শনিবার, ০৪ জুলাই, ২০২০
আক্কেল চাচার চিঠি (আঞ্চলিক ভাষায় লেখা)
সবুজ রড বানাচ্চে কোন কুম্পানী ?
Published : Friday, 26 June, 2020 at 11:20 PM
সবুজ রড বানাচ্চে কোন কুম্পানী ?পরিবেশ নিয়ে নানা আন্দোলন হচ্চে তামান জাগায়। সুন্দর জীবন চালি সব জাগায় সবুজি ভইরে দিতি হবে। এই সবুজির আন্দোলনের কারনে একন পিরায় অপিস আদালোত ঘর বারান্দা চিলেকুটা ছাদে গাছ গাছালি লাগাতি দেকতি পাওয়া যায়। জ্ঞানীগুনী মানসির চুয়াচুয়ি কতা হচ্চে গাছপালা খ্যায় করা মানে মানসির জীবনই খ্যায় করা। তাই কোন জাগা ফাকা রাকা যাবে না। এক চিলতে জমি হলিও স্যানেও কিচু না কিচু লাগাতি হবে। এই সবুজির আন্দোলনডা আমার খুব ভালো লাগে। সেদিন হটাস এট্টা জিনুস দেইকে আল্লাদে আটখান হইয়ে গেলাম পরে হেজেমানে কইরে যা পালাম তাতে আল্লাদডা ফুটো বেলুনির মতো চুপসে গ্যালো। বিষয়ডা খোলাসা কইরে কলি বুজদি যুইত হবেনে। আমাগের এলেকায় সরকারি এট্টা দালানের ছাদ ঢালাই হচ্চে। ঢালাইয়ের আগে ছাদের ওপর লুহার রড বাইন্দে ছাইন্দে রেডি করা আচে। এক বড় নিতা কাজের কন্টাক্টর। সে কারনে তার নিজির লোক ছাড়া স্যানে ভিড়া দুস্কর। তারপরও মানসির চাহিদার ঘাটতি নেই কি হচ্চে দেকার জন্যি। লোকের হ্যাতো ভিড়ভাট্টা দেইকে আমিও গুড়ি মাইরে আইগোয় গেলাম। সুমকি তাগায় দেইকে খুশিতে পরানডা উতলে উটলো। মনে মনে কন্টাক্টারের জন্যি দুয়াও কল্লাম। আমার আল্লাদি ভাব দেইকে পাশেত্তে একজন কলে চাচা অত গদগদ হওয়ার  হেতু কি? আমি কলাম দেকিচিস মানুস কত সচেতন হইয়েচে। আমাগের সুমায় ঘরদোর করার সুমায় যে রড কিনতাম তা কালো কুচকুচ কইত্তো। এর একন তাগায় দেক কি সুন্দর সবুজ রড বাইরোচে। সবুজ রড দিয়ে বানানো হচ্চে দালানকুটা। ভাবদিই জানডা জুড়োয় যাচ্চে। পাশেত্তে একজন কলে আসলেই লোকে যা কয় তা অমুলক না। বয়স বাইড়লো কিন্তুক তুমার আক্কেল হইলো না, সবুজ রড কনে পালে, তুমার কি চোকি ন্যাবা হইয়েচে? ভালো কইরে তাগায় দেকো জিনুসটা কি। তার এই উজোনভাটি কতা শুইনে মনে খটকা লাইগলো, চুন্নি বিলেইর মতো গুটিগুটি পায় আইগোয় যাইয়ে যা দেকলাম তাতে চোক বড়াছ্যানা দশা। বড় কুম্পানীর সবুজ রড যারে ভাবিলাম সিডা তো দেকতিচি কার ঝাড়ের মাল ! তালি একন রডের বদলে ইরাম কইরে বাশ দেচ্চে ! আলাম কনে, মলাম যে !
ইতি
অভাগা আক্কেল চাচা
০১৭২৮৮৭১০০৩





সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft