শুক্রবার, ০৬ ডিসেম্বর, ২০১৯
জাতীয়
বঙ্গবন্ধু হত্যার সাথে জড়িত বিদেশিদের বিচারের দাবি নানকের
কাগজ ডেস্ক :
Published : Saturday, 3 August, 2019 at 8:21 PM
বঙ্গবন্ধু হত্যার সাথে জড়িত বিদেশিদের বিচারের দাবি নানকেরজাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ তার পরিবারের সদস্যদের হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িত দেশীয় ষড়যন্ত্রকারীদের পাশাপাশি আন্তর্জাতিক যড়যন্ত্রকারীদের মুখোশ উন্মোচন করে বিচারের দাবি জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক।
শনিবার দুপুরে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন বাংলাদেশ (আইইবি) সদর দপ্তরে এবং ঢাকা কেন্দ্রের যৌথ উদ্যোগে আইইবি সেমিনার কক্ষে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ৪৪তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষ্যে আয়োজিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তেব্য তিনি এ কথা বলেন।
নানক বলেন, আগস্ট মাস এলেই শুধু শোকাবহ নয়, আমরা বাঙালি জাতি আতঙ্কিত হই। এই আগস্ট মাস এলেই মনে পড়ে ৭৫’র ১৫ই আগস্টের কথা। আগস্ট মাস এলেই মনে পড়ে খালেদা-নিজামীদের চার দলীয় জোট ক্ষমতার আমলে ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট গ্রেনেট হামলার কথা। সেসময় শেখ হাসিনাসহ আওয়ামী লীগের জাতীয় নেতৃবৃন্দকে হত্যা করে আবার তারা ক্ষমতা দখল করে এদেশকে পাকিস্তান বানানোর ষড়যন্ত্র করেছিলো। আজকে বঙ্গবন্ধু হত্যার সাথে যার জড়িত তাদের বিচার শেখ হাসিনার নেতৃত্বে হয়েছে। এবারের ১৫ আগস্টে আমাদের উদাত্ত আহ্বান থাকবে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক যড়যন্ত্রকারীদের মুখোশ উন্মোচন করে বিচারের আওতায় আনতে হবে।
তিনি বলেন, যড়যন্ত্র হচ্ছে, যড়যন্ত্র চলছে। আজকে যখন বাংলাদেশে পদ্মা সেতুর কাজ এগিয়ে চলেছে তখন অপপ্রচার চালায় মানুষের কল্লা লাগবে। আজকের বাংলাদেশে একটি মা যখন তার সন্তানকে স্কুলে ভর্তি করাতে যায় তখন অপপ্রচারকারী, ষড়যন্ত্রকারীদের হাতে পিটুনি খেয়ে লাশ হয়ে ফিরে আসে। কাজেই এই ষড়যন্ত্রকে আমাদের মোকাবেলা করতে হবে।
আওয়ামী লীগের এ নেতা বলেন, আমরা যদি ষড়যন্ত্রের মোকাবেলা করতে না পারি তাহলে আমাদের সাথে যে দুই বিষধর সাপ (বিএনপি-জামায়াত) চলছে তারা সুযোগ পেলেই আমাদের ছোবল দেবে। এই বিষধর সাপ দুটি আমাদের গণজাগরণ দেখলেই গর্তে ঢুকে যায়। এই বিষধর সাপদের সমাজ থেকে বিচ্ছিন্ন করে দিতে হবে। বিএনপি-জামায়াতকে রাজনৈতিক মাঠ থেকে বিচ্ছিন্ন করে দিতে হবে।
ডেঙ্গু প্রতিরোধে সরকার, আওয়ামী লীগ এবং সহযোগী সংগঠনগুলো একযোগে কাজ করছে জানিয়ে নানক বলেন, ডেঙ্গুতে ফিলিপাইনে লক্ষাদিক মানুষ আক্রান্ত হয়েছে। ৫০০ মানুষ সেখানে মারা গেছে। চীনের মত দেশে ডেঙ্গুর প্রাদুর্ভাবে দেখা দিয়েছে। যখন ডেঙ্গুর কথা আসে তখন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, দেখে নাকি জরুরী অবস্থা জারী করতে হবে। কি কারণে দেশে জরুরী অবস্থা জারী করতে হবে? বাংলাদেশের মানুষ এখন সচেতন। বাংলাদেশের সকল শ্রেণী পেশার মানুষেরা সকল সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠন ঐক্যবদ্ধভাবে ডেঙ্গু মোকাবেলায় ঝাঁপিয়ে পড়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রতিটি মূহুর্তে লন্ডন থেকে খবর রাখছেন। নিদের্শনা দিচ্ছেন সেই নির্দেশনা অনুযায়ী আমরা কাজ চালিয়ে যাবো। যেভাবে আমার জঙ্গীবাদকে মোকাবেলা করেছি, জনগনের সহযোগীতায় এই মরণব্যাধি ডেঙ্গুকেও আমারা পরাজিত করবো।
অনুষ্ঠানে আইইবি ঢাকা কেন্দ্রের সম্পাদক প্রকৌশলী শাহাৎ হোসেন শিবলুর সঞ্চালনায় সভাপতিত্ব করেন, ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন, বাংলাদেশ (আইইবি)’র প্রেসিডেন্ট এবং আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক প্রকৌশলী মো. আবদুস সবুর।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আ.ফ.ম বাহাউদ্দিন নাছিম। এছাড়া অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, আইইবির সম্মানী সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী খন্দকার মনজুর মোর্শেদ, ভাইস-প্রেসিডেন্ট প্রকৌশলী নুরুজ্জামান, বঙ্গবন্ধু প্রকৌশলী পরিষদের সভাপতি অধ্যাপক ড. হাবিবুর রহমান, আইইবির সাবেক প্রেসিডেন্ট প্রকৌশলী নুরুল হুদা প্রমুখ।




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft