বুধবার, ২৩ অক্টোবর, ২০১৯
জাতীয়
‘পূজায় নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকবে সাড়ে ৩ লাখ সদস্য’
কাগজ ডেস্ক :
Published : Wednesday, 18 September, 2019 at 9:13 PM
‘পূজায় নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকবে সাড়ে ৩ লাখ সদস্য’আসন্ন দুর্গাপূজার সময় সার্বক্ষণিক নিরাপত্তার দায়িত্বে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সাড়ে তিন লাখ সদস্য নিয়োজিত থাকবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।
সম্প্রতি পূজা মণ্ডপ ভাঙচুরের যেসব ঘটনা ঘটেছে, সেখানে অন্তর্কোন্দল আর নিজেদের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝির ঘটনাই বেশি বলে জানান তিনি।
বুধবার (১৮ সেপ্টেম্বর) দুপুরে সচিবালয়ে আসন্ন শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে সার্বিক নিরাপত্তা সংক্রান্ত সভা শেষে তিনি এসব কথা জানান।
তিনি বলেন, ‘পূজা মণ্ডপ ভঙচুর নিয়ে আজকের সভায় আলোচনা হয়েছে। এটি নিয়ে চুলচেরা বিশ্লেষণ হয়েছে। এসব ঘটনার মধ্যে সবগুলোই যে উদ্দেশ্যমূলক, তা নয়। এখানে নেতৃত্ব নিয়েও মতবিরোধ রয়েছে। যেগুলো উদ্দেশ্যমূলক, সেগুলোর বিষয়ে ব্যবস্থা নিয়েছি, যাতে এসব ঘটনা আর না ঘটে। কিছু কিছু ঘটনা নিজেদের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝির কারণে হয়েছে।’
সারাদেশে গত বছরের তুলনায় এবার পূজা মণ্ডপ বেড়েছে। এবার ৩১ হাজার ১০০টি পূজা মণ্ডপ থাকবে, তার চেয়েও বাড়তে পারে। ধর্ম যার যার উৎসব সবার। যে যার ধর্ম উৎসবের সঙ্গে পালন করবে। গত বছরের চেয়ে এক হাজার মণ্ডপ বেড়েছে। আর মহানগরীতে ২৩৭টি পূজা মণ্ডপ হচ্ছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘পূজা মণ্ডপের নিরাপত্তায় প্রয়োজনীয় সংখ্যক পুলিশ ও গোয়েন্দারা থাকবেন। আমরা বলেছি, পূজা মণ্ডপে যেখানে বিদ্যুৎ থাকবে, সেখানে যাতে সিসিটিভি থাকে। মণ্ডপের সার্বক্ষণিক নিরাপত্তায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সাড়ে তিন লাখ সদস্য নিয়োজিত থাকবে। কেউ যাতে বিঘ্ন সৃষ্টি করতে না পারে, সে জন্য সবাই সজাগ থাকবে। প্রত্যেক মণ্ডপে কমিটি থাকবে। তারা পুলিশের সঙ্গে সমন্বয় করে কাজ করবে। এবার নারী স্বেচ্ছাসেবকও থাকবে। আগুনের ঘটনা ঘটলে রেসকিউ সদস্যরা থাকবে।’
মণ্ডপে বিদ্যুৎ সরবরাহ নির্বিঘ্ন থাকবে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘মণ্ডপের আশেপাশে বখাটে রোধে পুলিশ প্রস্তুত থাকবে। বিভাগীয় পর্যায়ে নিয়ন্ত্রণ কক্ষ থাকবে, সেখান থেকে সব মনিটর করা হবে। ৯৯৯ সার্ভিস ভালো রেজাল্ট দিচ্ছে, পূজায় সেটিও খোলা থাকবে। সেখানে ফোন করলে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এছাড়া বিসর্জনের এলাকায় নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হবে। উপকূলীয় এলাকায় নিরাপত্তার দায়িত্বে কোস্টগার্ড থাকবে। বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) শুধু সীমানায় নয়, স্ট্যান্ডবাই থাকবে। তারাও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী অন্যান্য বাহিনীকে সহযোগিতার জন্য প্রস্তুত থাকবে।’




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft