ছাড়া ডেঙ্গু সেলে আসা রোগীদের প্রাথমিকভাবে সিবিসি, এনএস১, আইজিএম, আইজিএম ও আইজিজি বিনামূল্যে করা হচ্ছে।
বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ আতিকুর রহমান বলেন, ডেঙ্গু রোগীদের চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করতে জরুরি ভিত্তিতে ৬০টি উন্নতমানের শয্যা কেনা হয়েছে। ডেঙ্গু রোগীদের জন্যে এ পর্যন্ত ১০ লক্ষাধিক টাকার পরীক্ষা-নিরীক্ষা ও ওষুধ বিনামূল্যে দেয়া হয়েছে। এদিকে ডেঙ্গু গুজব বিষয়ে সচেতনতামূলক ও বন্যাকবলিত দুর্গত মানুষের সাহায্যের আবেদনমূলক বক্তব্য রাখতে সারা দেশের খতিব ও ইমামদের অনুরোধ জানিয়েছেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট শেখ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ।




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft