সোমবার, ০৬ এপ্রিল, ২০২০
সারাদেশ
নওগাঁর মান্দায় কালভার্ট ভেঙে দুই বছর ধরে ভারী যান চলাচল বন্ধ
নওগাঁ জেলা প্রতিনিধি :
Published : Tuesday, 21 January, 2020 at 9:20 PM
নওগাঁর মান্দায় কালভার্ট ভেঙে দুই বছর ধরে ভারী যান চলাচল বন্ধনওগাঁর মান্দা উপজেলার গনেশপুর ইউনিয়নের সতীহাট গরুহাটি এলাকায় একটি কালভার্টের ঢালাই ভেঙে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে গেছে। এতে এ রাস্তা দিয়ে যানবাহন চলাচল বন্ধ হওয়ায় চরম দুর্ভোগের শিকার হচ্ছে প্রায় পাঁচ ইউনিয়নে মানুষ।
সরেজমিনে দেখা যায়, সতীহাট গরুহাটির দক্ষিণ পশ্চিম কোনে জি এস বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় সংলগ্ন এলাকায় অবস্থিত ওই কালভার্ট। কালভার্টের দুই দিকে  ঢালাই খসে রড বের হয়ে গেছে।
স্থানীয়রা জানান, ২ বছর ধরে কালভার্টের ওপরের অংশের ঢালাই অল্প অল্প করে ভেঙে বিশাল আকার ধারণ করেছে। ফলে বর্তমানে কোনো ধরনের যানবাহন চলাচল করতে পারছে না। এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্টদের অবহিত করলেও কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ করা হচ্ছে না। এই রাস্তা দিয়ে গনেশপুর, সফাপুর, প্রসাদপুর, কুশুম্বা, মান্দা সদর ইউনিয়নের প্রায় ১০ হাজার মানুষ জেলা ও উপজেলা সদরে চলাচল করে। সতীহাট বাজারে অবস্থিত বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের জন্যও সড়কটি গুরুত্বপূর্ণ। ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার পর দীর্ঘ দুই থেকে তিন বছর হলেও রাস্তাটি মেরামত করা হয়নি।
স্থানীয় জি এস বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা জানায়, দুই দিকে ভাঙা এই কালভার্টের ওপর দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে আমাদের প্রতিদিন যাতায়াত করতে হয়। তবে প্রতি মঙ্গলবার এখানে হাট বসায় অনেক লোকজন ও বিভিন্ন প্রকার গাড়ির প্রচণ্ড ভিড় হয় তখন আমাদের এটা পার হতে ভয় লাগে। অনেক সময় দাঁড়িয়ে থেকে রাস্তা ফাঁকা হওয়া পর্যন্ত আমাদের অপেক্ষা করতে হয়।
স্থানীয় ইউপি সদস্য আলেফ উদ্দিন মৃধা বলেন, ‘বৃষ্টি হলে রাস্তাটি বেহাল হয়ে যায়। রাস্তার কালভার্ট অল্প অল্প করে ভেঙে এখন বিশাল আকার ধারণ করেছে। বিষয়টি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানকে জানিয়ে আগামী ফেব্রুয়ারি মাসের দিকে ভাঙা কালভার্ট মেরামত করব।’
গনেশপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হানিফ উদ্দিন মন্ডল বলেন, বিষয়টি তিনি মান্দা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে জানিয়েছেন। আগামী রবিবার উনি সরেজমিনে আসবেন এবং কালভার্টটি মেরামত করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
এ বিষয়ে মান্দা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আব্দুল হালিম বলেন, বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে দেখার জন্য এবং দ্রুত মেরামতের জন্য আমি এখনই গনেশপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হানিফ উদ্দিন মন্ডলকে নির্দেশ দিচ্ছি।




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft