সোমবার, ২৫ মে, ২০২০
দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
বাল্যবন্ধুদের উদ্যোগে সহযোগিতা পাচ্ছেন যশোরের হাজারো কর্মহীন পরিবার
শিমুল ভূইয়া
Published : Friday, 3 April, 2020 at 12:04 AM
বাল্যবন্ধুদের উদ্যোগে সহযোগিতা পাচ্ছেন  যশোরের হাজারো কর্মহীন পরিবার পলাশ , ফাহমিদা, রাশেদ,  মুন, বুলবুল, ওহিদুল, অপু আর ডালু । সকলেই বাল্য বন্ধু ও কর্মজীবি। একটা সেকেন্ড অযথা সময় কাটানোর সময় তাদের কারো নেই। জীবিকার তাগিদে কেউ যশোরে আবার কেউ যশোরের বাইরে থাকে। কিন্তু করোনার কবলে পরে আজ তারা প্রিয় যশোরের মাটিতে। দেশের এ ক্রান্তিলগ্নে এক হয়েছে তারা গরীবের সেবায়। যার যেটুকু আছে তাই নিয়ে মাঠে নেমেছেন। প্রথম পর্যায় তারা যশোর শহরের একহাজার গৃহবন্দি মানুষের ঘরে খাবার পৌঁছে দিতে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হয়েছেন। এ দুঃসময় সকলে একত্রিত হয়ে নিজেদের জমানো অর্থদিয়ে চাল, ডাল, আলু, তেল, পিয়াজ, লবন, শুখনো ঝাল, মুড়ি, আটা, সাবান, হুইল পাওডার সহ বিভিন্ন প্রয়োজনীয় পণ্য কিনেছেন। এসব পণ্যের সাথে  মাস্ক, হ্যান্ড গেøাবস যোগ করে তৈরী করেছে এক একটি প্যাকেট। যা এখন প্রতিদিন সকাল, দুপুর, রাতে পৌঁছে দিচ্ছেন যশোর শহরের কর্মহীন, দরিদ্র,অসহায়দের ঘরে ঘরে। এবং ওইসব পরিবারকে বাইরে বের না হতে অনুরোধ জানাচ্ছেন তারা। একই সাথে বিভিন্ন প্রয়োজনীয় হটলাইন মোবাইল নম্বও সম্বলিত সচেতনতা মুলক লিফলেট তুলে দিচ্ছেন গৃহবন্দী পরিবারের হাতে । বন্ধু মহলের গর্বিত বন্ধুরা জানান, ইতোমধ্যে তারা তিনশো পরিবারের হাতে প্যাকেট পৌঁছে দিয়েছেন। যে বন্ধুর গাড়ি আছে সে বন্ধু গাড়িতে করে যাচ্ছেন, যার মটরসাইকেল আছে সে মটরসাইকেলে, আর যার নেই সে পায়ে হেটে যাচ্ছেন বিভিন্ন এলাকায়। এ বিষয়ে, তারা বলছেন, করোনা ভাইরাসকে ছোটকরে দেখার কোনো সুযোগ নেই। আমার করোনা হবেনা এ ভাবা মানে নিজেকে মূর্খতার পরিচয় দেয়া। বিষয়টি যে সব দেশ অবহেলা করেছিল তারা আজ ধ্বংশের পথে। ফলে, করোনা প্রতিরোধে সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখাটা এখন বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে। ঘরে থাকা ছাড়া আর কোনো পথ খোলা নেই। কিন্তু  অসহায় গরিবদের এখন আর ঘরে থাকার সুযোগ নেই। দীর্ঘসময় দেশের এমন  লকডাউন পরিস্থিতিতে তাদের ঘরের চাল শেষ। পকেটও শুন্য। ঘরথেকে বের হয়ে খাবার জোগার করা ছাড়া আর কোনো পথ খোলা নেই । কিন্তু তারা বের হলে শুধু তাদের কিংবা তাদের পরিবারের নয়,  গোটা দেশের জন্য ক্ষতি বয়ে আনবে। এসকল বন্ধুদের দাবি, দেশে করোনা মোকাবেলায় বাড়িতে থাকা যেমন একজন নাগরিকের জন্য জরুরী। তেমনি এলাকার অসহায় মানুষদেরকে বাড়িতে রাখার ব্যবস্থা করাটাও  জরুরী। অন্যথায় পরিস্থিতি হয়ে উঠবে চরম ভয়াভয়। তাই সকলকেই সমাজের অসহায়দের পাশে এগিয়ে আসার আহবান জানান তারা।



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft