বৃহস্পতিবার, ০৬ আগস্ট, ২০২০
জাতীয়
ভবিষতের পরিকল্পনাগুলো বুঝে নিতে হবে : আলাল
কাগজ ডেস্ক :
Published : Saturday, 18 January, 2020 at 8:34 PM
ভবিষতের পরিকল্পনাগুলো বুঝে নিতে হবে : আলালবিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব ও যুবদলের সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল বলেছেন, ‘বিএনপির একটি উদার রাজনৈতিক দল। বিএনপি আওয়ামী লীগের মতো বদমাশ চরিত্রের রাজনৈতিক দল না। সেইটা বুঝেই আমাদের ভবিষতের পরিকল্পনাগুলো গ্রহণ করতে হবে।’
শনিবার (১৮ জানুয়ারি) জাতীয় প্রেসক্লাবের আব্দুস সালাম হলে জিয়া নাগরিক ফোরাম জিনাফ’র ২৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে ‘ভোটের অধিকার হরণ, ষড়যন্ত্রমূলক ইভিএম বাতিল ও দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া মুক্তি’ শীর্ষক এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।
ইভিএম জন্মলগ্ন থেকেই ভুল মন্তব্য করে বিএনপির এই নেতা বলেন, ‘একটি অবৈধ সন্তান যদি জন্ম নেয় আর তার যদি বছর বছর জন্মদিন পালন করে তাহলে মানুষ গালি দেবে না? এই নির্বাচন কমিশনের হচ্ছে একই অবস্থা। অবৈধ সন্তানের জন্মবার্ষিকী পালন করে তারা।’
‘এই ইভিএম যখন প্রথম আসে তখন এর কমিটির প্রধান ছিলেন জামিল চৌধুরী, তিনি বলেছিলেন— এইটার সাথে আরও কিছু জিনিস যুক্ত করতে হবে। সেইগুলোর একটি হলো কি পরিমাণ ভোট দিলেন, কাকে দিলেন, সেটা কাগজে বেরিয়ে আসবে। কিন্তু এই সিস্টেমটা এই ইভিএম মেশিনে যুক্ত করা হয় নাই। এই জন্য তিনি এই সুপারিশপত্র স্বাক্ষরও করেন নাই।’
আলাল বলেন, ‘এছাড়াও এই মেশিন বেশি দামে ক্রয় করা হয়েছে এবং বরাদ্দের আগেই বিদেশে মেশিন ক্রয় করার জন্য অর্ডার করা হয়েছে। আর সেইগুলো হালাল করা লাগবে না? সে হালাল করার জন্যই এই প্রক্রিয়া। আপনি ভোট দিলেন কিন্তু কাকে দিলেন এর কোনও প্রমাণ নাই। কাগজেও নাই। অন্য কিছু তো নাই। কি একটা ভেলকিবাজের খেলা। ডুগডুগি বাজিয়ে বানরকে যেভাবে নাচায়, সে ভাবে নির্বাচন করতে যাচ্ছে এই নির্বাচন কমিশন। আর সেই নাচানাচির মধ্যে থাকলেও সমস্যা না থাকলে সমস্যা।’
যুবদলের সাবেক এই সভাপতি বলেন, ‘পৃথিবীর ইতিহাসে কোথাও আছে যে, একটি রাজনৈতিক দলের বিরুদ্ধে যে দলটি একসময় দেশ পরিচালনা করেছে পাঁচ থেকে ছয় দফায়, জিয়াউর রহমান ও বেগম খালেদা জিয়া দুইজন মিলিয়ে, সেই দলের প্রধান নেত্রীকে কারাগারে, আরেক নেতাকে প্রবাসে, দেশে আসতে দিচ্ছে না। আর এই পরিবারের কনিষ্ঠ সদস্যকে হত্যা করা হয়েছে বিভিন্ন নির্যাতনের মধ্যে দিয়ে। এই দলের প্রায় ৩৬ লক্ষ নেতাকর্মীর বিভিন্ন মামলায় আসামি করা হয়েছে। এক লক্ষ ৯ হাজার ৩শত ২৭টি মামলা। এই নেতাকর্মীদেরকে আমরা আরও বিপদে ফেলবো নাকি প্রথমে বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করবো? সমঝোতার মধ্যে হোক আর আন্দোলনের মধ্যেই হোক সেটাই তো প্রথম কাজ হওয়ার কথা।’
তিনি বলেন, ‘এই দলের বর্তমান যারা অভিভাবক আছেন তারা যদি একটু চিন্তা করেন যে, আমাদের সন্তানদেরকে আর কত বিপদে ফেলবো। যদি তারা একটু চিন্তা করেন নতুন কোন কৌশল অবলম্বন করা যায় কি-না। এই চিন্তার জন্য তাদেরকে কাঠগড়ায় দাঁড় করালে তাদের ওপর অবিচার করা হবে। আমরা ধর্য ধরেছি আর একটু ধরি সময় আসবে।’
তিনি আরও বলেন, ‘যখন একটি বড় ঘটনা ঘটে, তখন মানুষ কষ্ট পায়, দুঃখ পায়, আর এ সরকারকে বদদোয়া দেয়। তার কিছুদিন পরে আরেকটি ঘটনা ঘটলে আগেরগুলো ভুলে যায়। গুম থেকে শুরু করে ডেঙ্গু, ট্রেন দুর্ঘটনা, শিশু ও বৃদ্ধা বয়স্ক মহিলা ধর্ষণ, গ্যাস বিস্ফোরণ, আবরার হত্যা, বিশাল এক-একটা ঘটনা জাতিকে শোকে অপহৃত করে ফেলে। ৩/৪ দিনের মধ্যে অন্য একটি ঘটনা এসে আগেরটি ভুলিয়ে দেয়। এ কৌশলগুলো বিএনপি রপ্ত করতে পারেনি। কারণ বিএনপির একটি উদার রাজনৈতিক দল। বিএনপি আওয়ামী লীগের মতো বদমাশ চরিত্রের রাজনৈতিক দল না। সেইটা বুঝেই আমাদের পরিকল্পনাগুলো গ্রহণ করতে হবে।’
আয়োজক সংগঠনের সভাপতি লায়ন মিয়া মোহাম্মদ আনোয়ারের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক কে এ জামানের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আব্দুল মঈন খান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আব্দুস সালাম, হাবিবুর রহমান হাবিব, নির্বাহী কমিটির সদস্য আবু নাসের মুহাম্মদ রহমাতুল্লাহ, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সহ-সভাপতি ইউনুস মেধা, তাঁতী দলের যুগ্ম-আহবায়ক ড. কাজী মনিরুজ্জামান মনির, কৃষক দলের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য কে এম রকিবুল ইসলাম রিপন প্রমুখ।



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], edit[email protected]
Design and Developed by i2soft