সোমবার, ২৫ মে, ২০২০
দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
ঈদ বাজারে বাহারী গয়নায় মজেছেন নারীরা
মিনা বিশ্বাস :
Published : Sunday, 17 May, 2020 at 12:22 AM
ঈদ বাজারে বাহারী গয়নায় মজেছেন নারীরাসাজ সজ্জায় পোষাকই শেষ কথা নয়, দরকার পড়ে অন্য অনুষঙ্গেরও। ঈদুল ফিতরের মতো বড় উৎসব হলে সে প্রয়োজন যেনো আরও বেশি। উৎসবে পোষাকের সাথে অলঙ্কার সাজসজ্জায় বাড়তি মাত্রা যোগ করে। পোষাক পরিচ্ছদ অনুযায়ী দরকার পড়ে হালকা বা ভারী গহনার। এদেশের পারিবারিক, সামাজিক নানান অনুষ্ঠান ও উৎসবে পোষাকের সাথে সাথে তাই গহনাও সমান গুরুত্ব পেয়ে থাকে।
আর সপ্তাহ খানেক পরেই ঈদ। পোষাকের পাশাপাশি যশোরের বিপনীবিতান ও স্টোরগুলো সাজানো হয়েছে বাহারি সব কসমেটিকস দিয়ে। বাজারে ক্রেতা সমাগমও দিন দিন বেড়ে চলেছে। এ পর্যায়ে ক্রেতারা তাদের প্রয়োজনীয় কসমেটিকস কিনছেন শহরের চুড়িপট্টি, কাপুড়িয়া পট্টি রোড, চৌরাস্তা মোড়, জেস টাওয়ার, সিটি প্লাজাসহ বিভিন্ন দোকান থেকে। তবে করোনা দুর্যোগের কারণে অন্যবারের তুলনায় বিক্রি কম বলে জানান কসমেটিকসের ব্যবসায়ী ও বিক্রেতারা। ঈদ উপলক্ষে শহরের বিভিন্ন দোকানে নানান মান ও দামের কানের দুল, চুড়ি, ব্রেসলেট, পাঞ্চ ক্লিপসহ অন্যান্য ধাতব গহনা পাওয়া যাচ্ছে।  
টিপের পাতা বিক্রি হচ্ছে ১০ টাকা থেকে ৫০ টাকায়। পাঞ্চ ক্লিপ ৩০ টাকা থেকে তিনশ’ টাকা। ইমিটিশনের নাকফুল পাঁচ টাকা থেকে একশ’ ২০ টাকা। সিঙ্গেল মালা ৪০ টাকা থেকে চারশ’ টাকা। সিটি গোল্ডের বালা ৫০ টাকা থেকে মানভেদে পাঁচশ’ টাকা জোড়া। কাঁচের রেশমি চুড়ি ৩০ টাকা থেকে একশ’ টাকা ডজন। কানের দুল ২৫ টাকা থেকে দু’শ’ টাকা। আংটি ২০ টাকা থেকে তিনশ’ ৫০ টাকা। ব্রেসলেট ১০ টাকা থেকে চারশ’ টাকা। পায়েল একশ’ টাকা থেকে চারশ’ টাকা। গোল্ড প্লেটেড স্টোন, পুতির কাজের বিভিন্ন ধরনের গয়না চারশ’ টাকা থেকে দু’হাজার টাকা।
চুড়িপট্টির ফারহান স্টোরের সত্ত্বাধিকারী এসএ হক লিমন বলেন, গতবারের তুলনায় এবার চারভাগের এক ভাগ কসমেটিকস বিক্রি হচ্ছে। যা বিক্রি হচ্ছে তাতে কর্মচারীদের বেতন দেয়া সম্ভব হবে। লাভ থাকবে না।    
জেস টাওয়ারের শুভেচ্ছা কসমেটিকস এর সত্ত্বাধিকারী এসএম শফিকুর রহমান আজাদ বলেন, এখন পর্যন্ত কসমেটিকসের যা বিক্রি হয়েছে তা আশানুরূপ নয়। ঈদের আগ পর্যন্ত হয়তো ক্ষতি কিছুটা পুষিয়ে নিতে পারবো।
চুড়িপট্টির সিটি গোল্ড ব্যবসায়ী দেবদাস অধিকারী বলেন, ইমিটিশন জুয়েলারি এবার সেভাবে বিক্রি হচ্ছে না। মানুষ বাজারে অন্যবারের তুলনায় কম আসছে। ঈদের আগ পর্যন্ত বিক্রি হয়তো একটু বাড়তে পারে।
অন্যদিকে চৌরাস্তা মোড়ে ফ্যাশন হাউজ ফোঁড় এ মাটি, কাঠ, পাথর, স্টিল, তামাসহ বিভিন্ন ধরনের ইমিটিশনের তৈরি গয়না পাওয়া যাচ্ছে। সর্বনিম্ন ১০ টাকা থেকে সর্বোচ্চ এক হাজার চারশ’ টাকায় এসব কানের দুল, ব্রেসলেট, মালা, আংটি, পায়েল বিক্রি হচ্ছে। ফোঁড় এর সত্ত্বাধিকারী মামুনুর রশীদ বলেন, ইমিটিশন ও বিভিন্ন ধরনের গয়নার বিক্রি মোটামুটি। যা বিক্রি হচ্ছে তা আগের বছরের তুলনায় কম।             




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft