শুক্রবার, ১০ জুলাই, ২০২০
ওপার বাংলা
পঙ্গপাল আতঙ্কে পশ্চিমবঙ্গের কৃষকরা
কাগজ ডেস্ক :
Published : Tuesday, 2 June, 2020 at 10:30 AM
পঙ্গপাল আতঙ্কে পশ্চিমবঙ্গের কৃষকরাভারতের বিভিন্ন রাজ্যে পঙ্গপালের হানায় বিঘার পর বিঘা জমির ফসল নষ্ট হয়ে যাওয়ার খবর এসেছিল এতদিন। এবার বিশেষ কিছু ঘটনায় আতঙ্ক দেখা দিয়েছে পশ্চিমবঙ্গে।
সংবাদ প্রতিদিনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ঝাড়গ্রাম জেলার একটি গ্রামে পঙ্গপালের হামলাতে লাউ ও আদা গাছের দফারফা বলে মনে করা হচ্ছে। আতঙ্ক ছড়িয়েছে স্থানীয় কৃষকদের মাঝে। তবে জেলা কৃষি দপ্তরের কাছে এরকম কোনো খবর নেই বলে দাবি।
সপ্তাহ দুই আগে ঘূর্ণিঝড় আম্পানের জেরে জেলায় চাষবাসের ব্যাপক ক্ষতি হয়। বোরো ধান-সহ সবজির খেত কার্যত তছনছ হয়ে যায়। তার ওপরে পঙ্গপালের হামলার আতঙ্কে আছেন কৃষকরা।
এ দিকে জোড়াশাল গ্রামের চাষের জমিতে পঙ্গপাল দেখা গিয়েছে বলে দাবি স্থানীয় বাসিন্দাদের একাংশের। এখন বেশিরভাগ জমি থেকে ধান কাটা হয়ে গেছে। তবে করলা, ঝিঙে, কুমড়া, পটল-সহ বিভিন্ন ধরনের সবজি রয়েছে জমিতে। স্থানীয়দের একাংশের বক্তব্য, জমিতে বেশ কিছু পঙ্গপাল জাতীয় পতঙ্গ দেখা গিয়েছে। এগুলো সাধারণত জমিতে থাকে। খুব বড় সংখ্যায় এদের দেখা যায়নি। জোড়াশাল গ্রামের বাসিন্দা সত্যজিৎ দে বলেন, “গত দু, একদিন বিকেলে ধূসর রঙের পঙ্গপাল দেখা গেছে। আদা, লাউ গাছের দফারফা করে দিয়েছে।”
ভারতের একাধিক রাজ্যে পঙ্গপালের হানায় ফসল নষ্ট হলেও ঝাড়গ্রামে এখনো এরকম কিছু ঘটেনি বলে জানায় কৃষি দপ্তর। জেলা কৃষি দপ্তরের ডেপুটি ডিরেক্টর মানস রঞ্জন প্রধান বলেন, “আমাদের জেলায় পঙ্গপালের কোনো খবর নেই। রাজ্য থেকে এখনো পর্যন্ত এই সংক্রান্ত বিষয়ে নির্দেশও আসেনি। জমিতে কীট-পতঙ্গ থাকেই। তবে আমরা খবর নিয়ে দেখব।”
এ দিকে বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুরের রাধানগর গ্রাম সংলগ্ন এলাকায় লাখেশোল শালবাগানে পঙ্গপাল জাতীয় পতঙ্গ দেখে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। রবিবার বিকেলের পর থেকে এই শালবনের একাধিক গাছে ঝাঁকে ঝাঁকে পতঙ্গকে পাতা খেতে দেখা যায় বলে জানিয়েছেন স্থানীয় মানুষজন। শালবনে পতঙ্গদের এই পাতা খাওয়ার দৃশ্য বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছেন তারা।
রাজস্থান, মধ্যপ্রদেশ ও উত্তরপ্রদেশে হামালা হানা দিয়ে ব্যাপক ফসলের ক্ষয়ক্ষতি করে। তারপরে সেই পঙ্গপালের দল পূর্বের দিকে সরছে বলেও জানা যায়। এমনকি ঝাড়খন্ড পর্যন্ত চলে এসেছে বলেও খবর ছিল।




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft