সোমবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
সম্পাদকীয়
রোহিঙ্গাদের অবৈধ সিমকার্ড কি কোনো বিপদ ডেকে আনছে?
Published : Monday, 9 September, 2019 at 6:33 AM
সাম্প্রতিক সময়ে রোহিঙ্গাদের নানা ইস্যু নিয়ে তৈরি হয়েছে আলোচনা-সমালোচনা, দেখা দিয়েছে নানা নিরাপত্তা বিষয়ক উদ্বেগ। দেশের স্বাভাবিক নাগরিকদের মতো রোহিঙ্গাদের হাতে হাতে দেখা যাচ্ছে দামি স্মার্টফোনসহ সিমকার্ড। জাতীয় পরিচয়পত্র, স্মার্টকার্ড ও পাসপোর্ট পর্যন্ত পাওয়া যাচ্ছে রোহিঙ্গাদের কাছে।
বাংলাদেশি জাতীয় পরিচয়পত্র ছাড়া মোবাইল ফোনের সিম কেনার সুযোগ না থাকার উপরে জাতীয় পর্যায়ে কড়াকড়ি বাধ্যবাধকতা থাকার পরেও রোহিঙ্গারা কীভাবে সিমকার্ড তুলতে পারছেন, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। মোবাইল অপারেটরদের বিক্রয় চ্যানেলের মাধ্যমে কৌশলে ওইসব সিম বেশি দামে রোহিঙ্গাদের কাছে বিক্রি হচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। বিভিন্ন অপরাধ কার্যক্রমের সময় আটক ও আহত-নিহত রোহিঙ্গা অপরাধীদের কাছে অস্ত্রের পাশাপাশি মোবাইল ফোন উদ্ধার হওয়াটা স্বাভাবিক বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। বিষয়গুলো খুবই উদ্বেগের।
এই অবস্থায় রোহিঙ্গা শরনার্থীদের মোবাইল ব্যবহার বন্ধ করতে কক্সবাজার প্রশাসন এবং পুলিশের প্রত্যক্ষ সহায়তা চেয়েছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)। স্থানীয় প্রশাসনও টেলকো অপারেটরদের সঙ্গে বৈঠক করে এই বিষয়ে সতকর্তা জারি করেছে। শনিবার উপজেলা প্রশাসন জরুরি বৈঠকে এ বিষয়ে সতর্কতা জারি করেন। এবিষয়ে শীঘ্রই অভিযান চলবে বলেও জানানো হয় বৈঠকে। বিষয়টি ইতিবাচক বলে আমাদের মনে হয়েছে।
রোহিঙ্গারা বাংলাদেশে আসার দুইবছরপূর্তিতে স্বল্প সময়ের মধ্যে লাখ রোহিঙ্গার সমাবেশের যোগাযোগ মোবাইলের মাধ্যমেই সম্ভব হয়েছিল বলে বিভিন্ন গণমাধ্যমে জানা যায়। এছাড়া তাদের জন্য নানা অনলাইন টিভিসহ প্রাইভেট ম্যাসেঞ্জার ভিত্তিক অ্যাপ ব্যবহারের নানা তথ্যও জানা যাচ্ছে। কক্সবাজার জেলার বিভিন্ন স্থানে ছড়িয়ে থাকা ৩২টি রোহিঙ্গা ক্যাম্পে প্রায় ১২ লাখ রোহিঙ্গা বাস করছে, তার বিপরীতে ক্যাম্প এলাকার আশেপাশে স্থানীয় জনগণের বাস ৫ লাখের কিছু বেশি। গত দুই বছরে ওইসব এলাকায় অপরাধ কার্যক্রমের পরিসংখ্যান ও সেসব কর্মকা-ে জড়িত রোহিঙ্গার সংখ্যা আশঙ্কাজনক। আর এসব কারণে স্থানীয়রা তাদের নিরাপত্তাহীনতার কথাও জানিয়ে আসছে বহুদিন ধরে।
মানবিক কারণে আশ্রয় পাওয়া রোহিঙ্গারা অবৈধ সিমকার্ডসহ দেশের নাগরিকদের জন্য সংবিধানিকভাবে রাখা নানা সেবা গ্রহণ করে দেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করাসহ আসন্ন কোনো বিপদের কারণ হচ্ছে কিনা, সে বিষয়ে সতর্ক হওয়া জরুরি বলে আমরা মনে করি। বিভিন্ন দায়িত্বশীল কর্তৃপক্ষ এ বিষয়ে কার্যকর পদক্ষেপ নেবেন বলেও আমাদের আশাবাদ।




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft