বৃহস্পতিবার, ০৯ জুলাই, ২০২০
আক্কেল চাচার চিঠি (আঞ্চলিক ভাষায় লেখা)
কটকটি খালা, বুজবা কি গরীবির জালা !
Published : Friday, 5 June, 2020 at 11:15 PM
কটকটি খালা, বুজবা কি গরীবির জালা !শুনতি পালাম এই জুন মাসেত্তে গারমেন্সের কর্মী ছাটাই করা হবে। কতাডা কোন আইশো পাইশো লোকে কয়নি। খোদ গারমেন্সে মালিকগের পোধান কটকটি খালা কইয়েচেন টিবিতি নিজির চোকি দেকলাম। তেবে জুন মাসের কতা কলিও তলশুড়া কইরে জানতি পাল্লাম রুযার আগেত্তেই এই ছাটাই শুরু হইয়েচে। ২৫ মার্চেত্তে সারাদেশে নকডাউন শুরু হইয়ে পেত্তম চালান ১৫ এপ্রিল পন্তিক করা হইলো। সব কিচু বন্দ থাকপে ভাইবে গারমেন্স কর্মীরা বহুত কষ্ট কইরে যে যার গিরামের বাড়ি ফিরে আইলো। এর মদ্দিই ৪ এপ্রিল হটাস ঘোষনা দিয়া হয় গারমেন্স খুলা হবে। কওয়া হইলো যারা আসপে না তাগের মার্চ এপ্রিল মাসের বেতনও দিয়া হবেনে আবার ছাটাই কইরে দিয়া হবে। গাড়িঘুড়া বন্দ, ভ্যান রিকশা,ইজিবাইক, পানির ডিরাম আর পায় হাইটে সব শোমিক আবার ঢাকায় আসিল। তকন আবার হটাস কওয়া হইলো লকডাউনির মদ্দি গারমেন্স বন্দ থাকপে। এতগুলো মানসির নিয়ে এই ছাবাল খেলার মানে কি তা নিয়ে বহুত হৈচৈ হইলো। পরে জানা গেলো গারমেন্স মালিকরা সরকাররে জানাইলো করোনার জন্যি বহুত অডার কাইজে গেচে তাই তারা লুকসানে আচে বিলে কর্মীগের বেতন দিতি পাচ্চেনা। সরকার তাগের পাচ হাজার কোটি টাকা ভত্তুকি দিলো। তারা ভাবিল এই টাকা নিয়ে তারা মচ্চিমুলামে খচ্চা করবে। কিন্তুক সরকার তাগের দুডো শত্ত দিলো এক. বেতন ভাতার টাকা সরকার তাগের মুবাল ব্যাংকের মাদ্দ্যমে দেবে যাতে তারা সরাসরি টাকাডা হাতে পায় দুই. কোন শোমিকরে ছাইটাই করা যাবে না। গারমেন্স মালিকগের তকন মাছ না পাইয়ে ছিপি কামড় দশা।  সেইত্তে তাগেবাগে ছিলো কোন ছালে ছুতোয় লোক খেদাবে। জানতি পাল্লাম এগের মাতায়  যে শয়তানি তা মনে হয় ইবলিশির মাতায়ও নেই। গারমেন্সের শোমিকগের বছর পুইরে গেলি বেতন বুনাস বাড়ে। যে সব শোমিকগের এগার মাস সাড়ে এগারমাস চলতিলো বাইচে খুইটে তাগেরই ছাটাই করা হচ্চে, যাতে কম বেতনে নতুন লোক নিতি পারে। আমি মুক্কু সুক্কু মানুস জ্ঞানের বহর খাটো তাই এট্টা জিনুস বুজি আসেনা ফি বছর যকন হাজার হাজার কোটি টাকা মালিকগের লাভ হয় তকন তো কর্মীগের কোন দেড়ি টাকা দিয়া হয় না তালি লসের সুমা আসলি তার দুহাই দিয়ে কেন শোমিকির ঘাড় ভাঙ্গা হবে ?
ইতি
অভাগা আক্কেল চাচা
০১৭২৮৮৭১০০৩




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft