রবিবার, ০৮ ডিসেম্বর, ২০১৯
প্রেস বিজ্ঞপ্তি
মুসলিম এইড কলেজের নবীণ বরণ অনুষ্ঠানে বক্তারা
বেকার মুক্ত বাংলাদেশ গড়তে কারিগরি শিক্ষার বিকল্প নেই
প্রেস বিজ্ঞপ্তি :
Published : Sunday, 1 December, 2019 at 7:22 AM
বেকার মুক্ত বাংলাদেশ গড়তে কারিগরি শিক্ষার বিকল্প নেইনবীণ শিক্ষার্থীদের বরণ ও চার বছর মেয়াদী ডিপ্লোমা কোর্স সম্পন্নদের বিদায় উপলক্ষে শনিবার যশোর মুসলিম এইড পলিটেকনিক কলেজে অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। যশোরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) রফিকুল হাসান এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। মুসলিম এইড ইউ কে বাংলাদেশের ফিল্ড অফিসের ভারপ্রাপ্ত কান্ট্রি ডিরেক্টর ফাদলুল্লাহ উইলমোটের সভাপতিত্বে অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন যশোর জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান আলহাজ আব্দুল খালেক, মুসলিম এইড ইউ কে হেড কোয়ার্টারের প্রতিনিধি মোশারফ হোসেন, স্টেপ প্রকল্পের প্রোগ্রাম অফিসার সোনিয়া আকবর, কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের উপ পরিদর্শক ড. ইন্দ্রানী ধর ও দৈনিক স্পন্দনের নির্বাহী সম্পাদক মাহবুব আলম লাভলু। কলেজের রেজিস্ট্রার নূর ইসলাম ও সিনিয়র ইন্সট্রাক্টর শায়লা আজিজের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তৃতা করেন কলেজের অধ্যক্ষ প্রকৌশলী আরিফ নূর।
বক্তারা বলেন, বেকারত্ব একটি অভিশাপ, বাংলাদেশের উন্নয়নের পথে সব চেয়ে বড় অন্তরায়। ২০২১ সালের মধ্যম আয়ের দেশে বাংলাদেশকে উন্নীত করতে জনশক্তি উন্নয়নের কোনো বিকল্প নেই। দেশের বিশাল জনসম্পদকে জনশক্তিতে রূপান্তরিত করতে সব চেয়ে কার্যকর পন্থা হচ্ছে কারিগরি শিক্ষার প্রসার। ২১ সালের মধ্যে দেশের মোট শিক্ষিত জন গোষ্ঠির ২৫ শতাংশকে কারিগরি শিক্ষায় শিক্ষিত করতে সরকার নাানমুখি উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। আগামী বছরকে মুজিববর্ষ ঘোষণা করে সরকার এই লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের যে লড়াই শুরু করেছে মুসলিম এইড পলিটেকনিক কলেজ সেই লড়াইয়ের শক্তিশালী অংশীদার। হাতে কলমে প্রশিক্ষণ প্রদানের পাশাপাশি মুসলিম এইড বেকারত্ব দূরীকরণে কার্যকর ভূমিকা পালন করছে।
বক্তারা বলেন, জেনারেল শিক্ষায় উচ্চ শিক্ষিত বেকারের সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে।  বিএ, এমএ পাশ করা শিক্ষিতরা পিয়নের চাকরি করছে। অথচ হাতে কলমে প্রশিক্ষণ নিয়ে স্বল্প শিক্ষিতরা মাসে হাজার হাজার টাকা আয় করছে। এই জন্য বর্তমান সরকার কারিগরি শিক্ষার প্রতি গুরুত্বারোপ করে বিভিন্ন প্রকল্প গ্রহণ করছে। কারিগরি শিক্ষায় শিক্ষিতদের জন্য নানা প্রনোদনা প্রদান করছে। ফলে বেকারত্ব দূর করতে এসএসসি পরীক্ষায় পাশের পর চার বছর মেয়াদী ডিপ্লোমা ইন ইঞ্জিনিয়ারিং কোর্সে ভর্তির মাধ্যমে কারিগরি ও বৃত্তিমূলক শিক্ষায় শিক্ষিত হওয়ার বিকল্প নেই বলে মন্তব্য করেন বক্তারা।
এ বছর যশোর মুসলিম এইড পলিটেকনিক কলেজের ইলেকট্রিক্যাল, সিভিল ও কম্পিউটার টেকনোলজির ৭২ জন শিক্ষার্থী ৮ম সেমিস্ট্রার সম্পন্ন করেছে। ফাইনাল পরীক্ষার রেজাল্ট প্রকাশিত হওয়ার আগেই  ৩৭ জন ইতিমধ্যে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে চাকরিতে যোগদান করেছে। বাকিদের চাকরি প্রাপ্তিতে মুসলিম এইডের জব প্লেসমেন্ট সেল কাজ করছে ।



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft