বুধবার, ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২০
দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল
যশোর মুরগি খামার পুরানো কর্মচারী শূন্য
সাক্ষী না রাখতে খামারের ১৬ কর্মচারীকে বদলি
দেওয়ান মোর্শেদ আলম
Published : Wednesday, 12 August, 2020 at 1:12 AM

সাক্ষী না রাখতে খামারের
১৬ কর্মচারীকে বদলিঅনিয়ম দুর্নীতির অভিযোগে মুরগি খামারের সাসপেন্ড এডি এনামুল হক ঢাকায় বসে গুঁটি চালছেন। অধিদপ্তরের কতিপয় কর্মকর্তাকে ম্যানেজ করে তার দুর্নীতির সাক্ষী ১৬ জন কর্মচারীকে বদলি করিয়েছেন। খামারে পদস্থ থেকে ড্রাইভার সুইপার পর্যন্ত বদলি করা হয়েছে।  প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় ও অধিদপ্তরের রশি টানাটানির সুযোগ নিয়ে প্রথমে ৫ জনকে এবং পরে আরও ১১ জনকে বদলি করান। করোনা সংকটের সময়ে বদলি হওয়া ১৬ কর্মচারি পরিবার পরিজন নিয়ে নতুন কর্মস্থলে যোগদান করা নিয়ে দুশ্চিন্তায় পড়েছেন। এই বদলির মধ্য দিয়ে দীর্ঘ ৪ বছর দুর্নীতি ও অনিয়মের জালে আবদ্ধ যশোর খামারে আর পুরানো কোনো কর্মচারি  থাকছেনা।  
গত ২৪ জুন সাসপেন্ড হন এডি এনামুল হক। অভিযোগ আছে, এনামুল হক ঢাকা যাবার পর তার কারসাজিতেই পর্যাক্রমে এই ১৬ জনকে বিভিন্ন স্থানে বদলি করা হয়।
নতুন ডিডি হিসেবে যশোর খামারে যোগ দান করেছেন ঢাকা সাভারের সরকারি ডেইরী খামারের বায়রা অফিসার শফিকুল ইসলাম। পোল্ট্রি ডেভলেপমেন্ট অফিসার পদে এখনও  কাউকে দেয়া হয়নি।
প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তর সূত্র জানিয়েছে, সহকারি পরিচালককে সাসপেন্ড করে মন্ত্রণালয়। ওই  সময় অধিদপ্তরের সাথে সমন্বয় করা হয়নি বলে অভিযোগ ওঠে। এ কারণে অধিদপ্তরের কয়েকজন পদস্থ কর্মকর্তা নাখোশ হন। আর এই সুযোগটিই নেন এনামুল হক।
এই ১৬ কর্মকর্তা কর্মচারি যশোরে থাকলে তদন্ত প্রতিবেদন এনামুল হকের বিরুদ্ধে যেতে পারে এই আশঙ্কায় তিনি কৌশলে তাদের বদলি করিয়েছেন। কেননা তদন্ত প্রতিবেদন এডির বিরুদ্ধে গেলে তিনি প্রায় ৮০ লাখ টাকা থেকে বঞ্চিত হবেন। শুধু তাই নয় স্থায়ীভাবে চাকরিচ্যুত হবেন বলে  সূত্রের দাবি।




সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
 আমাদের পথচলা   |    কাগজ পরিবার   |    প্রতিনিধিদের তথ্য   |    অন লাইন প্রতিনিধিদের তথ্য   |    স্মৃতির এ্যালবাম 
সম্পাদক ও প্রকাশক : মবিনুল ইসলাম মবিন
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : আঞ্জুমানারা
পোস্ট অফিসপাড়া, যশোর, বাংলাদেশ।
ফোনঃ ০৪২১ ৬৬৬৪৪, ৬১৮৫৫, ৬২১৪১ বিজ্ঞাপন : ০৪২১ ৬২১৪২ ফ্যাক্স : ০৪২১ ৬৫৫১১, ই-মেইল : [email protected], [email protected]
Design and Developed by i2soft