শনিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০
সম্পাদকীয়
পুঁজিবাজারে এতো পদক্ষেপের পরেও কেন আস্থাহীনতা?
Published : Tuesday, 11 February, 2020 at 6:30 AM
পুঁজিবাজারকে শক্তিশালী করতে সরকারি ৪ ব্যাংক আগামী ৩১ অক্টোবরের মধ্যেই স্টক এক্সচেঞ্জে তালিকাভুক্ত হবে। একই সঙ্গে বাজারে তালিকাভুক্ত রূপালী ব্যাংকের আরও ১৫ শতাংশ শেয়ার বাজারে ছাড়া হবে। যেকোনো মূল্যে পুঁজিবাজার শক্তিশালী করতে চাই, এমন ঘোষণা দিয়ে ওই তালিকাভূক্তির কথা জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।
রোববার সচিবালয়ে অর্থ মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন বাণিজ্যিক ব্যাংক ও অংশীজনদের সঙ্গে বৈঠকে হওয়া ওই সিদ্ধান্ত দেশের পুঁজিবাজারে কতোটা প্রভাব ফেলতে পারবে, তা দেখার জন্য অপেক্ষা করতে হবে।
অনেক বছর হলোই দেশের পুঁজিবাজারে নিম্নমুখী প্রবণতা সবাইকে ভাবাচ্ছে, কোনো ধরণের উদ্যোগ কাজে আসছে না বলে বাজার সংশ্লিষ্টদের অভিযোগ রয়েছে। সরকার বিভিন্ন সময় নানা পদক্ষেপ নিলেও তা কাজে আসেনি।
পুঁজিবাজারের এই অবস্থা সরকারকেও যে ভাবাচ্ছে, তা অর্থমন্ত্রীর বক্তব্যে বোঝা যায়। তিনি বলছেন, একটা জায়গা নিয়ে সবসময় আমরা চিন্তাগ্রস্ত, সেটি হচ্ছে পুঁজিবাজার। পুঁজিবার হচ্ছে অর্থনীতির রিফ্লেকশন, অর্থনীতির যে ফান্ডামেন্টাল সে ফান্ডামেন্টালের ওপর সবসময় অবস্থান করে পুঁজিবাজার। কিন্তু আমাদের দেশের পুঁজিবাজার কেন যেন অর্থনীতির সাথে অ্যালায়েন নয়। অর্থনীতির যে গতিশীলতা তার সাথে পুঁজিবাজার যায় না।
অর্থমন্ত্রীর ঘোষণার প্রভাব পুঁজিবাজারে দ্রুত কোনো সুসংবাদ বয়ে আনতে পারেনি, বরং ডিএসই প্রধান বা ডিএসইএক্স সূচক ৬৪ পয়েন্ট কমে গেছে। ডিএসই সূচক বর্তমানে অবস্থান করছে ৪ হাজার ৩৮৮ পয়েন্টে। অন্য সূচকগুলোর মধ্যে ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক ১৪ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে এক হাজার ১২ পয়েন্টে এবং ডিএস৩০ সূচক ২১ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৪৯২ পয়েন্টে। ডিএসইতে ৩৫৬টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৪৩টির, কমেছে ২৭১টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৪২টির।
আর চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ১৪০ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১৩ হাজার ৪০২ পয়েন্টে। সিএসইতে টাকার অংকে ১৩ কোটি ৫৫ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। পুঁজিবাজারের বিনিয়োগকারীরা আস্থাহীনতায় ভুগছে, এ কথা বললে খুব একটা ভুল হবে না। বাজার উঠানামার মাঝে থেকে আবার কোনো চক্র সক্রিয় হয়ে ওঠে কিনা, সে শঙ্কা যেনো ভর করেছে বাজারে। অতীতের বিভিন্ন সময়ে বাজার কারসাজির বিষয়ে কার্যকর পদক্ষেপ নিলে হয়তো ধীরে ধীরে আস্থা ফিরতে পারে বাজারে। আমাদের আশাবাদ, সংশ্লিষ্টরা এ বিষয়ে মনোযোগী হবেন। 



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft