রবিবার, ৩১ মে, ২০২০
সম্পাদকীয়
করোনা: একদিনেই ১০ জনের মৃত্যু
Published : Thursday, 16 April, 2020 at 7:41 PM
ক্রমাগত শঙ্কা, উদ্বেগ, উৎকন্ঠা বেড়েই চলেছে। কারণ, কোনোভাবেই রোধ করা যাচ্ছে না মৃত্যুর মিছিল। একদিনেই দশজনের মৃত্যুর মধ্য দিয়ে বাংলাদেশে নভেল করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৬০ জন। বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৩৪১ জনের মধ্যে এ ভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়ায় আক্রান্তের মোট সংখ্যা বেড়ে ১৫৭২ জন হয়েছে। সরকার বারবার শঙ্কিত না হওয়ার পরামর্শ দিলেও কোনোভাবেই উদ্বেগ-উৎকন্ঠা রোধ করা যাচ্ছে না।  
বাংলাদেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত প্রথম রোগীর খোঁজ মেলে গত ৮ মার্চ। তার দশ দিনের মাথায় ঘটে প্রথম মৃত্যু। একদিনে এত বেশি নতুন রোগী আর মৃত্যু বাংলাদেশকে দেখতে হয়নি। গত এক দিনে নতুন করে আর কেউ সুস্থ হয়ে ওঠেননি। এ পর্যন্ত মোট ৪৯ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক নাসিমা সুলতানা বৃহস্পতিবার অধিদপ্তরের নিয়মিত স্বাস্থ্য বুলেটিনে দেশে করোনাভাইরাস পরিস্থিতির এই সবশেষ তথ্য তুলে ধরেন। তিনি জানান, বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় সারা দেশ থেকে ২ হাজার ১৩৫টি নমুনা সংগ্রহ হয়েছে, পরীক্ষা করা হয়েছে ২০১৯টি। এই সময়ে যারা মারা গেছেন তাদের মধ্যে ৭০ থেকে ৮০ বছর বয়সের আছেন একজন। পাঁচ জনের বয়স ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে। তিনজনের বয়স ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে। এছাড়া একজনের বয়স ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে। এই দশজনের মধ্যে সাতজন পুরুষ, তিনজন নারী। তাদের ৬ জন ছিলেন ঢাকার বাসিন্দা, বাকি ৪ জন অন্য জেলার।
নতুন যারা আক্রান্ত হয়েছেন, তাদের বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য এদিন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের বুলেটিনে প্রকাশ করা হয়নি। নাসিমা সুলতানা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে নেওয়া হয়েছে ৩৭ জনকে, আর আইসোলেশন থেকে ছাড় পেয়েছেন ৯ জন। বর্তমানে মোট ৪৬১ জন আইসোলেশনে আছেন। সারা দেশে বিভিন্ন হাসপাতালে আইসোলেশন শয্যা রয়েছে ৬ হাজার ৯৭৭টি; তার মধ্যে ১ হাজার ৫৫০টি শয্যা রয়েছে ঢাকার হাসপাতালগুলোতে। আর ঢাকার বাইরের হাসপাতালগুলোতে রয়েছে ৫ হাজার ৪২৭টি শয্যা। এসব হাসপাতালে আইসিইউ শয্যার সংখ্যা ১৯২টি, ডায়ালাইসিস শয্যার সংখ্যা ৪০টি।
এমন বুলেটিন, এমন পরিসংখ্যান প্রতিদিন মানুষ শুনতে টেলিভিশনের সামনে বসছেন, আর এক বুক হতাশা নিয়ে উঠছেন। তারপরও আমরা ঘরবন্দির নিয়ম মানছি না। যখন তখন বাইরে যাচ্ছি। ভীড় করছি বাজারে। কষ্টকর বিষয় হলেও এক জেলা থেকে অন্য জেলায় পাড়ি জমাচ্ছি। আমাদের বিভিন্ন বাজারের ভীড় দেখে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এ মৃত্যুর মিছিল আরো বাড়বে। কারণ, আমরা একদিকে করোনার প্রকোপ দেখে যেমন ভয় পাচ্ছি, তেমনি সরকারি নিষেধাজ্ঞা ভাংতেও মরিয়া। আমরা ভালো না হলে, সরকার কোনোভাবেই এই ভয়াবহতা থেকে আমাদেরকে রক্ষা করতে পারবে না। আসুন আমরা ভালো হই। খোঁড়া যুক্তি দাঁড় করিয়ে বাজার, মোড়ের দোকান, মসজিদ, বন্ধুদের আড্ডা পরিহার করি। আসুন আমরা সকলে করোনার হাত থেকে বাঁচতে ও অন্যকে বাঁচাতে আরো সজাগ হই।




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft