মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর, ২০১৯
অর্থকড়ি
তিন মাসে ৩৮ হাজার কোটি টাকার রেমিট্যান্স
অর্থকড়ি ডেস্ক :
Published : Thursday, 3 October, 2019 at 8:16 PM
তিন মাসে ৩৮ হাজার কোটি টাকার রেমিট্যান্সচলতি ২০১৯-২০ অর্থবছরের প্রথম তিন মাসে (জুলাই-সেপ্টেম্বর) সাড়ে ৪ বিলিয়ন ডলারের বেশি রেমিট্যান্স (প্রবাসী আয়) পাঠিয়েছেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা। এ ধারাবাহিকতা অব্যাহত রয়েছে। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তথ্য অনুযায়ী, নতুন অর্থবছরের প্রথম প্রান্তিকে ৪৫১ কোটি ৪ লাখ (৪.৫১ বিলিয়ন) ডলার বা ৩৮ হাজার ১১০ কোটি টাকার রেমিট্যান্স এসেছে দেশে (প্রতি ডলার ৮৪ টাকা ৫০ পয়সা)।
এই অঙ্ক গত বছরের একই সময়ের চেয়ে ১৬ দশমিক ৫৮ শতাংশ বেশি (৬৪ কোটি ডলার)। আর গত সেপ্টেম্বর মাসে ১৪৬ কোটি ৮৪ লাখ ডলারের রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন প্রবাসীরা।
বাংলাদেশ ব্যাংকের কর্মকর্তারা জানান, বাজেটের পর থেকেই রেমিট্যান্স বাড়ছে। মূলত প্রণোদনা দেওয়ার সুখবরে রেমিট্যান্স পাঠানোর হার বৃদ্ধি পেয়েছে। মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশের অর্থনীতি চাঙ্গা করতে নানা উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। সবমিলিয়ে আগের চেয়ে বেশি অর্থ পাঠাচ্ছেন প্রবাসীরা।
এ দিকে, রেমিট্যান্স বাড়ায় বাংলাদেশ ব্যাংকের বিদেশি মুদ্রার স্থিতি বা রিজার্ভও ভালো অবস্থানে রয়েছে। সর্বশেষ রিজার্ভের পরিমাণ ছিল ৩১ দশমিক ৮৫ বিলিয়ন ডলার।
এ বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের মুখপাত্র সিরাজুল ইসলাম বলেন, বৈধ পথে রেমিট‌্যান্স পাঠাতে প্রবাসী বাংলাদেশিদের উৎসাহিত করতে নানা পদক্ষেপ নিয়েছে সরকার। এ কারণে বেড়েই চলছে রেমিট্যান্স। এছাড়া, বাংলাদেশ ব্যাংকের তৎপরতায় হুন্ডি ব্যবসা এখন মৃতপ্রায়। পাশাপশি রেমিট্যান্সে প্রণোদনার সিদ্ধান্ত প্রবাসী আয়ের গতি বাড়িয়েছে বলে মনে করেন তিনি।
গত ১ জুলাই থেকে রেমিট্যান্সে ২ শতাংশ হারে প্রণোদনা দেওয়া হচ্ছে। সেই অনুযায়ী প্রবাসীরা ১০০ টাকা দেশে পাঠালে তারা ২ টাকা প্রণোদনা পাবেন। বাজেটে এ খাতে ৩ হাজার ৬০ কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছে।
নীতিমালা অনুসারে, প্রবাসীদের পাঠানো রেমিট্যান্সে প্রণোদনা পেতে এখন থেকে কোনো তথ্য (কাগজপত্র) ছাড়াই একজন গ্রাহক ১৫০০ ডলার পর্যন্ত তুলতে পারবেন। তবে রেমিট্যান্সের পরিমাণ এর চেয়ে বেশি হলে গ্রহীতাকে প্রেরকের ভোটার আইডি কার্ড বা পাসপোর্টের ফটোকপি এবং বিদেশি নিয়োগদাতা প্রতিষ্ঠানের নিয়োগপত্র অবশ্যই জমা দিতে হবে। আর ব্যবসায়ী ব্যক্তির ক্ষেত্রে ব্যবসার লাইসেন্সের কপি দাখিল করতে হবে।




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft