শুক্রবার, ১৭ জানুয়ারি, ২০২০
শিক্ষা বার্তা
নতুন বছরের প্রথম দিনই শিশুদের বই উৎসব
কাগজ ডেস্ক :
Published : Friday, 13 December, 2019 at 7:56 PM
নতুন বছরের প্রথম দিনই শিশুদের বই উৎসবনতুন ৩৭ লাখ  বই প্রস্তুত আছে। ইতিমধ্যে কুমিল্লার ১৭টি উপজেলায় পৌঁছেও গেছে বইগুলো। জেলার প্রাক প্রাথমিক হতে পঞ্চম শ্রেণি পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের মাঝে বিনামূল্যে বিতরণ করা হবে এসব বই। নতুন বছরের প্রথম দিনই এসব বই তুলে দেওয়া হবে শিশুদের হাতে। নতুন বইয়ের এই উৎসবে মাতবে কুমিল্লার প্রায় আট লাখ প্রাথমিক স্তরের শিক্ষার্থী।
জেলার প্রাথমিক শিক্ষা সূত্র জানায়, কুমিল্লার ১৭টি উপজেলার ২ হাজার ১০৭টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ১ হাজার ৭৮১টি কিন্ডার গার্ডেন, ৩৯৪টি এনজিও পরিচালিত বিদ্যালয়সহ মোট ৪ হাজার ৪৪৭টি বিদ্যালয়ের ৭ লাখ ৭১ হাজার ৩১৪ জন শিক্ষার্থীর জন্য ৩৬ লাখ ৭৬ হাজার ৪২৮টি নতুন পাঠ্য বই এসেছে। ইতিমধ্যেই জেলার ১৭টি উপজেলায় বইগুলো পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। আগামী ১ জানুয়ারি উৎসবমুখর পরিবেশে সংশ্লিষ্ট এলাকার সংসদ সদস্য, জেলা প্রশাসক, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, উপজেলা চেয়ারম্যান, ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সভাপতি এবং প্রাথমিক শিক্ষা অফিসাররা শিক্ষার্থীদের মাঝে এই বই বিতরণ করবেন।
বরুড়া পৌর বালিকা স্কুলের শিশু শ্রেণি থেকে নতুন বছরে প্রথম শ্রেণিতে পা দিবে ওয়ারিশা রহমান ইশরা। সে বরুড়া পৌরসভার তলাগ্রাম এলাকায় বসবাসরত চাকুরীজীবী মোস্তাফিজুর রহমান মেয়ে। নতুন বই কবে দিবে? মা-বাবার কাছে প্রতিদিন এমন প্রশ্ন বেশ কয়েকবার করে ইশরা। ইশরা বলে, 'আমার বইগুলো পুরনো হয়ে গেছে। বার্ষিক পরীক্ষার পর স্যাররা বলেছে কয়দিন পর আমাদের নতুন বই দিবে। নতুন বই দিলে, আমি নতুন বই নিয়ে আম্মুর সাথে প্রতিদিন স্কুলে যাবো।'
কুমিল্লা জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. আবদুল মান্নান বলেন, কিছুদিন আগেই এসব বই সব উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসে পৌঁছেছে। বর্তমানে সেখান থেকে উপজেলার প্রতিটি প্রাথমিক স্তরের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বইগুলো শিক্ষার্থীর সংখ্যানুযায়ী পৌঁছানো হচ্ছে। সরকারি নীতিমালা অনুযায়ী প্রত্যেক শিক্ষার্থীই নতুন বই পাবে। নতুন বছরের প্রথম দিনটি শিশু শিক্ষার্থীদের জন্য 'বই উৎসব'।
জেলা শিক্ষা অফিস সূত্র আরো জানায়, কুমিল্লার ১৭টি উপজেলার মধ্যে আদর্শ সদরে ৪ লাখ ৩ হাজার ১০৯টি, লাকসামে ২ লাখ ৫ হাজার ৮০টি, দেবীদ্বারে ৩ লাখ ২০ হাজার ৮৫০টি, মুরাদনগরে ৪ লাখ ১৭ হাজার ৩০টি, দাউদকান্দিতে ২ লাখ ২১ হাজার ৭৯৬টি, চৌদ্দগ্রামে ২ লাখ ৪৭ হাজার ৪৭৬টি, ব্রাহ্মণপাড়ায় ১ লাখ ৭৭ হাজার ১৫০টি, বরুড়ায় ২ লাখ ৩৮ হাজার ৫০০টি, বুড়িচংয়ে ২ লাখ ৪৫ হাজার ৪৩০টি, চান্দিনায় ১ লাখ ৬২ হাজার ৮০০টি, হোমনায় ১ লাখ ৪৯ হাজার ১৭২টি, নাঙ্গলকোটে ২ লাখ ৫১ হাজার ১০০টি, মেঘনায় ৫৮ হাজার ৫০০টি, মনোহরগঞ্জে ১ লাখ ৩৯ হাজার ২০০টি, তিতাসে ১ লাখ ৪৯ হাজার ৬০০টি, সদর দক্ষিণে ১ লাখ ৯২ হাজার ১৪৩টি এবং নবগঠিত লালমাই উপজেলায় ৯৭ হাজার ৪৯২টি বই বিতরণের জন্য পাঠানো হয়েছে।



আরও খবর
সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft