মঙ্গলবার, ২৬ মে, ২০২০
আক্কেল চাচার চিঠি (আঞ্চলিক ভাষায় লেখা)
এ সব ভাইরাস ঠেকাবো কি দিয়ে ?
Published : Wednesday, 29 April, 2020 at 2:49 PM
কুটি কালে এট্টা গল্প শুনিলাম, ‘কারো ঘর পোড়ে, কেউ আসে আলু পুড়া খাতি’। কতাডা ঘুরে ফিরে মনে পইড়ে গেলো হালি কইরে নানা জাগায় কিচু ফটক তুলার মচ্ছব দেইকে। করোনা মহামারির মদ্দি চাষীগের ভুইতি ধান পাইকে গেচে। একন ধান কাটার সুমায়। লকডাউনের কারনে রাস্তায় গাড়ি ঘুড়া বা মানুস সিরাম চলাচল কত্তি পাচ্চে না। তারপর আবার এক জাগার লোক আরাক জাগায় যাতি বারন  দেচে পোশাসন। যে কারনে বাইরিত্তে আইসে যারা ধান কাটা, বাইড়োনো বা পাইট পরিস্কারের কাজে জোন দিতি আইসতো তারা আসতি পাচ্চেনা। মরার ওপর খাড়ার ঘা’র মতো একবার কালবোশেকী ঝড়, শিল পড়া কিম্বা হটাস হটাস বিস্টি হচ্চে। সব মিলেয়ো মাঠের ধান কাইটে  কি কইরে গুলায় তোলবে এ নিয়ে বিরাট  টেনশোনে আছে চাষীরা। এর মদ্দি আবার জ্বালার ওপর বিষফুড়া হইয়ে উটেচে ধান কাটার অভিনয়।  কোনটোয় ইরাম কায়দার অভিনয় চলচে এফডিসিতি জমা দিলি জাতীয় চলচ্চিত্তর পুরস্কার পাওয়ারও বিরাট সুম্ভাবনা। এ নিয়ে কতা উসাতিই এক ম্যা’ভাই কলে, ইডা তো দোষের কিচু না। একেক সুমায় একাক জিনুসরি গোন আসে। সিরাম ফটক তুলারও গোন আসে। কয়দিন আগে ছিলো ত্রান দিয়া ফটকের গোন একন সে জাগা ধইরে নেচে ধান কাটা ফটক। তার কথায় আরেক মুরুব্বী আমারে কলে, আক্কেল তুই তো শুনতিচি পিপারে দৈনিক লিকা ছাড়িস। ক’দিন বাপু যে পিপারে ছবি ছাপে অমুক জাগায় কৃষকের ধান কাইটে দেলে অমুক, তমুক জাগায় কৃষকের ধান কাইটে দেলে তমুক। ভালো কতা ছবি যারা ছাপায় তাগের কি কোন দায়িত্ব নেই এইডে লিকা তারা কৃষকের কট্টুক জমির ধান কাইটলো, কট্টুক সুমায় ধইরে কাইটলো কিম্বা তাগের কাইটে দিয়া ধানে কয় গল্লা হইলো? কারোত্তে সিরাম মাতায় কইরে ধান বইয়ে দিতি দেকিনে, ধান ঝাইড়ে দিতি দেকিনে, ধান উড়োতি দেকিনে। শুদু সাইজে গুইজে কাচি হাতে ধান ভুইতি উইলে একগোচ কাটা মানেই কি সব হইয়ে গ্যালো। যারা ইরাম ফটক শুদু পোচারের জন্যি বানায় তারাও কি করোনা ভাইরাসের মতো ক্ষেতিকারক না? এসব ভাইরাস ঠেকানোর উপায় নিয়ে এট্টু লিকালিকি কদ্দিনি বাপু।
ইতি
অভাগা আক্কেল চাচা
০১৭২৮৮৭১০০৩



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft