রবিবার, ১৭ নভেম্বর, ২০১৯
দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
আদালতের নির্দেশ অমান্য করে কেশবপুরে জমি দখল করে পাঁকা ঘর নির্মাণের অভিযোগ
কেশবপুর (যশোর) প্রতিনিধি :
Published : Thursday, 5 September, 2019 at 6:54 AM
আদালতের নির্দেশ অমান্য করে কেশবপুরে জমি দখল করে পাঁকা ঘর নির্মাণের অভিযোগ কেশবপুরে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে তিন অসহায় পরিবারের সাত শতক জমি জোরপূর্বক দখল করে পাঁকা ঘর নির্মাণের কাজ চালানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে। ওই কাজ বন্ধের জন্য মোস্তাক মোড়ল বাদী হয়ে চার জনের বিরুদ্ধে গত ২৬ আগস্ট কেশবপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সাগরদাঁড়ি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বরাবর লিখিত অভিযোগ করেন।
অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার চিংড়া গ্রামের জব্বার মোড়লের ছেলে মোস্তাক মোড়ল, আব্দুল মান্নান মোড়ল ও প্রতিশেী ইসলাম আলী মোড়লের ছেলে মাহমুদুল হাসান একই গ্রামের মৃত তোফাজ্জেল সরদারের ছেলে রেজাউল ইসলাম, রবিউল ইসলাম, মহিদুল হাসান, আরিজুল ইসলামের কাছ থেকে ২০০৬ সালে ৯ অক্টোবর চিংড়া ৪১ মৌজার ১৩৬৬ আরএস খতিয়ানে ২২৯৮ আরএস দাগের নয় শতক বাগান ও ২৩০০ আরএস দাগের ছয় শতক বাস্ত জমি কবলা দলিল হিসেবে ক্রয় করেন। যার কবলা দলিল নং- ৪২৪৩, তারিখ ২৭/১১/০৬।
অভিযোগে আরো জানানো হয়, ১৫ শতক জমি ক্রয়ের মধ্যে মোস্তাক মোড়ল, আব্দুল মান্নান মোড়ল ও মাহমুদুল হাসান আট শতক জমি ভোগ-দখল করে আসছে। বিক্রি করে দেয়ার পরও বাকি সাত শতক জমি গায়ের জোর খাঁটিয়ে রেজাউল ইসলাম, রবিউল ইসলাম, মহিদুল হাসান, আরিজুল ইসলাম মিলে জোরপূর্বকভাবে তাদের দখলে রাখে। সাত শতক জমি দখল করে রাখার ঘটনায় মোস্তাক মোড়ল বাদী হয়ে বিজ্ঞ অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট যশোর আদালতে দখলকারীদের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন। যার নম্বর-৮৩৫। তারিখ-০৪/৮/১৯।
মামলার ঘটনায় জমি দখলকারীরা বেপরোয়া হয়ে উঠে ওই সাত শতক জমি দখল না ছেড়ে বিভিন্ন প্রকারের হুমকি প্রদান করেন জমি গ্রহীতাদের। এ ঘটনায় মোস্তাক মোড়ল বাদী হয়ে চার জনের বিরুদ্ধে বিজ্ঞ অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কেশবপুর আমলী আদালতে আরো একটি মামলা করেন। এর কিছুদিন পর দখলদারীরা ওই সাত শতক জমির উপর জোরপূর্বকভাবে ঘর নির্মাণ করতে শুরু করে। এই ঘটনায় আব্দুল মান্নান মোড়ল বাদী হয়ে চার জনের বিরুদ্ধে যশোর অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ১৪৪ ধারার আবেদন জানিয়ে একটি মামলা দায়ের করেন। যার মামলা নং-৯১২। তারিখ-১/৯/১৯।
এ ঘটনায় মোস্তাক মোড়ল, আব্দুল মান্নান মোড়ল ও মাহমুদুল হাসান সাংবাদিকদের জানান, ‘১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে গায়ের জোর খাঁটিয়ে সাত শতক জমির উপরে জোরপূর্বক রেজাউল ইসলাম, রবিউল ইসলাম, মহিদুল হাসান, আরিজুল ইসলাম মিলে শ্রমিক দিয়ে পাঁকা ঘর নির্মাণের কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। এ সময় আমরা ঘর নির্মাণের কাজের বন্ধের কথা বলা মাত্রই দখলদাররা বেপরোয়া হয়ে আমাদের মারপিট করে আহত করে’।
এ ব্যাপারে আরিজুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, ‘আমরা মোস্তাক, মান্নান, মাহমুদুল হাসানের জমি দখল করে পাকা ঘর নির্মাণ করছি না। ওই জমিটা রেজাউল ইসলামের থাকায় সে পাকা ঘর নির্মাণের কাজ করছে’।
এ বিষয়ে চিংড়া পুলিশ ফাঁড়ির সহকারি উপপরিদর্শক মুরাদ শেখের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘পাকাঘর নির্মাণ করার ঘটনায় আব্দুল মান্নান বাদী হয়ে দখলদারদের বিরুদ্ধে আদালতে ১৪৪ ধারা একটি মামলা দায়ের করেছে। মঙ্গলবার ঘটনাস্থলে গিয়ে পাকাঘর নির্মাণের কাজ বন্ধের নির্দেশ দেয়া হয়েছে’।



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft