মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর, ২০১৯
দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
আবরার হত্যার প্রতিবাদে যশোরসহ বিভিন্ন এলাকায় বিক্ষোভ
কাগজ ডেস্ক :
Published : Thursday, 10 October, 2019 at 6:37 AM
আবরার হত্যার প্রতিবাদে যশোরসহ বিভিন্ন এলাকায় বিক্ষোভবুয়েট শিক্ষার্থী আবরার হত্যার প্রতিবাদে ফুসে উঠেছে পুরো দেশ। এর জেরে গত দুই দিনে যশোরসহ এ অঞ্চলের বিভিন্ন এলাকায় মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। রাজনৈতিক দল থেকে শুরু করে সাধারণ শিক্ষার্থী-বিভিন্ন ব্যানারে এসব কর্মসূচির আয়োজন করা হয়। কর্মসূচিগুলোতে বক্তারা এই হত্যাকাণ্ডকে বর্বরোচিত উল্লেখ করে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে খুনিদের বিচার ও ফাসি দাবি করেন। কোন কোন কর্মসূচিতে দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছাত্র রাজনীতি বন্ধের দাবি জানান।
যশোর ওয়ার্কার্স পার্টি: আবরার হত্যার প্রতিবাদে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি যশোর জেলা কমিটি। বুধবার বিকেলে ভোলা ট্যাংক রোডের দলীয় কার্যালয়ের সামনে মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন দলের পলিটব্যুরো সদস্য ও যশোর জেলা সভাপতি ইকবাল কবির জাহিদ, সাধারণ সম্পাদক জিল্লুর রহমান ভিটু, অধ্যাপক ইসরারুল হক, যুবমৈত্রীর জেলা সভাপতি অনুপ কুমার পিন্টু।
বক্তারা এই হত্যাকাণ্ডকে বর্বরোচিত উল্লেখ করে বলেন, ভিন্নমত দলনের ঘৃণ্য খেলায় আবরারের মত একজন মেধাবী ছাত্রকে যেভাবে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে তা কোনভাবে মেনে নেয়া যায় না। ছাত্র লীগ আজ এক দানবে পরিণত হয়েছে উল্লেখ করে বক্তারা বলেন, টেন্ডারবাজি থেকে শুরু করে চাঁদাবাজি, হল দখল, অপহরণ, মানুষ হত্যা-কোন কিছুই বাদ রাখছে না এই দুর্বৃত্তরা।
সমাবেশ থেকে খুনিচক্রকে প্রতিহত করতে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহবান জানানো হয়।
সাধারণ ছাত্র পরিষদ: সকালে প্রেসক্লাব যশোরের সামনের রাস্তায় আবরার হত্যার প্রতিবাদে ও খুনিদের বিচারের দাবিতে মানববন্ধন করে সাধারণ ছাত্র আবরার হত্যার প্রতিবাদে যশোরসহ বিভিন্ন এলাকায় বিক্ষোভপরিষদ। ‘উই ওয়ান্টা জাস্টিস’, কাঁদতে আসিনি ফাসির দাবি নিয়ে এসেছি’ ইত্যাদি স্লোগান নিয়ে যশোরের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা এই মানববন্ধনে অংশ নেয়। প্রায় এক ঘণ্টা ধরে চলে মানববন্ধন। এসময় সকল শিক্ষার্থীর হাতেই নানা প্লাকার্ড ছিলো।   
যবিপ্রবি সাধারণ শিক্ষার্থী: বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ছাত্র আবরার ফাহাদকে শাখা ছাত্রলীগ কর্তৃক পিটিয়ে হত্যার দৃষ্টান্তমূলক বিচারের দাবিতে প্রতিবাদ ও মানববন্ধন করেছেন যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) শিক্ষার্থীরা।
দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শতাধিক শিক্ষার্থীর অংশগ্রহণে এ কর্মসূচি পালিত হয়।
মানববন্ধন-পরবর্তী সমাবেশে বক্তব্য দেন অণুজীববিজ্ঞান বিভাগের স্নাতকোত্তরের শিক্ষার্থী ও ছাত্রলীগ নেতা রাসেল পারভেজ, শারীরিক শিক্ষা ও ক্রীড়া বিজ্ঞান বিভাগের স্নাতকোত্তরের শিক্ষার্থী সাব্বির আহমেদ, ফার্মেসি বিভাগের ওমর ফারুক, ফিশারিজ অ্যান্ড মেরিন বায়োসায়েন্স বিভাগের স্নাতকোত্তরের শিক্ষার্থী আল-আমিন, শারীরিক শিক্ষা ও ক্রীড়া বিজ্ঞান বিভাগের স্নাতকোত্তরের শিক্ষার্থী রায়হান উদ্দিন ও ফিজিওথেরাপি অ্যান্ড রিহ্যাবিলিটেশন বিভাগের স্নাতকের শিক্ষার্থী আহমাদুল্লাহ হিল গালিব প্রমুখ।
মানববন্ধনে শিক্ষার্থীরা বলেন, একটি স্বাধীন দেশে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেয়াকে কেন্দ্র করে হত্যাকাণ্ডের ঘটনা হতাশাজনক। দেশে আইন থাকা সত্ত্বেও এ ধরনের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড দেশের ছাত্রসমাজ মেনে নেবে না, প্রয়োজনে আরও কঠোর কর্মসূচি দেবে। দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সন্ত্রাসমুক্ত করতে সরকারের কাছে দাবি জানাই।
মানববন্ধনে শিক্ষার্থীরা ‘ক্যাম্পাসে কেন হত্যাকাণ্ড, প্রশাসন জবাব চাই’, ‘আবরার হত্যার বিচার চাই, ভাইকে হত্যার বিচার চাই’, ‘ক্যাম্পাসে সন্ত্রাস, রুখে দাঁড়াও ছাত্রসমাজ’ বঙ্গবন্ধুর বাংলায়, হত্যাকারীর ঠাঁই নাই’ স্লোগান লেখা প্ল্যাকার্ড প্রদর্শন করা হয়।
আবরার হত্যার প্রতিবাদে যশোরসহ বিভিন্ন এলাকায় বিক্ষোভঝিনাইদহ সাংস্কৃতিক জোট: ঝিনাইদহ জেলা সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের পক্ষ থেকে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ছাত্র আবরার হত্যার প্রতিবাদে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্টিত হয়েছে।
বিকেলে জেলা সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি শান্ত জোয়াদ্দারের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন জোটের সহসভাপতি শারমিন জোয়াদ্দার ম্যাডোনা, রুবেল পারভেজ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তারেক হোসেন পল্লব, প্রকাশনা সম্পাদক কাজী মোহাম্মদ আলী পিকু, সদস্য আব্দুস সালাম, শাহীনুর আলম লিটন,  খান জাহান আলী, নিধির বিশ্বাস নিপু, হুমায়ন কবির টুকু।
বক্তারা বলেন, যারা বুয়েট ছাত্র আবরারকে পিটিয়ে হত্যা করেছে তাদেরকে অবিলম্বে আইনের আওতায় এনে প্রকাশ্যে বিচার করতে হবে।
সমাবেশ পরিচালনা করেন জেলা সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক বাবুল আক্তার লাল্টু।
ইবি সাধারণ শিক্ষার্থী: বিশেষ ট্রাইব্যুনাল গঠন করে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদের খুনিদের দ্রুত বিচারের দাবি জানিয়েছেন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। মঙ্গলবার বিকেল ৪টায় তিন দফা দাবিতে ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন করেন শিক্ষার্থীরা।
তাদের দাবিগুলো হচ্ছে বিশেষ ট্রাইব্যুনাল গঠন করে আবরার ফাহাদের খুনিদের বিচার করা, অমিত সাহাকে মামলায় এজহারভুক্ত আসামি করা এবং ইবি থানার ওসিকে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে প্রত্যাহার করা।
বিশ্ববিদ্যালয়ের জিয়া হল মোড়ে সাধারণ শিক্ষার্থীরা একত্রিত হয়ে সবকটি হল ঘুরে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে প্রধান ফটকের কাছে মানববন্ধন করেন। এ সময় প্রশাসনের পক্ষ থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটক লক করে দেয়া হয়। প্রধান ফটকের বাইরে ইবি থানা ও কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত পুলিশকে সতর্ক অবস্থানে ছিলেন।
কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এএসপি) মোস্তাফিজুর রহমানও এসময় উপস্থিত ছিলেন। তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ওসিকে প্রত্যাহারের দাবি সম্পূর্ণ অযৌক্তিক।
মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, ঘটনার শুরু থেকে অমিত সাহার নাম শোনা গেলেও অদৃশ্য কারণে তাকে মামলায় এজহারভুক্ত করা হয়নি। দেশের চলমান বিচার প্রক্রিয়া অত্যন্ত জটিল ও সময় সাপেক্ষ তাই বিশেষ ট্রাইব্যুনাল গঠন করে আবরারের খুনিদের বিচার দ্রুত সময়ের মধ্যে করার দাবি জানান বক্তারা।




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft